Home /News /business /
Investment: ভালো বিনিয়োগকারী? না ভুল থেকে যাচ্ছে সিদ্ধান্তে? যেভাবে পুরোটা বুঝে যাবেন...

Investment: ভালো বিনিয়োগকারী? না ভুল থেকে যাচ্ছে সিদ্ধান্তে? যেভাবে পুরোটা বুঝে যাবেন...

প্রতীকী চিত্র

প্রতীকী চিত্র

Investment: স্বচ্ছ ব্যক্তিত্ব বলতে বোঝানো হয়েছে বাস্তবিক পারদর্শিতা, যে বিষয়ে ভাবা হয়নি এবং যে বিষয়টি কাজ করছে না তা সুযোগ খুঁজে বের করা।

  • Share this:

ব্যবসায়িক উদ্যোক্তা হওয়া খুবই ঝুঁকিপূর্ণ কাজ। এর একটি বড় ঝুঁকি হল খারাপ বিনিয়োগকারী একটি ভালো সুযোগকে একটি ব্যর্থতার কারণে পরিণত করতে পারে। উদ্যোক্তাদের যে কোনও বিনিয়োগকারী খোঁজার পরিবর্তে ভালো বিনিয়োগকারীদের খুঁজে পাওয়ার জন্য সময় নেওয়া উচিত। ভালো বিনিয়োগকারী বলতে যারা সৎ এবং সহায়ক তাদের বোঝায়। খারাপ বিনিয়োগকারীরা বার বার হস্তক্ষেপ করবে, অবিরাম নানা তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করবে এবং কিছু তৈরি করার জন্য তাদের মধ্যে ধৈর্যের অভাব থাকবে। ভালো বিনিয়োগকারীরা দলকে ধরে রাখবে, নির্দেশনা প্রদানের পাশাপাশি বাধা সহ্য করে বিশ্বাস অর্জনের জন্য কাজ করবে। কয়েকটি উপায় রইল, যার মাধ্যমে জানা যাবে ভালো ও খারাপ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে পার্থক্য।

১। স্বচ্ছ ব্যক্তিত্ব

স্বচ্ছ ব্যক্তিত্ব বলতে বোঝানো হয়েছে বাস্তবিক পারদর্শিতা, যে বিষয়ে ভাবা হয়নি এবং যে বিষয়টি কাজ করছে না তা সুযোগ খুঁজে বের করা। এর ফলে বিশ্বাসযোগ্যতা বৃদ্ধি পায়, কারণ সবাই জানে স্টার্ট আপে অনেক বাঁধা আসে। এই বিশ্বাসযোগ্যতা খারাপ বিনিয়োগকারীদের থেকে এড়িয়ে চলতে সাহায্য করে এবং সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীরা সহ-মালিক হয়ে উঠলে এটিকে সহজেই এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব। যদি কেউ স্বচ্ছ ধারণাকে ভয় পায় তবে তারা অবশ্যই খারাপ বিনিয়োগকারী।

আরও পড়ুন: ব্যবহার করুন চাগা মাশরুম আর...বয়স যাই হোক, আপনার দিকে সকলে তাকিয়ে থাকবে

২। সময়ের অপেক্ষা

কোম্পানির জন্য বিনিয়োগ নেওয়ার সময় সবচেয়ে প্রথম যেটা লক্ষ্য থাকা উচিত তা হল যতটা কম সম্ভব কোম্পানির ভাগ দেওয়া যায়। যতটা সম্ভব কোম্পানির ব্র্যান্ড এবং নাম তৈরি করে ফান্ড খোঁজা শুরু করা উচিত। প্রাথমিকভাবে ফান্ড চাইলে বিনিয়োগকারীরা কোম্পানির বেশি পরিমাণে ইক্যুইটি চাইবে।

৩। প্রশ্নোত্তর

অনেক সময়ই দেখা যায় বিনিয়োগকারীরা উদ্যোক্তাদের প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে। তবে উদ্যোক্তাদেরও বিনিয়োগকারীদের প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা উচিত। তাদের জিজ্ঞাসা করা উচিত তারা কোন কোন ক্ষেত্রে বিনিয়োগে ভালো রিটার্ন পেয়েছে এবং কোন কোন ক্ষেত্রে তারা ভালো রিটার্ন পায়নি। জানার চেষ্টা করা উচিত যে বিনিয়োগকারী কি শুধুমাত্র অর্থের মুনাফার জন্য লগ্নি করতে চাইছে না তার অন্য কোনও লক্ষ্য রয়েছে।

আরও পড়ুন: করতেন রান্নার কাজ, হঠাৎ বড় সরকারি চাকরি! অর্পিতার ষষ্ঠ শ্রেণি পাশ বোনের কথা জানলে আকাশ থেকে পড়বেন

৪। রেফারেন্স যাচাই

বিনিয়োগকারীরা কেন বিনিয়োগ করতে চায়, সেই দৃষ্টিভঙ্গি জেনে নেওয়া প্রয়োজন। এমন উদ্যোক্তাদের সঙ্গেও যোগাযোগ করা উচিত যার সঙ্গে বিনিয়োগকারী আগে কাজ করেছে। তাদের থেকে লগ্নিকারির কাজের ধরন সম্বন্ধে ধারণা পাওয়া যাবে। বিনিয়োগকারীর সঙ্গে উদ্যোক্তাদের সম্পর্কের উপর ভিত্তি করে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত।

৫। একাধিক বিকল্প ব্যবস্থা

ব্যবসায় টাকা খুবই জরুরি তবে খারাপ বিনিয়োগকারির সঙ্গে যুক্ত হলে ব্যবসায় উন্নতির যায়গায় অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এই কারণে উদ্যোক্তাদের সবসময় একাধিক বিকল্প ব্যবস্থা রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়। এমন অনেক বিনিয়োগকারী রয়েছে যারা বিনিয়োগের পর অতিরিক্ত হস্তক্ষেপ করে যাতে কোম্পানির সমস্যা হয়। লগ্নিকারির কারণে কোম্পানি দেউলিয়া হয়েছে এমন একাধিক উদাহরণ রয়েছে।

First published:

Tags: Investment, Personal Finance

পরবর্তী খবর