দু'দিন বনধ ডেকেছে ব্যাঙ্ক ইউনিয়নগুলি, কোন কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন; জানুন বিশদে

দু'দিন বনধ ডেকেছে ব্যাঙ্ক ইউনিয়নগুলি, কোন কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন; জানুন বিশদে

নয়টি ব্যাঙ্ক ইউনিয়নের নেতৃত্বাধীন সংস্থা UFBU এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, প্রায় ১০ লক্ষ ব্যাঙ্কের কর্মী ও অফিসার বনধে অংশ নেবেন।

নয়টি ব্যাঙ্ক ইউনিয়নের নেতৃত্বাধীন সংস্থা UFBU এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, প্রায় ১০ লক্ষ ব্যাঙ্কের কর্মী ও অফিসার বনধে অংশ নেবেন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আজ ও আগামীকাল ব্যাহত হবে দেশের ব্যাঙ্কিং পরিষেবা। গ্রাহকরাও সমস্যায় পড়তে পারেন। কারণ, বেসরকারিকরণ ও সংযুক্তিকরণের প্রতিবাদে ইউনাইডেট ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়নের তরফে (United Forum of Bank Unions-UFBU) দেশ জুড়ে বনধ ডাকা হয়েছে। সামিল হয়েছে সমস্ত ব্যাঙ্ক ইউনিয়ন। আর তার পর থেকেই গ্রাহকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ স্পষ্ট। আসুন জেনে নেওয়া যাক বিশদে!

দু'দিনে কী কী সমস্যায় পড়তে পারেন সাধারণ মানুষ?

বনধের জেরে শাখা ব্যাঙ্কগুলিতে টাকা তোলা, জমা করা, নতুন অ্যাকাউন্ট খোলা, চেক ক্লিয়ারেন্স, লোনে অনুমোদন দেওয়া-সহ একাধিক কাজ ব্যাহত হবে। তবে ATM পরিষেবা স্বাভাবিক থাকবে।

নয়টি ব্যাঙ্ক ইউনিয়নের নেতৃত্বাধীন সংস্থা UFBU এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, প্রায় ১০ লক্ষ ব্যাঙ্কের কর্মী ও অফিসার বনধে অংশ নেবেন।

একধিক পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কও একই কথা বলছে। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (State Bank of India) তরফে জানানো হয়েছে, বনধ কার্যকর হলে শাখা সংস্থাগুলির কাজের উপর প্রভাব পড়বে। তবে গ্রাহকদের কথা ভেবে পরিষেবা সচল রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।

ব্যাঙ্ক ইউনিয়নগুলির এই প্রতিবাদের কারণ কী ?

২০১৯ সালে IDBI ব্যাঙ্কের একটি বড় অংশ বিক্রি করে ব্যাঙ্কটির বেসরকারিকরণ করে ফেলেছে সরকার। গত চার বছরে প্রায় ১৪টি পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণ ঘটেছে। এ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি বৈঠকেও কোনও সমাধান সূত্র বেরোয়নি। এবার তাই বনধ ও প্রতিবাদের পথে হাঁটছে ব্যাঙ্ক ইউনিয়নগুলি। এমনই জানাচ্ছেন, অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের ( All India Bank Employees Association) জেনারেল সেক্রেটারি সি এইচ ভেঙ্কটাচলম (CH Venkatachalam)।

কোন কোন সংস্থাগুলি বনধে সামিল হয়েছে?

UFBU-এর প্রায় সমস্ত সদস্য সংস্থাগুলি বনধে সামিল হয়েছে। তালিকায় রয়েছে অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন ( All India Bank Employees Association -AIBEA ), অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসারস কনফেডারেশন (All India Bank Officers’ Confederation - AIBOC), ন্যাশনাল কনফেডারেশন অফ ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ (National Confederation of Bank Employees - NCBE), অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসারস অ্যাসোসিয়েশন (All India Bank Officers’ Association - AIBOA), ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ কনফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া (Bank Employees Confederation of India- BEFI)। এছাড়াও রয়েছে ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ ফেডারেশন (Indian National Bank Employees Federation- INBEF), ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক অফিসারস কংগ্রেস (Indian National Bank Officers Congress -INBOC), ন্যাশনাল অরগানাইজেশন অফ ব্যাঙ্ক ওয়ার্কাস (National Organisation of Bank Workers - NOBW) ও ন্যাশনাল অরগানাইজেশন অফ ব্যাঙ্ক অফিসারস (National Organisation of Bank Officers- NOBO)।

প্রাইভেট ব্যাঙ্ক

বনধে প্রাইভেট ব্যাঙ্কগুলির পরিষেবা জারি থাকবে। এক্ষেত্রে HDFC ব্যাঙ্ক, ICICI ব্যাঙ্ক, কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক (Kotak Mahindra Bank০, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক (Axis Bank) ইন্দাসইন্ড ব্যাঙ্ক (IndusInd Bank)-সহ বেশ কয়েকটি প্রাইভেট ব্যাঙ্ক তথা ব্যাঙ্কিং পরিষেবার এক তৃতীয়াংশ স্বাভাবিক থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: