Home /News /technology /
A Comet Reaching Earth: মহা বিস্ফোরণে ধূমকেতুর মৃত্যু! ১৫ বছর পর পৃথিবীর আকাশে দেখা দেবে ধ্বংসাবশেষ

A Comet Reaching Earth: মহা বিস্ফোরণে ধূমকেতুর মৃত্যু! ১৫ বছর পর পৃথিবীর আকাশে দেখা দেবে ধ্বংসাবশেষ

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

A Comet Reaching Earth: নাসার বিখ্যাত হাবল টেলিস্কোপে এই ধূমকেতুর উপস্থিতি প্রথম নজরে পড়ে ১৯৯৯ সালের ১৫ জুন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: পূর্ণ চন্দ্রগ্রহন ও আকাশে তারকা বৃষ্টি, এই দুই দৃশ্য এই বছরই দেখতে পাবেন আকাশ উৎসাহীরা। তবে এ বছর দেখা যাবে আরও এক দুর্লভ জিনিস। মহাকাশে ধ্বংস হয়ে যাওয়া এক ধূমকেতুর ধ্বংসাবশেষ, টুকরো, টুকরো অংশ প্রবেশ করবে পৃথিবীর মহাকাশের দৃশ্যপটে। আর সাধারণ গ্রাউন্ড টেলিস্কোপ দিয়েই সে জিনিস দেখতে পাবেন পৃথিবীর মানুষ। আশ্চর্য হওয়ার এখানেই শেষ নয়। মজার কথা হল, ২০০৭ সালে এই ধূমকেতুর মৃত্যু হয়েছিল, অর্থাৎ তীব্র বিস্ফোরণে ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল এটি। দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে এই ধূমকেতুর ভগ্নাংশ মহাশূন্যে বিভিন্ন পথে যাত্রা করেছে, এ বার সেটি প্রবেশ করবে পৃথিবীর আকাশ পথের মধ্যে।

    আরও পড়ুন - লক্ষ্য মহিলা ভোট, ত্রিপুরা উপনির্বাচনে তৃণমূলের দুই কেন্দ্রে মহিলা প্রার্থী

    নাসার বিখ্যাত হাবল টেলিস্কোপে এই ধূমকেতুর উপস্থিতি প্রথম নজরে পড়ে ১৯৯৯ সালের ১৫ জুন। নাম দেওয়া হয় কমেট১৭পি/ হোমস। তখন যে ধূমকেতুর ছবি এতে ধরা পড়েছিল, তাতে কোনওরকম ধোঁয়া, ধুলো, কিছুই ছিল না। তখন দেখা গিয়েছিল, এটির এলাকার দৈর্ঘ্য ৩.৪ কিলোমিটার। ২০০৭ সালে ফের এটির যে ছবি ধরা পড়ে সেটি একেবারে আলাদা। হাবলের অনুসন্ধানী দৃষ্টিতে দেখা যায়, এই দক্ষিণের পূর্ব-পশ্চিম ও উত্তর-দক্ষিণ বরাবরণ বিভিন্ন টুকরো টুকরো আলোক মালার মতো ধূমকেতু অংশ তৈরি হয়েছে। যেটির কারণে এটিকে দেখতে অনেকটা টাই ও বো-এর মতো লাগছে। সেই সময়েই হয় বিস্ফোরণ। তখন সেটি পৃথিবীর থেকে ১৪৯ মিলিয়ন মাইল দূরে ছিল।

    বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, যে ধূমকেতুর অংশ এই বিস্ফোরণের ফলে তৈরি হয়েছে, সেগুলি ৩০ সেন্টিমিটার টেলিস্কোপের মাধ্যমে দেখা যাবে। সেটিতে সিসিডি ক্যামেরা থাকলে ভাল। এগুলি মাঝারি মানের মাটিতে রাখা দূরবীন বা টেলিস্কোপ।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Comet

    পরবর্তী খবর