Home /News /entertainment /
Tanushree Chakraborty Exclusive: 'কই, ছেলেদের তো এত কথা বলাই হয় না', বিয়ে নিয়ে বিস্ফোরক তনুশ্রী!

Tanushree Chakraborty Exclusive: 'কই, ছেলেদের তো এত কথা বলাই হয় না', বিয়ে নিয়ে বিস্ফোরক তনুশ্রী!

সদ্যই 'আবার বছর কুড়ি পরে'-র জন্য আমি সংবর্ধনা পেলাম বিদেশে গিয়ে৷ খুব ভাল লাগল দূর দেশে সম্মানিত হয়ে। ছবিটা লাস ভেগাসে নর্থ আমেরিকান বেঙ্গলি কনফারেন্সে দেখানো হয়েছে।

  • Share this:

প্রশ্ন: আপনার প্রেম জীবন নিয়ে তো চর্চা চলছে...

তনুশ্রী: নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিজের মধ্যেই রাখতে পছন্দ করি আমি। তাই এই নিয়ে কখনওই মন্তব্য করতে চাই না।

প্রশ্ন: সুযোগ পেলে নিজের কোনও সিদ্ধান্তকে বদলাতে চান?

তনুশ্রী: (খানিক ভেবে) এ রকম কিছু মাথায় আসছে না। তবে আমি খুব ভেবে সিদ্ধান্ত নিই। পরে আফশোস করার কোনও জায়গা থাকে না।

প্রশ্ন: বিয়েতে বিশ্বাস করেন তনুশ্রী চক্রবর্তী?

তনুশ্রী: করি তো।

প্রশ্ন: বিয়ে করবেন তা হলে?

তনুশ্রী: বিশ্বাস করি মানেই এই নয় যে আমি বিয়ে করব, আবার করতেও পারি। সময় এলে আপনারা সবাই জানতে পারবেন। বিয়েটা তো আমার হাতে নেই। হলে হবে, না হলে না। এই প্রশ্নটা খুবই শুনতে হয়। সমাজ তো বদলাবে না, এই দুঃখ। ছেলেদের এই প্রশ্ন খুব বেশি শুনতে হয় না, মেয়ে হয়ে কেন শুনতে হবে বারবার?

প্রশ্ন: তা হলে পরিবারের তরফে বিয়ে না করা নিয়ে কথা শুনতে হয় নিশ্চয়ই...

তনুশ্রী: সবাইকেই শুনতে হয়। খুবই দুঃখজনক এটা। মা তো বলে বলে মুখ ব্যথা করে ফেলল। মাকেও সেই উত্তর দিই, সময় এলে বিয়ে করব। আসলে বিয়ে নিয়ে খুব বেশি ভাবি না আমি।

প্রশ্ন: তার মানে আপাতত কাজ নিয়েই থাকতে চান, সানি দেওলের সঙ্গে ছবির কাজ কত দূর এগোল?

আরও পড়ুন: 'আমার পরিবারের একজন চলে গেলেন', আপনজনকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

তনুশ্রী: এইটা নিয়ে আমি কিচ্ছু বলতে পারব না। সময় এলে সবাইকে জানিয়ে দেব। অনুমতি নেই একদম।

প্রশ্ন: টলিউডের অন্যান্য নায়িকার তুলনায় আপনার ছবির সংখ্যা কম কেন?

তনুশ্রী: তা হয়তো একটু কম। কারণ আমি পরিমাণের তুলনায় মানের প্রতি বেশি যত্নবান। চিত্রনাট্য নিয়ে একটু খুঁতখুঁতে। একসঙ্গে একাধিক ছবি করি না, যাতে নিজের পারফর্ম্যান্সের দিকে নজর দিতে পারি। তবে গত দু'বছরে অনেক ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছি। আর সদ্যই 'আবার বছর কুড়ি পরে'-র জন্য আমি সংবর্ধনা পেলাম বিদেশে গিয়ে৷ খুব ভাল লাগল দূর দেশে সম্মানিত হয়ে। ছবিটা লাস ভেগাসে নর্থ আমেরিকান বেঙ্গলি কনফারেন্সে দেখানো হয়েছে। মোট তিনটি ছবি। সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পাই। তার পরে ঘটনাচক্রে আমি নিউইয়র্কে বেড়াতে গিয়েছিলাম। ওখানকার সেনেটর, কয়েক জন কংগ্রেসমেন আমাকে পুরস্কৃত করেছেন, সংবর্ধনা দিয়েছেন। আবার নিউইয়র্কে যেতেও বলেছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: দু’জনের দেখা তরুণ মজুমদারের স্মরণসভায়, ‘শ্রীমান পৃথ্বীরাজ’-এর সঙ্গে নিজস্বী পোস্ট ভাস্বরের

প্রশ্ন: এই ইন্ডাস্ট্রির থেকে যা প্রাপ্য ছিল তা পেয়েছেন?

তনুশ্রী: হ্যাঁ বোধহয়। তবে আমার এখনও অনেকটা পথ যাওয়া বাকি। আমি খুব সহজে সন্তুষ্ট হই না। আরও অনেক কিছু করার আছে। তবে মানুষ আমাকে ভালবাসা দিয়েছেন।

প্রশ্ন: বাণিজ্যিক ছবি থেকে খুব তাড়াতাড়ি অন্য ধারার ছবিতে কেন?

তনুশ্রী: আমি দু'ধরনের ছবিই করেছি। করতেও চাই৷ যদিও মশলাদার ছবিতে খুব বেশি ডাক আমি পাইনি। পরিচালকেরা একটু অন্য ধারার ছবিতেই বেশি ডেকেছেন।

প্রশ্ন: পাঁচ বছর পর নিজেকে কোন জায়গায় দেখতে চান?

তনুশ্রী: যে রকম ভাবে হোক, ছবির সঙ্গে জড়িয়ে। কেবলমাত্র অভিনয় না হলেও। ওখানেই আমার জায়গা। তবে আপাতত অভিনয়তেই কেবল মন দিতে চাই। এ রকম অনেক ছবি করেছি, যেখানে আমার খুব বেশি গুরুত্ব ছিল না। কিন্তু ছবিটা এত ভাল যে আমি রাজি হয়েছি। যেমন 'টনিক'। অতিথি হিসেবে ছবিতে ছিলাম। এমনও অনেক কাজ করতে পারি।

প্রশ্ন: টলিউডের কোন নায়িকাকে দেখে হিংসা হয়?

তনুশ্রী: আমি একদম হিংসুটে নই। কাউকে দেখে ও রকম ভাবনা জাগে না মনে। কারও অভিনয় বা চরিত্র দেখে ভাল লাগে, তখন মনে হয়, হ্যাঁ আমি এ রকম করলে হয়তো ভাল হত। ওইটুকুই। যেমন, সুচিত্রা সেনের 'দেবী চৌধুরানী' দেখে ইচ্ছে হয়েছিল সেই চরিত্রে অভিনয় করার। 'সাত খুন মাফ'-এ প্রিয়ঙ্কা চোপড়ার চরিত্রটিও বেশ লোভনীয় লেগেছিল। 'মকবুল'-এ টাব্বুর চরিত্র, যদিও আমি 'মায়া'তে লেডি ম্যাকবেথের চরিত্রে অভিনয় করেছি।

প্রশ্ন: এমন কোনও পরিচালক রয়েছেন, যাঁর সঙ্গে কাজ করা হয়নি কিন্তু ইচ্ছে আছে?

তনুশ্রী: রীণাদি (অপর্ণা সেন)

প্রশ্ন: কিছু দিন আগে যে আমেরিকা থেকে ঘুরে এলেন, একাই গিয়েছিলেন?

তনুশ্রী: হ্যাঁ একদম। কাজে গিয়েছিলাম আমেরিকায়। সেখান থেকে নিউইয়র্কে বেড়াতে যাই।

প্রশ্ন: সোলো ট্রিপ করেন?

তনুশ্রী: খুব একটা বেড়াতে যাওয়াই হয় না। শ্যুটিংয়ে বাইরে কোথাও গেলে সেখান থেকে ছোট্ট করে কাছাকাছি কোথাও একটা ঘুরতে চলে যাই। মিরিকে শ্যুট ছিল। দার্জিলিং ঘুরে এলাম একা।

প্রশ্ন: বন্ধুদের সঙ্গে, একা নাকি পরিবার, কার সঙ্গ বেশি প্রিয়?

তনুশ্রী: পরিবার। বেশি সময় কাটানো হয় না বলেই যেই সুযোগ পাই, ঝট করে রেস্তরাঁয় খেতে যাওয়া, সিনেমা দেখতে যাওয়া, এগুলো করে ফেলি।

প্রশ্ন: মধ্য রাত পর্যন্ত পার্টি করেন?

তনুশ্রী: করি, ভালবাসি। কিন্তু খুব রাত হয়ে গেলে আর থাকি না বাইরে। বাড়িতে চলে আসি। শৃঙ্খলাবদ্ধ জীবন কাটাতে চেষ্টা করি।

প্রশ্ন: তা হলে নিয়ম মেনেই চলতে ভালবাসেন, এই রূপের রহস্য কি এটাই?

তনুশ্রী: হতে পারে। খুব বেশি কিছু যত্ন করি না আমি। তবে খাওয়া-দাওয়া ঠিকঠাক করা, ঠিকঠার ঘুমনো (রাতে সাড়ে ১১টা থেকে ১২টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়ি, সকাল ৭টায় উঠি), ধ্যান করা, শরীরচর্চা। আরও একটা জিনিস প্রয়োজন। ইতিবাচক ভাবনা চিন্তা করার চেষ্টা করি আর মানুষের ক্ষতি করি না। নিজের কাজে মন দিই। সাধারণ মানুষ আমি। সেগুলিই হয়তো আমাকে বাহ্যিক ভাবেও সুন্দর রাখে। ভিতর থেকে তো বটেই।

Published by:Teesta Barman
First published:

Tags: Tanushree chakraborty, Tollywood

পরবর্তী খবর