ট্রানজিট রিমান্ড মঞ্জুর, উদয়নকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে রায়পুর

ট্রানজিট রিমান্ড মঞ্জুর, উদয়নকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে রায়পুর
  • Share this:

#বাঁকুড়া: বাঁকুড়ার পুলিশের পর এবার রায়পুর পুলিশের হেফাজতে উদয়ন। বৃহস্পতিবার আকাঙ্খা খুনের অভিযুক্ত উদয়নের ৫ দিনের ট্রানজিট রিম্যান্ড মঞ্জুর করল বাঁকুড়ার মুখ্য বিচারবিভাগীয় আদালত। বাবা-মাকে খুনে উদয়নকে জেরা করতেই তাঁকে হেফাজতে নিয়েছে রায়পুর পুলিশ। তার আগে আদালতে মুখ্য বিচারবিভাগীয় বিচারপতির কাছে গোপন জবানবন্দী দেয় উদয়ন।

উদয়নের ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর। তার পাঁচ দিনের ট্রানজিট রিমান্ড দিল বাঁকুড়া জেলা আদালত। উদয়নের বাবা-মা খুনের তদন্তে তাকে হেফাজতে চায় রায়পুর পুলিশ। সেই মতো তাদের আবেদন মঞ্জুর করল আদালত। ফের আদালতে দোষ কবুল সাইকো কিলারের। আদালতকে উদয়ন জানায়, সে জামিন চায় না। উদয়ন বলে, সেই খুন করেছে। তার জামিনের প্রয়োজন নেই। এমনকী আইনজীবীরও প্রয়োজন নেই তার।

উদয়নের ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর বাঁকুড়া জেলা আদালত। বাবা-মাকে খুনে উদয়নকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে রায়পুর পুলিশ। উদয়ন ও আকাঙ্খার পরিবারকেও মুখোমুখি বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। উদয়নের ল্যাপটপ, মোবাইলও রায়পুর পুলিশের হাতে দেওয়ার নির্দেশ দেয় আদালত।

-১১ টা

জেলার মুখ্য বিচারবিভাগীয় আদালতে তোলা হয় উদয়নকে

-১১ টা ১৫

শুরু গোপন জবানবন্দী

-১ টা ৫

১ ঘণ্টা ২৫ মিনিটের গোপন জবানবন্দী শেষ

-২ টা ১৫ নাগাদ

ফের সিজিএমের এজলাসে তোলা হল। শুরু ট্রানজিট রিম্যান্ডের আবেদনের শুনানি

গোপন জবানবন্দী দেওয়ার পর আদালতে কিছুটা যেন হতাশ, ফ্যাকাশে দেখিয়েছে উদয়নকে। রায়পুর পুলিশের হেফাজতে থাকতেও কোনও আপত্তি নেই বলেই জানায় সিরিয়াল কিলার।

বিচারক -আপনার কি কিছু বলার আছে?

উদয়ন - না, আমার নতুন কিছুই বলার নেই

বিচারক - আপনাকে রায়পুর পুলিশ নিয়ে যেতে এসেছে

উদয়ন - হ্যাঁ, আমি ওনাকে আগে থেকেই চিনি

এই সময়ই উদয়নের জামিনের আবেদন করেন তার আইনজীবী। আইনজীবীকে মাঝপথে থামিয়ে আদালতে বক্তব্য জানাতে শুরু করেন উদয়ন- ‘আমি জামিনের আবেদন করতে বলিনি। আকাঙ্খা খুনে আমি অভিযুক্ত। আমার যা শাস্তি তাই হবে। কোনও জামিন বা আইনজীবীর প্রয়োজন নেই। ’

বাঁকুড়া মেডিক্যালে শারীরিক পরীক্ষার পর বৃহস্পতিবারই উদয়নকে নিয়ে রওনা হয় রায়পুর পুলিশ। ২০ ফেব্রুয়ারি রায়পুর আদালতে পেশ করা হবে উদয়নকে। ২ মার্চ ফের বাঁকুড়া আদালতে করা হবে সিরিয়াল কিলারকে।

বাঁকুড়া থেকে উদয়নকে নিয়ে খড়গপুর নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৷ ওখান থেকে ট্রেনে রায়পুর নিয়ে যাওয়া হবে ৷ যাওয়ার আগে বাঁকুড়ায় সমস্ত পুলিশকর্মীদের বিদায় জানায় এই সিরিয়াল কিলার ৷

First published: 07:47:38 PM Feb 16, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर