Pink Ball Test: ইশান্তকে ঘুম থেকে ঠেলে তুলে সুখবরটা দিয়েছিলেন বিরাটই

Pink Ball Test: ইশান্তকে ঘুম থেকে ঠেলে তুলে সুখবরটা দিয়েছিলেন বিরাটই

Virat Kohli on Ishant Sharma ahead of his 100th Test cap

মোতেরায় গোলাপি টেস্টে এক অনন্য মাইলস্টোনের সামনে দাঁড়িয়ে ইশান্ত শর্মা (Ishant Sharma)৷ দিল্লির ল্যাঙ্কি পেসারের সামনে অনন্য এক সেঞ্চুরির হাতছানি৷

  • Share this:

    #আহমেদাবাদ: মোতেরায় গোলাপি টেস্টে এক অনন্য মাইলস্টোনের সামনে দাঁড়িয়ে ইশান্ত শর্মা (Ishant Sharma)৷ দিল্লির ল্যাঙ্কি পেসারের সামনে অনন্য এক সেঞ্চুরির হাতছানি৷ ৮৩-র বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক কপিল দেবের পর দ্বিতীয় ভারতীয় পেসার হিসাবে ১০০ নম্বর টেস্ট খেলতে নামছেন ইশান্ত৷ তিনি ভারতের ১১ নম্বর ও বিশ্বের দ্বাদশ ফাস্টবোলার হিসাবে তিন অঙ্কের টেস্ট ম্যাচ খেলার নজির গড়বেন তিনি৷

    বহু বছর ধরেই নিজের রাজ্যের বাসিন্দাকে চেনেন টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি (Virat Kohli)৷ এমনকী ইশান্তের গলাও দুর্দান্ত নকল করতে পারেন তিনি৷ কপিল শর্মার শো-তে এসে ইশান্তের মিমিক্রি করেও দেখান বিরাট৷ আজ সতীর্থের সাফল্যে গর্বিত কোহলি৷ মঙ্গলবার প্রাক ম্যাচ ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠকে কোহলি জানান যে, তিনিই ইশান্তকে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার খবরটা দিয়েছিলেন৷

    কোহলি এদিন বলছেন, "ইশান্ত আমার সঙ্গে রাজ্য স্তরে ক্রিকেট খেলা শুরু করে৷ ও যখন ভারতীয় দলে সুযোগ পেল, তখন আমি ওকে ঘুম থেকে ঠেলে তুলে খবরটা দিয়েছিলাম৷ এভাবে আমরা এগিয়ে গেলাম৷ আমাদের মধ্যে অসাধারণ একটা আস্থার জায়গা রয়েছে৷ আমি ভীষণ খুশি ওকে দেখে, যেভাবে ও এত বছর নিজের বোলিংটা উপভোগ করছে৷ এখনকার দিনে একজন পেসারের এতটা দীর্ঘমেয়াদি কেরিয়ার খুবই বিরল৷ ইশান্ত চাইলেই সাদা বলের ক্রিকেটকে প্রাধান্য দিতে পারত৷ ও কিন্তু সেটা করেনি৷ ও ফোকাস করেছে টেস্টেই৷ আমি সত্যিই খুশি যে ১০০ নম্বর টেস্ট খেলছে৷ আশা করি ও ভারতের জন্য আরও বহু বছর খেলুক৷"

    ১৪ বছর আগে টেস্ট অভিষেক করা ইশান্ত আজও ভারতীয় দলের এক নম্বর টেস্ট বোলার৷ চোট-আঘাতে বহুবার জর্জরিত হয়েছে তাঁর কেরিয়ার৷ এরপরেও একজন ফাস্টবোলার হিসাবে ইশান্তের ১০০ নম্বর টেস্ট খেলার কৃতিত্বকে কুর্নিশ করছেন সকলে৷ চেন্নাই টেস্টেও ইশান্ত রেকর্ড করেন৷ ৩০০ টেস্ট উইকেটের এলিট ক্লাবে যোগ দেন তিনি৷ ভারতের ৬ নম্বর বোলার ও তৃতীয় পেসার হিসাবে ক্রিকেটের দীর্ঘতম ফর্ম্যাটে ইশান্তের ৩০০ উইকেট চলে এল৷ তাঁর আগে রয়েছেন অনিল কুম্বলে (Anil Kumble, ৬১৯), কপিল দেব (Kapil Dev, ৪৩৪), হরভজন সিং (Harbhajan Singh, ৪১৭), অশ্বিন (৩৮৬), জাহির খান (Zaheer Khan, ৩১১) ও ইশান্ত (৩০০)

    Published by:Subhapam Saha
    First published: