Home /News /business /

NAV: নেট অ্যাসেট ভ্যালু কি (NAV) কী? জানুন বিশদে

NAV: নেট অ্যাসেট ভ্যালু কি (NAV) কী? জানুন বিশদে

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

কোনও স্কিমের NAV-এর ক্ষেত্রেও দৈনিক পরিবর্তন দেখা যায়। কোনও নির্দিষ্ট তারিখে একটি স্কিমের সিকিওরিটিগুলির বাজারমূল্যকে সেই স্কিমের ইউনিটগুলির মোট সংখ্যা দিয়ে ভাগ করা হলে NAV-এর প্রতি ইউনিটের হিসেব পাওয়া যায় ()।

  • Share this:

    #কলকাতা: কোনও মিউচুয়াল ফান্ডের একটি নির্দিষ্ট স্কিমের পারফরম্যান্সকে নেট অ্যাসেট ভ্যালু বা NAV-এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়। আরও সহজ ভাবে বুঝিয়ে বলা যাক-- স্কিমের সিকিওরিটির বাজারমূল্যই হল NAV। মিউচুয়াল ফান্ড বিভিন্ন লগ্নিকারীর কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে এবং সেই অর্থ সিকিওরিটি মার্কেটে বিনিয়োগ করে। যে হেতু এই সব সিকিওরিটির বাজারমূল্য বিভিন্ন বিষয়ের ভিত্তি করে নিয়মিত ওঠা-নামা করতে থাকে, সে হেতু কোনও স্কিমের NAV-এর ক্ষেত্রেও দৈনিক পরিবর্তন দেখা যায়। কোনও নির্দিষ্ট তারিখে একটি স্কিমের সিকিওরিটিগুলির বাজারমূল্যকে সেই স্কিমের ইউনিটগুলির মোট সংখ্যা দিয়ে ভাগ করা হলে NAV-এর প্রতি ইউনিটের হিসেব পাওয়া যায়।

    NAV শব্দটি মিউচুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রে খুব ব্যবহার হয়ে থাকে। মিউচুয়াল ফান্ড হল, একটি সম্মিলিত তহবিল। যেখানে বিনিয়োগকারীরা তাদের অর্থ বিনিয়োগ করে। এই তহবিলের ফান্ড ম্যানেজার এই অর্থকে সিকিউরিটিজ, বন্ড এবং স্টক-সহ বিভিন্ন দিকে লগ্নি করে। বাজার মূল্যের ওপর ভিত্তি করে লাভ-লোকসান হয়। ফান্ডের যা রিটার্ন আসে, তা প্রত্যেক সদস্য আনুপাতিক হারে গ্রহণ বা বহন করে। প্রত্যেক বিনিয়োগকারী তাদের লগ্নি করা অর্থের উপর ভিত্তি করে ওই ফান্ডের কিছু সংখ্যক শেয়ার বা ভাগ পায়।

    আরও পড়ুন: সেভিংস অ্যাকাউন্ট অথবা এফডি-র মতো মিউচুয়াল ফান্ডে কেন নির্দিষ্ট হারে রিটার্ন মেলে না?

    নিজেদের শেয়ার বিক্রি করে লাভ অথবা লোকসান নিয়ে ফান্ড থেকে বেরিয়ে যাওয়ার স্বাধীনতা থাকে তহবিলের প্রত্যেক সদস্যেরই। একটি নির্দিষ্ট মিউচুয়াল ফান্ড শুরু হওয়ার পর নিয়মিত শেয়ারের কেনা-বেচা চলতে থাকে। আর ফান্ডের শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করার জন্য একটা পদ্ধতির প্রয়োজন হয়। মূল্য নির্ধারণের এই পদ্ধতি নির্ভর করে NAV-র উপর।

    স্টকের ক্ষেত্রে প্রতি মুহূর্তে শেয়ার মূল্যের পরিবর্তন হতে থাকে। আর মিউচুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রে দিনের শেষে সিকিউরিটিজ-এর মার্কেট মূল্য অনুযায়ী তহবিলের প্রতি ইউনিট শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়। সেবি মিউচুয়াল ফান্ড রেগুলেশন অনুযায়ী, ট্রেডিংয়ের দিনের শেষে বাজার বা মার্কেট বন্ধ হওয়ার পর সব মিউচুয়াল ফান্ড স্কিমের NAV ঘোষনা করা হয়। নেট অ্যাসেট ভ্যালু মিউচুয়াল ফান্ড, এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড (ETF) এবং ইনডেক্সে সম্ভাব্য বিনিয়োগের সুযোগ চিহ্নিত করতে ব্যবহার হয়ে থাকে। নিজের বিনিয়োগের অর্থনৈতিক পোর্টফোলিও বানাতেও NAV-এর প্রয়োজন হয়।

    NAV কী ভাবে নির্ধারণ করা হবে?

    উদাহরণ দিয়ে বলা যাক-- আমরা একটা ধোসা খাচ্ছি। সেই ধোসার উপকরণগুলির দামের যোগফলকেই খাবারটার মোট দাম হিসেবে ধরা হবে। ধরে নিচ্ছি, ধোসাটার দাম ১০০ টাকা। এ বার ধোসাটাকে আমরা চারটে ইউনিটে ভাগ করব। এর পর ধোসার দামকে ইউনিটের মোট সংখ্যা দিয়ে ভাগ করলেই প্রতিটা ইউনিটের দাম বেরিয়ে আসবে। মিউচুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রেও ঠিক এ ভাবেই NAV গণনা করা হবে। ধোসার উপকরণ হিসেবে থাকে চিজ আর আলু থাকে। আর মিউচুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রে সেটা হয়ে যায় স্টক আর বন্ড। যার একটা বাজারমূল্য রয়েছে।

    আরও পড়ুন: পোস্ট অফিসের রেকারিং ডিপোজিটে কত হারে সুদ পাওয়া যায়?

    মিউচুয়াল ফান্ডকে যখন ইউনিটে ভাগ করা হয়, তখন সেই প্রতিটা ইউনিটের মূল্যকে বলা হয় NAV। তা হলে কী দাঁড়াল? কোনও স্কিমে থাকা স্টক আর বন্ডের বাজারমূল্যকে ইউনিটের মোট সংখ্যা দিয়ে ভাগ করা হলে যেটা পাওয়া যায়, সেটাই হল NAV। আবার একটি মিউচুয়াল ফান্ডের সমস্ত সম্পদের মূল্য থেকে দায়বদ্ধতা (liabilities) বাদ দিলে ওই ফান্ডের NAV পাওয়া যাবে।

    NAV নির্ধারণ করার সূত্র:

    ফান্ডের নেট অ্যাসেট ভ্যালু (NAV) = (সম্পদের মূল্য - দায়বদ্ধতা)

    ফান্ডের প্রতি ইউনিটের নেট অ্যাসেট ভ্যালু (NAV) = (সম্পদের মূল্য - দায়বদ্ধতা)/মোট ইউনিটের সংখ্যা

    মিউচুয়াল ফান্ডের সম্পদ:

    মিউচুয়াল ফান্ডের মোট সম্পদ বা অ্যাসেট নির্ধারণ করতে তহবিলের বিনিয়োগের মোট বাজারমূল্য, নগদ এবং নগদ সমতুল্য অ্যাসেট, প্রাপ্য এবং অর্জিত আয়কে একসঙ্গে জড়ো করা হয়। ফান্ডের বিনিয়োগ করা সিকিউরিটিজ-এর দিন শেষে বাজারমূল্যের ভিত্তিতে দিনে এক বার একটি নির্দিষ্ট তহবিলের মার্কেট ভ্যালু গণনা করা হয়। কোনও ফান্ডের কাছে পুঁজি হিসেবে ক্যাশ টাকা এবং লিক্যুইড অ্যাসেট থাকতে পারে, তাই এই দুটিকে একসঙ্গে নগদ এবং নগদ সমতুল্য বলে ধরা হয়। প্রাপ্য আয়ের মধ্যে লভ্যাংশ বা একটি নির্দিষ্ট দিনে বিনিয়োগে পাওয়া সুদকে ধরা হয়। অর্জিত আয়ের মানে হল ফান্ড দ্বারা উপার্জন হয়েছে, কিন্তু এখনও পাওয়া যায়নি। উপরোক্ত সমস্তকে একসঙ্গে একটি ফান্ডের সম্পদ হিসেবে ধরা হয়।

    মিউচুয়াল ফান্ডের দায়বদ্ধতা:

    একটি ফান্ডের দায়বদ্ধতা বলতে বোঝায়-- ঋণদাতা ব্যাঙ্কে পাওনা, বকেয়া লেনদেন এবং পরিষেবা নেওয়া হয়েছে, এমন সংস্থার চার্জ ও ফি। অনেক ফান্ডের বিদেশি লগ্নিকারী থাকে, যারা ভারতীয় আবাসিক নন। তহবিলের রিটার্নের ভাগের লেনদেন অনেক ক্ষেত্রেই বকেয়া থেকে যায়। অনেক ক্ষেত্রে শেয়ারের বিক্রয় প্রক্রিয়া আটকে থাকে। লেনেদেনের অঙ্কের উপর ভিত্তি করে এদের স্বল্পমেয়াদী এবং দীর্ঘমেয়াদী দায়বদ্ধতা হিসেবে গণনা করা হয়। ফান্ডের সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের বেতন, পরিচালনা ব্যয়, ব্যবস্থাপনা ব্যয়, বিতরণ এবং বিপণন ব্যয়, ট্রান্সফার এজেন্ট ফি, কাস্টোডিয়ান এবং অডিট ফি এবং অন্যান্য খরচকে দায়বদ্ধতার খাতায় ধরা হয়। একটি ফান্ডের দায়বদ্ধতা নির্ধারণ করতে দিনের শেষে উপরোক্ত সম্পদ এবং দায়বদ্ধতার হিসেব করে NAV গণনা করা হয়।

     NAV-র বৈশিষ্ট্য:

    • একটি কোম্পানির মোট সম্পত্তির বাজারমূল্য থেকে দায়বদ্ধতা বিয়োগ করে নেট অ্যাসেট ভ্যালু (NAV) নির্ধারণ করা হয়
    • মিউচুয়াল ফান্ডের প্রতি ইউনিট শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করতে NAV ব্যবহার করা হয়
    • মিউচুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রে সারা দিনে মাত্র এক বার নেট অ্যাসেট ভ্যালু নির্ধারণ করা হয়
    • দিনের শেষে একটি ফান্ডের বিনিয়োগ করা সিকিউরিটিজের বাজারমূল্যের উপর ভিত্তি করে ওই তহবিলে NAV গণনা করা হয়

    NAV নির্ধারণের একটি উদাহরণ নীচে দেওয়া হল:

    ধরা যাক, দিনের শেষে একটি মিউচুয়াল ফান্ডের বিনিয়োগ করা সিকিউরিটিজের বাজার মূল্য হল ১০০ কোটি টাকা। তহবিলে হাতে রয়েছে ৫ কোটি নগদ এবং নগদ সমতুল্য, ৫ কোটি প্রাপ্য আয় এবং ১ কোটি অর্জিত আয় রয়েছে। আবার অন্য দিকে, সব মিলিয়ে দায় রয়েছে ১৫ কোটি। তা হলে ওই ফান্ডের মোট নেট অ্যাসেট ভ্যালু হবে = (১০০+৫+৫+১) কোটি - ১৫ কোটি = ৯৬ কোটি। অর্থাৎ ওই নির্দিষ্ট মিউচুয়াল ফান্ডের মোট NAV ৯৬ কোটি। এই অর্থকে শেয়ারের সংখ্যা দিয়ে ভাগ করলেই প্রতি ইউনিট শেয়ারের NAV নির্ধারণ করা যাবে।

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Mutual Fund

    পরবর্তী খবর