• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • explained
  • »
  • SPACE TOURISM SHOWS ITS POTENTIAL AS COMPANIES SUCH AS VIRGIN GALACTIC BLUE ORIGIN AND SPACEX SIGN UP WEALTHY ADVENTURERS TC RC

Space Tourism: মহাকাশে পর্যটন! থাকা-খাওয়া মিলিয়ে ক'দিনের প্যাকেজে কত টাকা হাঁকছেন মাস্ক থেকে বেজোস?

মহাকাশে পর্যটন! থাকা-খাওয়া মিলিয়ে ক'দিনের প্যাকেজে কত টাকা হাঁকছেন মাস্ক থেকে বেজোস?

বাণিজ্যিক ভাবে ব্যাপারটা শুরু হয়েছে ২০০৪ সাল থেকে, যখন ভার্জিন গ্যালাকটিক (Virgin Galactic) মহাশূন্যে বাণিজ্যিক যান পাঠাল!

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: মহাকাশের ব্যাপার যখন, তখন সবার আগে NASA-র নাম তো আসবেই! ১৯৮০ সালে সংস্থা নিজের খরচে মার্কিন কংগ্রেসের দুই সদস্যকে মহাশূন্যে ঘুরিয়ে এনেছিল। হিসেব মতো সেটাকেই মহাকাশ পর্যটনের প্রথম উদ্যোগ বলতে হয়। এর পর ২০০০ রাশিয়া বার আটেক মহাশূন্যে যান পাঠিয়েছে পর্যটনের লক্ষ্যে। তবে বাণিজ্যিক ভাবে ব্যাপারটা শুরু হয়েছে ২০০৪ সাল থেকে, যখন ভার্জিন গ্যালাকটিক (Virgin Galactic) মহাশূন্যে বাণিজ্যিক যান পাঠাল! সেই শুরু, আপাতত মহাকাশ পর্যটনের পালে জোর হাওয়া লেগেছে!

কোন কোন সংস্থা যুক্ত মহাকাশ পর্যটনের ব্যবসায়? জানা গিয়েছে যে জেফ বেজোসের (Jeff Bezos) সংস্থা ব্লু অরিজিন (Blue Origin) ২০ জুলাই মহাকাশ পর্যটনের লক্ষ্যে একটি আসন নিলামে তুলতে চলেছে। তবে, বেজোসের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী, এলন মাস্কের (Elon Musk) সংস্থা স্পেসএক্সও (SpaceX) এই ব্যাপারে কম যায় না। পাশাপাশি, মহাকাশ পর্যটনের বাজারে রয়েছে ভার্জিন গ্রুপের ভার্জিন গ্যালাকটিক, যার কথা আগেই উল্লেখ করা হয়েছে।

মহাকাশে ঘুরতে যাওয়ার শর্তাদি কী রকম?

১. ব্লু অরিজিন- মহাকাশচারীর উচ্চতা ৫ ফুট থেকে ৬ ফুট ৪ ইঞ্চির মধ্যে থাকা বাঞ্ছনীয়। ওজন হতে হবে ১১০ থেকে ২৩২ পাউন্ডের মধ্যে। সংস্থা সতর্ক করে দিয়েছে যে মহাকাশে যাওয়ার সময় মাধ্যাকর্ষণের তিনগুণ বেশি চাপ সহ্য করতে হবে ২ মিনিটের জন্য। আবার, মহাকাশ থেকে পৃথিবীতে ফিরে আসার সময়ে কয়েক সেকেন্ডের জন্য মাধ্যাকর্ষণের সাড়ে ৫ গুণ বেশি চাপের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে হবে। ২. স্পেসএক্স- সেন্ট জুড চিলড্রেনস রিসার্চ হসপিটালের (St. Jude Children’s Research Hospital) জন্য টাকা তোলার উদ্যোগে এই সংস্থাও মহাকাশযানে ঘোরার সুযোগ দিচ্ছে। এই সংস্থা বলছে যে উচ্চতা ৬ ফুট ৬ ইঞ্চি এবং ওজন ২৫০ পাউন্ড পর্যন্ত থাকলে কোনও অসুবিধা নেই। যদিও এই মাধ্যাকর্ষণের চাপ সহ্য করার ব্যাপার নিয়ে যাতে কেউ অহেতুক ভয় না পান, সেই লক্ষ্যে এক বিবৃতি দিয়েছেন সংস্থার মালিক এলন মাস্ক। তিনি জানিয়েছেন যে রোলার কোস্টার রাইডে চড়তে যদি কেউ ভয় না পান, তাহলে তিনি নিশ্চিন্তে মহাকাশযাত্রার কথা ভাবতে পারেন! ৩. ভার্জিন গ্যালাকটিক- এই সংস্থার ওয়েবসাইটে কোনও প্রাক-নির্ধারিত শর্তাদি নেই। দরকার মতো তারা ট্রেনিং দিয়ে মহাকাশচারীকে গড়ে-পিটে নেবে, শুধুমাত্র সেটুকুই উল্লেখ করা হয়েছে।

মহাকাশে ঘুরতে গেলে কত খরচ পড়বে?

১. ব্লু অরিজিন- এই সংস্থার নিউ শেফার্ড (New Shepard) নামের মহাকাশযানে কক্ষপথ ছুঁয়ে ফিরে আসতে আদতে কত টাকা লাগতে পারে, তা এখনও পর্যন্ত ঘোষণা করা হয়নি। তবে দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন বলছে যে নিলামে একটি আসন বা মাথাপিছু প্যাকেজের খরচ ৩ মিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে। ২. স্পেসএক্স- এলন মাস্কের সংস্থাও স্পষ্ট করে কিছু জানায়নি, তবে খরচ ব্লু অরিজিনের তুলনায় বাড়বে বই কমবে না। ৩. ভার্জিন গ্যালাকটিক- কক্ষপথ ছুঁয়ে ফিরে আসা, কয়েক মিনিট মাধ্যাকর্ষণহীন অবস্থা উপভোগ, এই সবের জন্য প্রথমে মাথা পিছু ২৫০,০০০ ডলার খরচ পড়তে পারে বলে জানা গিয়েছিল। তবে এখন জানা গিয়েছে যে খরচ বাড়বে, প্রায় ৫০০,০০০ ডলারে তা পৌঁছনোর সম্ভাবনা রয়েছে। ৪. অ্যাকজিওম স্পেস (Axiom Space)- NASA-র সঙ্গে সম্পর্কিত এই প্যাকেজে প্রাথমিক ভাবে খরচ পড়ে ৫৫ মিলিয়ন ডলার। তবে এছাড়াও অতিরিক্ত কিছু খরচের ব্যাপার আছে। যেমন, ক্রু টাইম, মিশন প্ল্যানিং অ্যান্ড কমিউনিকেশনের জন্য সপ্তাহ পিছু ধার্য করা হয় ১০ মিলিয়ন ডলার, খাওয়ার জন্য দিন পিছু খরচ পড়ে ২০০০ ডলার।

মহাকাশে ঘুরতে যাওয়ার ট্রেনিং কেমন হয়?

১. ব্লু অরিজিন- এই সংস্থার ট্রেনিং মাত্র ১ দিনের! মহাকাশে যাত্রার আগের দিন কেবিনের মধ্যে ঘোরাফেরা, মাধ্যাকর্ষণের টান কাটানো, সুরক্ষাবিধি এই সব সম্পর্কে মহাকাশচারীকে ট্রেনিং দিয়ে থাকে সংস্থা, তাদের মতে এই ১ দিনের ট্রেনিংই পর্যাপ্ত! ২. ভার্জিন গ্যালাকটিক- এই সংস্থার ট্রেনিং তিন দিন ধরে নিউ মেক্সিকোর স্পেসপোর্ট আমেরিকাতে (Spaceport America) চলে। যাওয়া এবং আসার সময়ে কী ভাবে মাধ্যাকর্ষণের চাপের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হবে, কী ভাবে মহাকাশযানের ভিতরে মাধ্যাকর্ষণহীন দশায় ঘোরাফেরা করতে হবে, কী ভাবে জানলার পাশে নিজের স্থান করে নিতে এই সব সম্পর্কে বিশদে শিখিয়ে-পড়িয়ে নেওয়া হয় যাত্রার আগে। ৩. অ্যাকজিওম স্পেস- এই সংস্থা ৭ দিনের জন্য মহাশূন্যে ঘুরতে নিয়ে যায়, তাই ট্রেনিংয়ের মেয়াদও বেশি, সব মিলিয়ে ১৭ দিন! এই কয়েক দিনে NASA, জাপানি এবং ইয়োরোপিয়ান মহাকাশচারীরা পর্যটকদের সব কিছু শিখিয়ে দেন।

Published by:Raima Chakraborty
First published: