• Home
  • »
  • News
  • »
  • education-career
  • »
  • ASER Report| Private Tuition| কোভিড ১৯ বাড়িয়ে তুলেছে প্রাইভেট টিউশনের ঝোঁক, বলছে ASER রিপোর্ট

ASER Report| Private Tuition| কোভিড ১৯ বাড়িয়ে তুলেছে প্রাইভেট টিউশনের ঝোঁক, বলছে ASER রিপোর্ট

ক্লাসরুম নয়, বাড়ছে প্রাইভেট টিউশনের প্রবণতা।

ক্লাসরুম নয়, বাড়ছে প্রাইভেট টিউশনের প্রবণতা।

ASER Report| Private Tuition| করোনা মহামারীর ফলে বেড়ে গিয়েছে প্রাইভেট টিউশন এবং তার চাহিদা।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি:  দেড় বছর বন্ধ থাকার পর খুলেছে স্কুল। কিন্তু করোনা দৌরত্ম্য যে কমেনি। ফলে স্কুলে সন্তানকে পাঠানো নিয়ে দ্বিধায় রয়েছেন অনেক বাবা-মা-ই। তবে দ্বিধা নেই প্রাইভেট টিউশনে, কারণ ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে তা চালানো যাচ্ছে বহাল তবিয়তেই। স্রেফ রাজধানী দিল্লিতেই নয়, বাংলাতেও দেখা যাচ্ছে টিউশনের রমরমা। প্রথম শ্রেণি থেকে স্নাতক, বহু ছাত্রছাত্রীই সিলেবাস শেষ করতে টিউশনমুখী। টিউশন  ২০২১ সালের অ্যানুয়াল স্টেটাস অফ এডুকেশন রিপোর্টে (Annual Status Of Education Report) উঠে আসছে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য।

করোনা মহামারীর ফলে বেড়ে গিয়েছে প্রাইভেট টিউশন এবং তার চাহিদা। যে সমস্ত শিশুর অভিভাবকরা কম শিক্ষিত তাদের ক্ষেত্রে প্রাইভেট টিউশন নেওয়ার প্রবণতা বেড়েছে প্রায় ১২.৬ শতাংশ। অন্য দিকে, যে সমস্ত শিশুর অভিভাবকরা উচ্চ শিক্ষিত তাদের ক্ষেত্রে প্রাইভেট টিউশন নেওয়ার প্রবণতা বেড়েছে প্রায় ৭.২ শতাংশ। অ্যানুয়াল স্টেটাস অফ এডুকেশন তাদের রিপোর্টে তুলে ধরেছে এই তথ্য। করোনা মহামারীর ফলে অনেক দিন ধরে বন্ধ হয়ে রয়েছে স্কুল। স্কুলের ক্লাস অনলাইনে হলেও পাল্লা দিয়ে বেড়েছে প্রাইভেট টিউশনের মাত্রা।

আরও পড়ুন-২৩ টাকাতেই রঙিন বোতল! ৪৯ টি ব্র্যান্ডের 'বাংলা মদ' রাজ্যে, মিলবে শুধুমাত্র এই দোকানগুলিতেই

২০১৮ সালে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রাইভেট টিউশন নেওয়ার প্রবণতা বেড়ে গিয়েছিলো প্রায় ২৮.৬ শতাংশ। ২০২০ সালে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রাইভেট টিউশন নেওয়ার প্রবণতা বেড়ে গিয়েছিলো প্রায় ৩২.৫ শতাংশ। ২০২১ সালে ছাত্র-ছাত্রীদের সেই প্রাইভেট টিউশন নেওয়ার প্রবণতা বেড়ে গিয়েছে প্রায় ৩৯.২ শতাংশ। করোনা মহামারীর ফলেই প্রাইভেট টিউশনের এই রমরমা। এছাড়াও অনেকেই মনে করেন প্রাইভেট টিউশনের সাহায্যেই শিশুদের উপযুক্ত শিক্ষা দান করা সম্ভব, স্কুলে তেমন পড়াশোনা হয় না। করোনার জন্য অনেক দিন ধরেই বন্ধ রয়েছে স্কুল। অনলাইনে স্কুলের ক্লাস হলেও বেশিরভাগ অভিভাবকই তাই ভরসা করেছে প্রাইভেট টিউশনের ওপর।

সরকারি স্কুলের শিশুরা বেশি মাত্রায় প্রাইভেট টিউশনের ওপর নির্ভর করে

প্রাইভেট স্কুলের তুলনায় সরকারি স্কুলের শিশুরা বেশি মাত্রায় প্রাইভেট টিউশনের ওপর নির্ভর করে। ২০২১ সালে সরকারি স্কুলের প্রায় ৩৯.৫ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রী প্রাইভেট টিউশন নেওয়া শুরু করেছে। অন্য দিকে, প্রাইভেট স্কুলের ক্ষেত্রে প্রায় ৩৮.২ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রী প্রাইভেট টিউশন নেওয়া শুরু করেছে।

মেয়েদের তুলনায় ছেলেরাই বেশি ভর্তি হয়েছে প্রাইভেট টিউশনের ক্লাসে

ছেলেরাই বেশি করে প্রাইভেট টিউশনের ক্লাসে ভর্তি হয়েছে মেয়েদের তুলনায়। এটা অনেক দিন আগে থেকেই লক্ষ্য করা গিয়েছে যে প্রাইভেট টিউশনে ভর্তি হওয়ার মাত্রা মেয়েদের তুলনায় ছেলেদের মধ্যে বেশি। ২০২১ সালে প্রায় ৪০.৩ শতাংশ ছেলে প্রাইভেট টিউশনের ক্লাসে ভর্তি হয়েছে। অন্য দিকে, ২০২১ সালে প্রায় ৩৭.৯ শতাংশ মেয়ে প্রাইভেট টিউশনের ক্লাসে ভর্তি হয়েছে।

আরও পড়ুন-বেসরকারি স্কুলের তুলনায় ভিড় বাড়ছে সরকারি স্কুলে, সংখ্যায় বেশি মেয়েরা, বলছে রিপোর্ট

অ্যানুয়াল স্টেটাস অফ এডুকেশন রিপোর্টের সমীক্ষা অনুযায়ী উঠে এসেছে এই সকল তথ্য। এই তথ্যের ভিত্তিতে দেখা যাচ্ছে যে বেশিরভাগ ছাত্র-ছাত্রী স্কুলের ক্লাসের থেকে প্রাইভেট টিউশনের ক্লাসকেই বেশি মাত্রায় গুরুত্ব দিচ্ছে। করোনা মহামারীর প্রকোপ যা আরও বেশি করে বাড়িয়ে তুলেছে।

First published: