Home /News /technology /

Cryptocurrency: কোনও ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জে কীভাবে KYC ভেরিফাই করাবেন

Cryptocurrency: কোনও ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জে কীভাবে KYC ভেরিফাই করাবেন

ZebPay-এর মতো ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জগুলি শুরু থেকেই KYC নিয়ে অত্যন্ত কড়াকড়ি করেছে

  • Share this:

    ক্রিপ্টো অ্যাসেট বিভিন্ন জায়গায় স্বীকৃতিপেতে শুরু করেছে এবং বিটকয়েন ও ইথারের মতো কয়েনগুলির মূল্য প্রায় শিখর ছুঁয়ে ফেলেছে, তাই ক্রিপ্টো জগতে পা রাখার এটাই হল সেরা সময়। কিন্তু এখানে জেনে রাখা জরুরি, ট্রেডিং শুরু করার এবং একজন পাওয়ার ক্রিপ্টো ইউজার হয়ে ওঠার আগে আপনাকে নো ইওর কাস্টমার (KYC) প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে।

    ZebPay-এর মতো ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জগুলি শুরু থেকেই KYC নিয়ে অত্যন্ত কড়াকড়ি করেছে যাতে জেনুইন বিনিয়োগকারীদের ফান্ডের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায়। তবে অন্যান্য যে কোনও জায়গার মতো ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের ক্ষেত্রেও KYC ভেরিফিকেশানের প্রক্রিয়াটি খুবই সহজ।

    কোনও ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জে যখনই KYC প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করবেন, তখন কয়েকটি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। আমরা এই প্রতিবেদনে ZebPay–এর উদাহরণ তুলে ধরছি, কারণ এখানে অধিকাংশ এক্সচেঞ্জের মতো স্ট্যান্ডার্ড নিয়মাবলী অনুসরণ করা হয়।

    প্রথম ধাপ – আপনার সমস্ত ডকুমেন্ট জোগাড় করুন

    ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জে একটি অ্যাকাউন্ট খোলার পরে, আপনাকে KYC ভেরিফিকেশান সম্পূর্ণ করার জন্য নিম্নলিখিত ডকুমেন্টগুলি জমা দিতে হবে:

    ১ - PAN কার্ড এবং

    ২- ঠিকানার প্রমাণপত্র

    এখানে ঠিকানার প্রমাণপত্র বলতে সাধারণত আপনার আধার কার্ড বা পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স বা গত তিন মাসের কোনও ইউটিলিটি বিল-কে বোঝানো হয়েছে। তবে ZebPay–এর মতো যে সমস্ত ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ নিরাপত্তা বিষষয়ে অতিরিক্ত সচেতন, তারা অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য আপনার চেক বা ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট চাইবে।

    দ্বিতীয় ধাপ – যে কাজগুলি করতে হবে

    আপনার সমস্ত ডকুমেন্ট আপলোড করার জন্য প্রস্তুত হয়ে গেলে, নীচে বর্ণিত সহজ ধাপগুলি অনুসরণ করুন।

    ১–আপনার ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের সেটিংস পেজ-এ যান, এবং পরিচয় ভেরিফাই করুন বা KYC সম্পূর্ণ করুন নামের ট্যাবটি খুঁজে নিন।

    ২–এবার আপনাকে সমস্ত ID প্রুফ আপলোড করার কাজ শুরু করতে হবে। এই ধাপে এসে আপনি নিজের ফোনের গ্যালারি থেকেPAN কার্ডের বিবরণ আপলোড করতে পারেন কিংবা আপনার ফোনের ক্যামেরা ব্যবহার করে PAN কার্ডের ছবি তুলে তা আপলোড করতে পারেন।

    ৩–এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার পরে আপনাকে ঠিকানার প্রমাণ আপলোড করতে হবে। এর জন্য সবার আগে আপনি যে প্রমাণপত্রটি জমা দেবেন তার বিকল্প নির্বাচন করুন, সেটা আপনার আধার কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, পাসপোর্ট কিংবা ইউটিলিটি বিল হতে পারে।

    ৪ - আপনার ডকুমেন্ট অনুয়ায়ী যে রকম ছবি প্রয়োজন, নিশ্চিত করুন যেন সেই অনুযায়ী সমস্ত ছবি আপলোড করা হয়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, যদি আপনি আধার কার্ডের বিবরণ আপলোড করেন, তাহলে অবশ্যই আপনাকে কার্ডের সামনে এবং পিছন, উভয় দিকের ছবিই আপলোড করতে হবে।

    ৫ - KYC বিবরণ পূরণ করা হল এই প্রক্রিয়ার একটি অংশ বিশেষ। এর পরবর্তী ধাপে আপনার ব্যাঙ্কের বিবরণ যোগ এবং ভেরিফাই করতে হবে। আপনার এক্সচেঞ্জের সেটিংস পেজ-এ গিয়ে ব্যাঙ্কিং বিকল্প বেছে নিন এবং আপনার ব্যাঙ্কের বিবরণ যোগ করার জন্য পরবর্তী নির্দেশগুলি মেনে চলুন।

    ৬ - বিবরণ প্রদান করার পাশাপাশি আপনাকে ব্যাঙ্কের চেক বা ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্টের ছবিও যোগ করার কথা বলা হতে পারে। আপনার PAN কার্ডের বিবরণ যোগ করার ক্ষেত্রে যে ধাপগুলি অনুসরণ করার কথা বলা হয়েছে, এখানে আপনাকে সেই একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে। নিশ্চিত করুন যেন এখানে আপলোড করা ছবিতে আপনার নাম, অ্যাকাউন্ট নম্বর এবং IFSC কোড একদম স্পষ্ট ভাবে দেখা যায়।

    এবং, কাজ শেষ! এবার শুধু ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ আপনার KYCও ব্যাঙ্কের বিবরণ অনুমোদন না করা পর্যন্ত আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে, এবং তারপরে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি-দুনিয়ায় যাত্রা শুরু করতে পারবেন।

    তৃতীয় ধাপ – কেন আপনার KYC প্রয়োজন

    যে কোনও রকমের টাকাপয়সার ট্রানজ্যাকশানের ক্ষেত্রে KYC এখন একটি বাধ্যতামূলক প্রক্রিয়ায় পরিণত হয়েছে, এমনকী ক্রিপ্টোকারেন্সির জগৎ ছাড়াও অন্য সমস্ত ক্ষেত্রে, যেমন- ব্যাঙ্কে বা মিউচুয়াল ফান্ডে ট্রানজ্যাকশান শুরুর আগেও এটি সম্পূর্ণ করা জরুরি।

    সোজা কথায় বললে, যে কোনও রকম ফিন্যান্সিয়াল ট্রানজ্যাকশান চালু করার আগে সর্বদা KYC সম্পূর্ণ করা বাধ্যতামূলক। একবার আপনার KYC ভেরিফিকেশান প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়ে গেলে উক্ত প্রতিষ্ঠান, যেমন এখানে ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের উদাহরণ দেওয়া হয়েছে, তার কাছে আপনার পরিচয়, ঠিকানা এবং ফিন্যান্সিয়াল হিস্ট্রি সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য আপনি সফলভাবে পাঠিয়ে দেবেন। আপনার এই ভেরিফিকেশানের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়ে গেলে, আপনি ব্যাঙ্কে কারেন্সি এক্সচেঞ্জ করে ক্রিপ্টোকারেন্সি কিনে নিতে পারেন এবং ব্লকচেনের আকর্ষণীয় জগতে প্রবেশ করতে পারেন।

    চতুর্থ ধাপ – KYC প্রত্যাখ্যানের ঝুঁকি হ্রাস করা

    এখন আপনি KYC-এর গুরুত্ব সম্পর্কে সম্পূর্ণ ওয়াকিবহাল, তাই বুঝতে পারছেন যে ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ যাতে আপনার আবেদন খারিজ না করে তা নিশ্চিত করা কতটা জরুরি।যদি উপরে বর্ণিত ধাপগুলির প্রতিটি আপনি সঠিক ভাবে অনুসরণ করেন, তাহলে আপনার KYC সম্পূর্ণ হওয়া নিয়ে কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে প্রত্যাখ্যানের ঘটনা ঘটে। তাই KYC প্রত্যাখ্যানের সম্ভাবনা এড়াতে নীচে প্রদান করা পয়েন্টারগুলি মেনে চলুন।

    ১ - প্রথমে, ভেরিফিকেশানের জন্য প্রদান করা ছবিগুলি ভালো করে দেখুন। অনেক সময়ে, সেগুলি হেজি বা অস্পষ্ট হলে ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ আপনার ডকুমেন্টগুলি অথেন্টিকেট করতে পারবে না, যার ফলে KYC প্রত্যাখ্যান করা হবে।

    ২–ক্রসচেক করে দেখুন, আপনার জমা দেওয়া ফটো ID, যেমন পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্সের মেয়াদ যেন কিছুদিন হলেও অবশিষ্ট থাকে, কারণ মেয়াদ শেষ হওয়া প্রমাণপত্র দিয়ে আপনার পরিচয় প্রমাণ করা সম্ভব নয়।

    ৩–সবার শেষে, নিশ্চিত করুন যেন আপনার দ্বারা প্রদান করা ব্যাঙ্কের বিবরণ সঠিক হয় এবং আপনি যদি সাপোর্টিং ডকুমেন্ট হিসেবে কোনও চেক বা ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট প্রদান করে থাকেন, তাহলে সেখানে সমস্ত তথ্য যেমন আপনার নাম, অ্যাকাউন্ট নম্বর এবং IFSC বিবরণ যেন স্পষ্ট ভাবে দেখা যায়।

    ক্রিপ্টো অ্যাসেট গড়ে তোলার যাত্রা সফল ভাবে শুরু করার প্রথম পদক্ষেপ হল KYC ফর্মালিটিগুলি সম্পূর্ণ করা। এই প্রক্রিয়াকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে, যাতে একদম প্রাথমিক ধাপেই ইউজারের পরিচয় সম্পর্কিত সমস্ত ভেরিফিকেশান সম্পূর্ণ হয়ে যায়। এর মাধ্যমে সিস্টেমে স্বচ্ছতা বজায় থাকে এবং ইন্ডাস্ট্রিতে জালিয়াতির সম্ভাবনা খর্ব করা যায়। এই ইন্ডাস্ট্রির দ্রুত হারে বৃদ্ধির ঘটনা প্রচুর লাভের পাশাপাশি কিছু অবাঞ্ছিত সমস্যাকেও আকৃষ্ট করেছে।

    এখানে বর্ণিত প্রতিটি পদক্ষেপ ভালো ভাবে পড়ুন এবং তার পাশাপাশি আপনার ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ অন্য কী কী তথ্য চাইছে সেগুলি ভালো ভাবে পড়ে নিন, তাহলে আপনার KYC আবেদনের প্রক্রিয়া মসৃণ হয়ে যাবে এবং প্রথম বারে সফল হওয়ার সম্ভাবনা বহু গুণে বৃদ্ধি পাবে। সবার শেষে, ZebPay–এর মতো একটি নিরাপদ এবং বিশ্বাসযোগ্য ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ বেছে নেওয়া নিশ্চিত করুন, যেখানে সহজে আপলোড করার সুবিধা থাকবে এবং তাদের শক্তিশালী নিরাপত্তা ব্যবস্থা সেই প্ল্যাটফর্মে আপনার সমস্ত কয়েন নিরাপদে রাখবে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Cryptocurrency, KYC

    পরবর্তী খবর