অপমানিত হয়ে আমেরিকা থেকে দেশে ফিরতে বাধ্য হয়েছিলেন! ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা প্রিয়ঙ্কার

অপমানিত হয়ে আমেরিকা থেকে দেশে ফিরতে বাধ্য হয়েছিলেন! ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা প্রিয়ঙ্কার
এখন তিনি হলিউড অভিনেত্রী। কিন্তু অপমানিত হয়ে এক সময়ে আমেরিকা থেকে দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা।

এখন তিনি হলিউড অভিনেত্রী। কিন্তু অপমানিত হয়ে এক সময়ে আমেরিকা থেকে দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা।

  • Share this:

    #নিউইয়র্ক: বলিউড ছেড়ে হলিউডে পাড়ি দিয়েছেন বহুদিন। এখন অভিনেত্রী প্রিয়ঙ্কা চোপড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেরই বাসিন্দা। কিন্তু জানেন কি, এক সময়ে বাধ্য হয়ে মার্কিন মুলুক ছেড়েছিলেন? বাধ্য হয়ে ফিরে এসেছিলেন ভারতে। তখন তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেরই এক স্কুলে দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়তেন।

    এক সাক্ষাৎকারে প্রিয়ঙ্কা বলেছিলেন, সেই সময়ে তিনি মজা, মশকরা, ব্যঙ্গ বিদ্রুপের শিকার হয়েছিলেন। ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। অভিনেত্রী বলেছেন, "আমি ভিতর থেকে ভেঙে পড়েছিলাম। আঘাত করত। আমি একটা খোলসের ভিতরে ঢুকে পড়েছিলাম। মনে হতো আমার দিকে কেউ যেন না তাকায়। আমি অদৃশ্য হয়ে থাকতে চাইতাম। আমার আত্মবিশ্বাস তলানিতে এসে পৌঁছেছিল। আমি সব সময়েই নিজেকে আত্মবিশ্বাসী মনে করতাম। কিন্তু সেই সময়ে আমি জানতাম না আমি কোথায় দাঁড়িয়ে আছি, আমি কে।"

    গায়ের রঙের জন্য তাঁকে নিয়ে তখন অন্য মেয়েরা হাসাহাসি করত। প্রিয়ঙ্কা এই বিষয়ে বলেছেন, "ওরা বলত, ব্রাউনি তোমার নিজের দেশে ফিরে যাও। যে হাতিতে চেপে এসেছে, সেটায়ে চেপেই ফিরে যাও।" এর জন্য স্কুলের মনোবিদের কাছেও গিয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা। কিন্তু তাতে কিছু লাভ হয়নি বলে জানান তিনি।


    এসবের জেরেই আমেরিকা থেকে দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি। অভিনেত্রীর কথায়, "আমেরিকার সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছিল আমার। দেশে ফিরে খুব ভালো লেগেছিল। অনেক মানুষের ভালোবাসা পেয়েছিলাম। দেশে ফিরে আমি হাইস্কুলের সেই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা ভুলতে পেরেছিলাম।"

    কিন্তু এখন অন্যভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে দেখেন তিনি। এখন সেই দেশের অন্যতম একজন ব্যক্তিত্ব তিনি। প্রসঙ্গত প্রিয়ঙ্কার আগামী হলিউড ছবির নাম টেক্সট ফর ইউ। এটি একটি রোম্যান্টিক ড্রামা। এছাড়াও কেনু রিভস এর সঙ্গে ম্যাট্রিক্স ৪ এবং রাজকুমার রাও এর সঙ্গে দ্য হোয়াইট টাইগার ছবিতে অভিনয় করবেন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    লেটেস্ট খবর