corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউন ভাঙলেই ধরছে রোবট, ফলও মিলছে হাতেনাতে

লকডাউন ভাঙলেই ধরছে রোবট, ফলও মিলছে হাতেনাতে
লকডাউন কার্যকর করে পথে রোবট৷ PHOTO- FILE

লকডাউনের মধ্যে কেউ বাইরে বেরোলেই তাঁকে পাকড়াও করছে রোবট৷ এর পর যান্ত্রিক পদ্ধতিতেই চলছে জিজ্ঞাসাবাদ৷

  • Share this:
     

#তিউনিশিয়া: লকডাউন ভঙ্গকারীদের পিছনে ছুটে নাজেহাল হচ্ছেন ভারতের পুলিশকর্মীরা৷ ধরপাকড় করেও বাইরে বেরনোর প্রবণতা বন্ধ করা যাচ্ছে না৷ সেখানে আফ্রিকার দেশ তিউনিশিয়ায় পুলিশের কাজ অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে রোবটরা৷ বলা ভাল সেখানে যন্ত্রমানবরাই লকডাউনের সময় পুলিশের কাজ করে দিচ্ছে৷

আসলে তিউনিশায় লকডাউন ভঙ্গ করে কেউ যাতে বাইরে অকারণে না বের হয়, সেই নজরদারির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে রোবটদের৷ তাই তিউনিশিয়ার রাস্তায় রাস্তায় যন্ত্রমানবরা ঘুরে বেড়াচ্ছে৷ লকডাউনের মধ্যে কেউ বাইরে বেরোলেই তাঁকে পাকড়াও করছে রোবট৷ এর পর যান্ত্রিক পদ্ধতিতেই চলছে জিজ্ঞাসাবাদ৷ তার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিচয়পত্র সমেত একটি রিপোর্ট তৈরি করে পুলিশের কাছে পাঠিয়ে দিচ্ছে যন্ত্রমানবরা৷

রোবটদের সাহায্য নিয়ে লকডাউন কার্যকর করার পরিকল্পনা নিয়ে সুফল পেয়েছে তিউনিশিয়া৷ বিশ্বের বহু দেশেই যেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে, সেখানে তিউনিশিয়ায় ৫৫৩ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে৷ গত ১৭ মার্চ থেকে তিউনিশিয়ায় লকডাউন শুরু হয়েছে৷ বর্তমানে তা তৃতীয় সপ্তাহে পড়েছে৷ আগামী ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত সেদেশে লকডাউন চলার কথা৷ ভারতের মতো তিউনিশিয়াতেও শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবাই চালু রয়েছে৷

পি গার্ডস নামের এই রোবটগুলি শরীরে থার্মাল ইমেজ ক্যামেরা এবং লাইট ডিটেকশন প্রযুক্তি রয়েছে৷ এর ফলে রাস্তায় বেরনো যে মানুষের ছবি অতি দ্রুত তুলে নিতে সক্ষম তারা৷ ছবি তোলার পরেই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির কাছে গিয়ে তাঁর পরিচয়পত্র নিয়ে ইমেজ কন্ট্রোল রুমে পাঠিয়ে দিচ্ছে এই যন্ত্রমানবরা৷

তিউনিশিয়া সরকার মনে করছে, রোবটদের দিয়ে নজরদারির কাজ চালিয়ে মানব সংস্পর্শ কমিয়ে রোগের সংক্রমণ ঠেকানো যাচ্ছে৷ পুলিশ এবং সেনাবাহিনীর মধ্যেও করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা কমছে৷ তাছাড়া, পুলিশের থেকে রোবটদের মানুষ একটু হলেও বেশি ভয় পায় বলেই মনে করছে তিউনিশিয়া সরকার৷

এই যন্ত্রমানবগুলি ২০১৫ সালে তৈরি করা হয়েছিল৷ এর পর বিভিন্ন দেশে নিরাপত্তারক্ষীর কাজে তাদের ব্যবহার শুরু হয়৷ এক- একটি রোবটের দাম ৭৬ থেকে ৮০ লক্ষ টাকা৷ রাস্তায় রোবটদের সফল ব্যবহারের পর হাসপাতালেও রোবটদের ব্যবহার করার কথা ভাবছে তিউনিশিয়া সরকার৷ তবে সেখানে রোগীর পরিজনদের সাহায্য করার জন্য তাদের তৈরি করা হবে৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: April 5, 2020, 5:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर