Home /News /international /
Man reports wife to police : অশক্ত বৃদ্ধার ৭ লাখ টাকা চুরি! ঘুমের ঘোরে স্ত্রীর স্বীকারোক্তি শুনে পুলিশের দ্বারস্থ স্বামী

Man reports wife to police : অশক্ত বৃদ্ধার ৭ লাখ টাকা চুরি! ঘুমের ঘোরে স্ত্রীর স্বীকারোক্তি শুনে পুলিশের দ্বারস্থ স্বামী

Representative Image

Representative Image

এই ঘটনা ইংল্যান্ডের (United Kingdom)৷ অভিযুক্ত মধ্যবয়সিনীর নাম রুথ ফোর্ড৷ তিনি পেশায় কেয়ার ওয়ার্কার বা সেবিকা

  • Share this:

    লন্ডন : ঘুমের মধ্যে কথা বলে চুরি করার কথা স্বীকার করেছিলেন স্ত্রী৷ তাঁর অজ্ঞাতসার স্বীকারোক্তি শুনে পুলিশের দ্বারস্থ হলেন স্বামী৷ এই ঘটনা ইংল্যান্ডের (United Kingdom)৷ অভিযুক্ত মধ্যবয়সিনীর নাম রুথ ফোর্ড৷ তিনি পেশায় কেয়ার ওয়ার্কার বা সেবিকা৷

    সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, সম্প্রতি রুথ ৭ হাজার ২০০ পাউন্ড বা ভারতীয় মুদ্রায় ৭ লক্ষ ২৯ হাজার ৭৬৬ টাকা চুরি করেন এক হুইলচেয়ার আসীন বৃদ্ধার কাছ থেকে৷ ওই বৃদ্ধার সেবিকা হিসেবে কাজ করতেন রুথ৷

    বিশাল অঙ্কের এই অর্থ চুরির পর রুথের জীবনযাত্রায় বড়সড় পরিবর্তন আসে৷ সম্প্রতি তিনি মেক্সিকোতে ছুটি কাটাতে গিয়ে প্রচুর অর্থ ব্যয় করেন৷ রুথের প্রতি তাঁর স্বামী অ্যান্থনির সন্দেহ ক্রমেই বাড়ছিল৷ অবশেষে একদিন তাঁর সন্দেহের নিরসন হল অদ্ভুতভাবে৷ পুলিশের কাছে তিনি জানিয়েছেন, ঘুমের ঘোরে নিজের অপকর্মের কথা স্বীকার করেন রুথ৷ স্ত্রীর ঘুমজড়ানো কণ্ঠে স্বীকারোক্তি শুনতে পেয়ে তাঁর ওয়ালেট পরীক্ষা করেন অ্যান্থনি৷ তাঁর দাবি, সেখানেই দেখতে পান ওই বৃদ্ধার ডেবিট কার্ড (UK man reports wife to police)৷

    আরও পড়ুন : বাড়িতে এনেছিলেন নিরীহ বিড়ালছানা, ২ বছর পর পোষ্য মার্জার এখন দৈত্যাকৃতি

    ৬১ বছরের প্রৌঢ় অ্যান্থনি বলেছেন, ‘‘রুথের অতিরিক্ত ব্যয়ে আমার সন্দেহ হয়েছিল৷ প্রথমে আমার এটা নিছক প্রবণতা বলেই মনে হয়েছিল৷ কিন্তু পরে যখন ওঁর ওয়ালেটে ডেবিট কার্ড খুঁজে পেলাম, তখন সব বুঝতে পারলাম৷ আমার হৃদয় ভেঙে গিয়েছিল৷’’ তিনি আরও জানান, যদিও তিনি স্ত্রীকে অত্যন্ত ভালবাসেন, কিন্তু তিনি তাঁর এই দুষ্কর্ম এড়িয়ে যেতে পারেননি৷ তিনি কোনওদিন ভাবতেও পারেননি তাঁর স্ত্রী একজন চলৎশক্তিহীনের টাকা চুরি করবেন এবং তিনি সেটা পুলিশে রিপোর্ট করবেন৷’’

    আরও পড়ুন : নিলাম হবে বিশ্বের বৃহত্তম পলকাটা কালো হিরের, দাম উঠতে পারে ৫০০ বিলিয়ন ডলার

    নিজের মৃগী রোগের কারণে কাজ থেকে বিরতি নিয়েছেন রুথ৷ ঘুমের মধ্যে তাঁর কথা শুনে অ্যান্থনি মেঝেতে পড়ে থাকা অবস্থায় রুথের ওয়ালেট খুঁজে পান৷ তার ভিতরেই ছিল ওয়ালেট৷ বৃদ্ধার অ্যাকাউন্টের পিন নাম্বার রুথের কাছেই ছিল বলে জানান অ্যান্থনি৷ রুথ ঘুম থেকে ওঠার পর অ্যান্থনি তাঁকে সব জিজ্ঞাসা করেন৷ তাঁর প্রশ্নের মুখে অপরাধ স্বীকার করেন রুথ৷

    এই ঘটনার জেরে সেপারেটেড হয়ে গিয়েছেন অ্যান্থনি এবং রুথ৷ পুলিশের কাছে স্ত্রীর কৃতকর্ম জানিয়েছেন অ্যান্থনি৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: United Kingdom

    পরবর্তী খবর