Home /News /explained /
Apple iPod: নতুন করে আর iPod তৈরি করবে না Apple, ঘোষণা সংস্থার! নতুন কোন পণ্য বদলে আসবে কি?

Apple iPod: নতুন করে আর iPod তৈরি করবে না Apple, ঘোষণা সংস্থার! নতুন কোন পণ্য বদলে আসবে কি?

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

Apple iPod: আইফোনের জন্ম আইপডের পরে হয়েছিল, কিন্তু এই পোর্টেবল মিউজিক প্লেয়ারগুলি বন্ধ হয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে একটি বড় ভূমিকা রয়েছে আইফোনের।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কোনও সংস্থাই তাদের কোনও পণ্য বাজার থেকে তুলে নিতে চায় না। অ্যাপলের (Apple) আইপডের (iPod) ক্ষেত্রে কি সমস্যা তৈরি করল প্রযুক্তি? না কি অন্য কোনও কারণ নিহিত রয়েছে সংস্থার এই সিদ্ধান্তের নেপথ্যে?

২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চলার পর, অ্যাপলের পোর্টেবল মিউজিক প্লেয়ার আইপড আর তৈরি করবে না দুনিয়ার পয়লা নম্বরের এই টেক সংস্থা। এটি এমন একটি ডিভাইস যা ২০০১-এর অক্টোবরে লঞ্চ হওয়ার পর মিউজিক সেক্টরে বিপ্লব ঘটিয়েছিল। দুই দশকের যাত্রায়, iPod বিভিন্ন রূপে ও আকারে এসেছে, পকেট সাইজের আইপড ক্লাসিক (iPod classic) থেকে যাত্রা শুরু করে আইপড টাচ (iPod touch), বৈচিত্য ও বিস্তৃতি কম নয়। যদিও সংস্থা বলেছে যে তৈরি করা বন্ধ হলেও যতদিন স্টক থাকবে ততদিন বিক্রি করা বন্ধ হবে না।

অ্যাপল কেন আইপড চালু করেছিল?

আইপডের সাহায্যে অ্যাপলের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল যে এমন একটি ডিভাইস তৈরি করা যা মানুষকে আরও ম্যাকিনটোশ কম্পিউটার কেনার দিকে পরিচালিত করবে। এটি ছিল ম্যাকিনটোশ ইকোসিস্টেমের বাইরে অ্যাপল দ্বারা চালু করা প্রথম ব্যক্তিগত ডিভাইস। দ্য ওয়াল স্ট্রিট (The Wall Street) জার্নালের প্রতিবেদন অনুযায়ী, আইপড আবিষ্কারক এবং অ্যাপলের প্রাক্তন সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট টনি ফ্যাডেল (Tony Fadell) বলেছেন, “আমরা যদি আইপড না তৈরি করতাম তাহলে আইফোন তৈরি হত না। আইপড আমাদের আত্মবিশ্বাস জাগিয়েছে। এটি স্টিভ জোবসেরও (Steve Jobs) আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে ছিল। আমরা বিশ্বাস করতে শুরু করে ছিলাম যে আমরা ভবিষ্যতে অনেক কিছু করতে পারব এবং নতুন নতুন জিনিস তৈরি করা চালিয়ে যেতে পারি।“

আরও পড়ুন- Explained: গরমে পেটের গণ্ডগোল, কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন নিজেকে?

আইপডের যাত্রা কেমন ছিল?

একটি সাশ্রয়ী মূল্যের হ্যান্ডহেল্ড এই ডিভাইস উপলব্ধ ছিল বিভিন্ন রঙ এবং মডেলে। আইপড এমন একটি ডিভাইসে পরিণত হয়েছিল যা অনেক মানুষকে অ্যাপল ইকোসিস্টেমের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। আইপড ক্লাসিকের পরে এটির পালিশ করা স্টিল ফ্রেম এবং আইকনিক ক্লিক হুইলের সঙ্গে অ্যাপল ছোট আকারের আইপড মিনি (iPod Mini) চালু করা হয়েছিল, যার পর আরও ছোট আকারের আইপড ন্যানো (iPod Nano) চালু করা হয়। ২০০৫ সালে, অ্যাপল আইপড শাফল (iPod Shuffle) নিয়ে এসেছিল সংস্থা। এটি একটি এন্ট্রি-লেভেল ডিভাইস যা ফ্ল্যাশ মেমোরি ব্যবহার করে এবং এটি স্ক্রিন ছাড়াই প্রথম আইপড মডেল ছিল।

২০০৭ সালের সেপ্টেম্বরে, অ্যাপল প্রথম আইফোনের ঘোষণা করার কয়েক মাস পর আইপড টাচ চালু করে। এটি একটি মাল্টি-টাচ ডিভাইস, এই ডিভাইসের মধ্যে ওয়াইফাই, সাফারি ব্রাউজার, ইউটিউব রয়েছে। বর্তমানে iPod Touch মডেলটির সপ্তম এবং শেষ প্রজন্মের বিক্রি চলছে। যদিও এটি হার্ডওয়্যারের দিকে iPod-এর যাত্রা ছিল। অন্য দিকে অর্থাৎ সঙ্গীতের দিক থেকে, ডিভাইসটি সেই যুগের পোর্টেবল ক্যাসেট প্লেয়ারগুলির থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে আলাদা ছিল। ৯৯ সেন্ট দিয়ে গান কেনা, ডাউনলোড করা এবং একটি পকেট-আকারের ডিভাইসে সংরক্ষণ করার ক্ষমতাকে সেই সময়ে অত্যাধুনিক হিসাবে বিবেচিত করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন - Explained: কোভিড নিয়ে নয়া কার্যকলাপ চিনের, কী কারণ?

আইপড বন্ধ করে দেওয়ার কারণ কী?

আইফোনের জন্ম আইপডের পরে হয়েছিল, কিন্তু এই পোর্টেবল মিউজিক প্লেয়ারগুলি বন্ধ হয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে একটি বড় ভূমিকা রয়েছে আইফোনের। স্মার্টফোনে বিভিন্ন সুবিধার পাশাপাশি মিউজিকের সুবিধাও পাওয়া যায়, যার ফলে আইপডের গুরুত্ব কমতে শুরু করে। এছাড়াও, স্পটিফাই, আইটিউনস, প্রাইম মিউজিকের মতো মিউজিক স্ট্রিমিং পরিষেবাগুলির পাশাপাশি দ্রুত, সস্তা ইন্টারনেটের আবির্ভাবের কারণেও আইপডের গুরুত্ব কমে যায়। এটি চালু হওয়ার পর থেকে, অ্যাপলের সব মডেলের আইপড ডিভাইস বিক্রি হয়েছিল আনুমানিক ৪৫০ মিলিয়ন, কিন্তু ইদানীং বিক্রয় অনেক কমে গিয়েছে। WSJ-র রিপোর্ট অনুযায়ী, অ্যাপল বছরের পর বছর ধরে আইপড বিক্রয় আলাদা করেনি, তবে আগের অর্থবছরের তুলনায় ২০১৪ অর্থবছরে ইউনিট বিক্রি প্রায় ২৪ শতাংশ কমেছে। কোম্পানি ২০১৫ সালে আইপড বিক্রির রিপোর্ট করা বন্ধ করে দেয়। অ্যাপল গত বছর আনুমানিক ৩ মিলিয়ন আইপড বিক্রি করেছে, যেখানে আইফোন বিক্রি করেছে ২৫০ মিলিয়ন।

অ্যাপল মিউজিকের মাধ্যমে কোম্পানি তার মিউজিক স্ট্রিমিং পরিষেবা চালিয়ে যাবে, যা অন্যান্য বিভিন্ন ডিভাইসে পাওয়া যাবে। অ্যাপলের ওয়ার্ল্ডওয়াইড মার্কেটিং-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট গ্রেগ জোসওয়াক (Greg Joswiak) বলেছেন, "আজও আইপডের ভাবনা জীবিত রয়েছে। আইফোন থেকে শুরু করে অ্যাপল ওয়াচ, হোমপড মিনি এবং ম্যাক, আইপ্যাড এবং অ্যাপল টিভি সব ডিভাইসে আমরা একটি অবিশ্বাস্য সঙ্গীত অভিজ্ঞতা একত্রিত করেছি।"

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Apple

পরবর্তী খবর