• Home
  • »
  • News
  • »
  • education-career
  • »
  • Engineers’ Day 2021: এই গুণ থাকলেই ইঞ্জিনিয়ারিং হবে কেরিয়ার হিসাবে আদর্শ

Engineers’ Day 2021: এই গুণ থাকলেই ইঞ্জিনিয়ারিং হবে কেরিয়ার হিসাবে আদর্শ

Engineers’ Day 2021:  ইঞ্জিনিয়ার হতে গেলে ছোটবেলা থেকেই যে বিষয়টির ওপর সব থেকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত তা হল গণিত, পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়ন বিদ্যা।

Engineers’ Day 2021: ইঞ্জিনিয়ার হতে গেলে ছোটবেলা থেকেই যে বিষয়টির ওপর সব থেকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত তা হল গণিত, পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়ন বিদ্যা।

Engineers’ Day 2021: ইঞ্জিনিয়ার হতে গেলে ছোটবেলা থেকেই যে বিষয়টির ওপর সব থেকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত তা হল গণিত, পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়ন বিদ্যা।

  • Share this:

#কলকাতা: ইঞ্জিনিয়ারিং যদি হয় স্বপ্ন, ইঞ্জিনিয়ারিংকে যদি কেরিয়ার হিসাবে বেছে নিতে হয়, তাহলে জেনে নিতে হবে ইঞ্জিনিয়ার (Engineers’ Day 2021) হতে গেলে কোন কোন প্রধান গুণের দরকার হয়!

ইঞ্জিনিয়ার হতে গেলে সবার আগে নিজের ভাবনা-চিন্তার ওপর সব থেকে বেশি জোর দিতে হবে। নিজেদের ভাবনাচিন্তাগুলোকে সমাজের মঙ্গলসাধনের জন্য বাস্তব রূপে আকার দিতে হবে। বাড়ি, বড় বড় বিল্ডিং, এরোপ্লেন, কম্পিউটার প্রায় সব কিছু তৈরির চিন্তা ভাবনাই একজন ইঞ্জিনিয়ারের মস্তিস্ক প্রসূত। কী ভাবে নিজের উদ্ভাবনী শক্তি কাজে লাগিয়ে নতুন নতুন জিনিসের সৃষ্টি করা যায়, তাই হল একজন ইঞ্জিনিয়ারের প্রধান লক্ষ্য। ছোটবেলা থেকেই অনেকের মধ্যে এই প্রতিভা লক্ষ্য করা যায়।

কেউ উৎসাহী হয় বিভিন্ন ধরনের গাড়ির ওপর, কেউ উৎসাহী হয় ফোনের ওপর আবার কারও আগ্রহ থাকে অন্য নানা জিনিসের ওপর। এই আগ্রহ ও উৎসাহকে কাজে লাগিয়েই একজন ইঞ্জিনিয়ার বিভিন্ন ক্ষেত্রে পারদর্শী হয়ে ওঠে বিভিন্ন নামে- কেউ ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ার, কেউ সিভিল ইঞ্জিনিয়ার, কেউ অটো মোবাইল ইঞ্জিনিয়ার, আবার কেউ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার।

ইঞ্জিনিয়ার (Engineers’ Day 2021)  হতে গেলে ছোটবেলা থেকেই যে বিষয়টির ওপর সব থেকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত তা হল গণিত, পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়ন বিদ্যা। পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়ন বিদ্যার বিভিন্ন ধরনের ফর্মুলা এবং গণিতের সমীকরণ প্রতি পদে একজন ইঞ্জিনিয়ারকে সাহায্য করবে। সেগুলোর সঠিক প্রয়োগই একজন ইঞ্জিনিয়ারকে করে তুলবে সুদক্ষ।

আরও পড়ুন- দ্বাদশ শ্রেণি পাশ হলেই মিলছে চাকরি ভাবা অ্যাটোমিক গবেষণা কেন্দ্রে, বিস্তারিত জানুন!

ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার একটু গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল লজিক্যাল মাইন্ড। প্রত্যেকটি বিষয়কে সঠিক লজিক দিয়ে চিন্তা-ভাবনা করে এগিয়ে যেতে হবে। এর সঙ্গে সমস্যা সমাধানের জন্য কী কী করণীয় তাও গুরুত্ব সহকারে ভেবে সেই সমস্যার সমাধান করতে হবে। একজন ইঞ্জিনিয়ারকে নিজের চিন্তা-ভাবনার সঠিক প্রয়োগ ও উন্নত প্রযুক্তির ব্যাবহার, এই দু'টি প্রক্রিয়ার মিশ্রণ খুব ভালোভাবে করতে হবে।

আরও পড়ুন- অসম রাইফেলসে নিয়োগ ব়্যালি ডিসেম্বরে, শুরু হয়ে গিয়েছে আবেদন গ্রহণ প্রক্রিয়া...

নতুন নতুন টেকনোলজি সম্পর্কে বিশদে জানতে হবে। সেই সব টেকনোলজিকে কী ভাবে কাজে লাগানো যায়, কী ভাবে উন্নতমানের নতুন কিছু সৃষ্টি করা যায় সেই সমস্ত কিছুর ধারণা একজন ইঞ্জিনিয়ারের (Engineers’ Day 2021)  থাকতে হবে। বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার সম্পর্কে ওয়াকিবহল থাকতে হবে। নতুন নতুন প্রযুক্তি এবং তার আপডেটেড ভার্সন সম্পর্কেও সঠিক ধারণা থাকা দরকার। এই সকল বিষয়ে স্বচ্ছ ও সঠিক ধারণা থাকলে তবেই একজন ইঞ্জিনিয়ার তার কাজে সেগুলোর সঠিক প্রয়োগ করতে পারবে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: