লাদাখ সীমান্তে সেনা সরানোর প্রশ্ন নেই, সাফ জানিয়ে দিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং

লাদাখ সীমান্তে সেনা সরানোর প্রশ্ন নেই, সাফ জানিয়ে দিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং

photo/ dna india

ভারত আশাবাদী আলোচনার মাধ্যমেই রাস্তা বেরোবে। তবে যাই হোক, কোন অবস্থাতেই আগে সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে না ভারত। চিন যদি সেনা প্রত্যাহার শুরু করে, তাহলে ভারত রাজি আছে। না হলে এই প্রশ্ন অবান্তর

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: অবস্থা গত আট মাসে পরিবর্তন হয়নি। ভারত এবং চিন  দু দেশের সেনা একে অপরের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে রয়েছে। প্রবল ঠান্ডা পড়ে গিয়েছে, তাও স্ট্যান্ড অফ কবে শেষ হবে জানা নেই। অনেকবার আলোচনার টেবিলে বসা হয়েছে, কূটনীতিক স্তরে সমাধান বের করার চেষ্টা হয়েছে। কিন্তু কিছুই কাজ দেয়নি। ইতিমধ্যেই ভারতের সিডিএস বিপিন রাওয়াত এবং সেনাবাহিনীর প্রধান এম এম নারাভানে স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়েছেন সামরিক দিক থেকে লড়াই হলে প্রস্তুত রয়েছে ভারত। আজ চিন প্রসঙ্গে বেশ আক্রমনাত্মক প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল পূর্ব লাদাখের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে।

    প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জানান,"অবস্থা যা ছিল মোটামুটি তাই আছে। এই ধরনের স্ট্যান্ড অফ কতদিন চলে সেটা বলা সম্ভব নয়। ভারত আশাবাদী আলোচনার মাধ্যমেই রাস্তা বেরোবে। তবে যাই হোক, কোন অবস্থাতেই আগে সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে না ভারত। চিন যদি সেনা প্রত্যাহার শুরু করে, তাহলে ভারত রাজি আছে। না হলে এই প্রশ্ন অবান্তর"। প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন সীমান্তের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় যথেষ্ট শক্তিশালী অবস্থান রয়েছে ভারতীয় সেনার। চিন চাইলেও কোনও দুঃসাহস দেখাতে পারবে না। পাশাপাশি তিনি মনে করেন প্রচন্ড দ্রুতগতিতে পরিকাঠামো উন্নয়নের কাজ চলছে বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায়।

    অতীতের তুলনায় এই মুহূর্তে চিন সীমান্তে ভারতের পরিকাঠামো অনেক বেশি উন্নত। রাস্তা, ব্রিজ এমনকি টানেল তৈরি করছে ভারত। যে রাস্তা অতিক্রম করতে আগে তিন থেকে চার ঘন্টা লাগত, এখন এক ঘণ্টার বেশি লাগে না। চিন অনেক জায়গায় ভারতের পরিকাঠামো উন্নয়নের কাজ বন্ধ করতে চেয়েও লাভবান হয়নি। এই উন্নত পরিকাঠামো  চিনের অন্যতম মাথাব্যথার কারণ। কয়েকদিন আগে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর জানিয়েছিলেন গত চার দশকের ভেতর চিনের সঙ্গে সম্পর্ক এত তলানিতে কখনও যায়নি। রাজনাথ জানান,"ভারত পড়শি দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কে বিশ্বাসী। অতীতে তাই করে এসেছে। এখনও এই প্রথায় আমরা বিশ্বাসী। কিন্তু বিশ্বাসের সুযোগ নিয়ে কেউ যদি ঠকায় তার জবাব দিতে এই ভারত জানে"।

    চিনের তরফে অবশ্য কোনও জবাব দেওয়া হয়নি। কয়েকদিন আগেই পিএলএ ওয়েস্টার্ন থিয়েটার কমান্ডে(ভারতের সঙ্গে লাগোয়া সীমান্ত) নতুন জেনারেলকে দায়িত্ব দিয়েছে। শি জিনপিং নিজেই বেছে নিয়েছেন ওই জেনারেলকে। খুবই ধূর্ত এবং নির্মম বলে পরিচিত জেনারেল ঝাং ঝুডং। ভারত অবশ্য নিজেদের সব খুঁটিনাটি তৈরি রেখেছে। সময় এলে চিনকে যোগ্য জবাব দিতে পিছপা হবে না ভারতীয় সেনা।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: