Kareena Kapoor Khan : তৈমুরের পছন্দ সবুজ খাবার, নৈশভোজে শেষ পর্যন্ত কী রান্না হল করিনার হেঁশেলে?

তৈমুরের সঙ্গে সইফিনা, ফাইল ছবি

যে ছবি করিনা প্রকাশ করেছিলেন তাতে দেখা যাচ্ছিল তিনি ওই দিন ইটালিয়ান খাবার খাচ্ছিলেন। সেই তালিকায় ছিল পাস্তা, বিনস এবং ক্যাপসিকাম।

  • Share this:

#মুম্বই: সম্প্রতি নিজের ডিনারের বিশেষ ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন বলিউড অভিনেত্রী করিনা কাপুর খান (Kareena Kapoor Khan)। ওই ডিনারের তালিকায় ছিল পাস্তা (pasta) এবং প্রচুর সবুজ শাকসবজি। নিজের Instagram Story-তে ওই ছবি শেয়ার করেছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন তাঁর পুত্র তৈমুর আলি খান (Taimur Ali Khan)। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, তৈমুর তাঁর ওই ডিনার পছন্দ করেছে।

কী কী রয়েছে খাবারের তালিকায়?

যে ছবি করিনা প্রকাশ করেছিলেন তাতে দেখা যাচ্ছিল তিনি ওই দিন ইটালিয়ান খাবার খাচ্ছিলেন। সেই তালিকায় ছিল পাস্তা, বিনস এবং ক্যাপসিকাম। ওই ছবি পোস্ট করে করিনা যে ক্যাপশন দিয়েছেন তা হল- “টিম (তৈমুর) সবুজ পছন্দ করে।” সঙ্গে একটি লাল হার্টের ইমোজি পোস্ট করেন।

এই বছরের শুরুতেই একটি পারিবারিক তথ্য জানিয়েছিলেন করিনা। সেখানে তিনি বলেছিলেন, তাঁর স্বামী সইফ আলি খান (Saif Ali Khan) এবং তাঁদের বড় ছেলে তৈমুর রান্নাঘরে থাকতে পছন্দ করে। একটি রান্নার অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছিলেন করিনা। ওই শো-টির নাম ছিল স্টার Vs ফুড (Star Vs Foor)। সেখানে তিনি ওই তথ্য জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, “তৈমুর এবং সইফ রান্নাঘরে থাকতে ভালোবাসে। আমি একপ্রকার গান নিয়েই থাকতাম। ওরা খুব সুন্দর জ্যাজ সঙ্গীতও পছন্দ করে।”

এই প্রসঙ্গে করিনা জানিয়েছিলেন, লকডাউনের সময় সবাই যখন ব্যানানা ব্রেড তৈরি করতে ব্যস্ত ছিলেন, সে সময় সইফ নিজেই রান্নাঘরে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট চালাতেন। তিনি বলেছিলেন, “আমার মনে হয় লকডাউনের সময় সবাই ব্যানানা ব্রেড রেসিপি তৈরি করতে ব্যস্ত ছিলেন। কিন্তু আমি বানানা ব্রেড বানাইনি। কিন্তু সইফ বিভিন্ন নতুন খাবার বানাতেন।”

পাশাপাশি পরিবারের খাওয়াদাওয়া নিয়েও নিজের মনোভাব শেয়ার করেছেন বলিউড অভিনেত্রী। তিনি এই প্রসঙ্গে বলেছেন, “যখনই আমরা টেবিলে বসি তখনই আমরা ভাবি আমরা কোনও পুরোনো ইটালিয়ান পরিবারের সদস্য। আমরা একসঙ্গে খাওয়াদাওয়া করি, হাসি মজা করি। কারণ খাবার হচ্ছে এমন একটা জিনিস যা আপনার মধ্যে আনন্দ নিয়ে আসবে।”

এই বছরের শুরুতেই দ্বিতীয় সন্তানের মা হয়েছেন করিনা। যদিও তাকে এখনও ক্যামেরার সামনে আনেননি তাঁরা।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: