?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

চিন-ভারত সংঘর্ষে আহত ৭৬ জওয়ান এখন সুস্থ, দ্রুত যোগ দেবেন বাহিনীতে, জানাচ্ছে সেনা

চিন-ভারত সংঘর্ষে আহত ৭৬ জওয়ান এখন সুস্থ, দ্রুত যোগ দেবেন বাহিনীতে, জানাচ্ছে সেনা

চিনের হামলায় ২০ জন সেনা নিহত হয়েছে৷ তবে কোনও সেনা নিখোঁজ নয় বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা বাহিনী৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: লেহতে চিকিৎসারত ১৮জন জওয়ানের অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানিয়েছে সেনা৷ এমনকী ৫৮জন আহত জওয়ান যারা অন্য হাতপাতাসে ভর্তি ছিলেন তাঁরা ১ সপ্তাহের মধ্যে কাজে ফিরতে প্রস্তুত৷ অর্থাৎ সপ্তাহখানেকের মধ্যে তাঁরা সকলেই পুরো ফিট হতে পারবেন৷

লেহর হাসপাতালে ভর্তি সকলে ১৫দিনের মধ্যে কাজে যোগ দিতে পারবেন৷ অন্যদিকে ৫৮জন যাঁরা অন্য হাসপাতালে তাঁরা ১ সপ্তাহের মধ্যেই ফিরতে পারবেন কাজে৷ সংবাদসংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন সেনা আধিকারিকরা৷

এর পাশাপাশি সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন ভারতীয় সেনা চিনের হাতের বন্দি হয়েছেন বলে দাবি করেছিল চিন৷ কিন্তু চিনের সে দাবি উড়িয়ে দিয়েছে ভারতীয় সেনা৷ তাদের বক্তব্য যে কোনও ভারতীয় সেনা নিখোঁজ নন৷

আরও পড়ুন প্ল্যান ছিলই, তাই সংঘর্ষের আগে সীমান্তে তৎপরতা বাড়িয়েছিল চিন, স্যাটালাইট ছবিতে স্পষ্ট

সোমবার রাতে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় অনুপ্রবেশকারী চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন সেনা শহিদ হন৷ ভারতীয়দের ওপর এই হামলা কোনও ভাবেই ভোলা হবে না বলে মন্তব্য করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী সহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রী৷ ইতিমধ্যেই এই পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনার জন্য সর্বদল বৈঠক ডেকেছেন প্রধানমন্ত্রী৷

সোমবার রাতে এই ঘটনার পর বুধবারও ভারত-চিন উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয়৷ তবে সামরিক বাহিনীর সেই বৈঠকে কোনও সমাধানসূত্র মেলেনি৷ অন্যদিকে চিনের বক্তব্য যে, তাদের মাটিতে ঢুকে পড়ে ভারতীয় সেনা৷ তাই এই হামলায় তাদের কোনও দায় নেই বলেই বারবার মন্তব্য করছে চিন৷

তবে গালওয়ান উপত্যকায় অনেক দিন ধরেই ভারতের ওপর হামলা চালানোর ছক কষছিল চিন৷ পাহাড় কেটে, নদীতে বাঁধ বানিয়ে সেই চেষ্টা সফল করার দিকে এগোচ্ছিল তারা৷ এমনই ধরা পড়ল উপগ্রহ  ছবিতে৷

ভারত-চিন সংঘর্ষ ও ২০জন ভারতীয় সেনা শহিদ হওয়ার পর প্রকাশিত হয়েছে কিছু উপগ্রহ চিত্র৷ তাতে ধরা পড়েছে চিনের এই ধরণের আচরণের কথা৷ সংবাদসংস্থা রয়টার্স সামনে এনেছে এই ছবি যাতে স্পষ্ট দেখা গিয়েছে উপত্যকায় বিকল্প রাস্তা চওড়া করা হয়েছে৷ এমনকি নদীর ওপর দিয়ে যাতায়াতের বন্দোবস্ত করা পার্বত্য এলাকায় নানা যন্ত্রপাতি নজরে এসেছে বিশেষজ্ঞদের৷

Published by: Pooja Basu
First published: June 19, 2020, 1:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर