• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Konica Layek Commits Suicide: রাইফেল উপহার দিয়েছিলেন সোনু সুদ, হাওড়ায় আত্মঘাতী শ্যুটার কণিকা লায়েক

Konica Layek Commits Suicide: রাইফেল উপহার দিয়েছিলেন সোনু সুদ, হাওড়ায় আত্মঘাতী শ্যুটার কণিকা লায়েক

২০২০ সালে ঝাড়খণ্ডের রাজ্য শ্যুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে একটি সোনা এবং রুপোর পদক জেতেন কণিকা (Konica Layek)৷

২০২০ সালে ঝাড়খণ্ডের রাজ্য শ্যুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে একটি সোনা এবং রুপোর পদক জেতেন কণিকা (Konica Layek)৷

২০২০ সালে ঝাড়খণ্ডের রাজ্য শ্যুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে একটি সোনা এবং রুপোর পদক জেতেন কণিকা (Konica Layek)৷

  • Share this:

#হাওড়া: ঝাড়খণ্ডের প্রতিশ্রুতিমান শ্যুটার হিসেবে পরিচিতি তৈরি করেছিলেন৷ পাশে দাঁড়িয়ে রাইফেল উপহার দিয়েছিলেন অভিনেতা সোনু সুদ(Sonu Sood)৷ সেই রাইফেল শ্যুটার কণিকা লায়েকই (২৮) বুধবার সকালে হাওড়ার বালিতে আত্মঘাতী হলেন৷ ঝাড়খণ্ডের প্রতিনিধিত্ব করলেও বাংলায় থেকেই প্র্যাক্টিস করতেন কণিকা (Shooter Konica Layek Commits Suicide)৷ বিখ্যাত শ্যুটার জয়দীপ কর্মকারের কাছে প্রশিক্ষণ নিতেই বাংলায় আসেন কণিকা৷

হাওড়া (Howrah) পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, বালির বীরেশ্বর চ্যাটার্জী স্ট্রিটের 'মুক্তি নীর' নামে মহিলাদের জন্য একটি হোস্টেলে আরও বেশ কয়েকজনের সঙ্গে থাকতেন কণিকা৷ বুধবার সকালে হোস্টেলের বাকি আবাসিকরা বেরিয়ে যাওয়ার পর সেই সুযোগেই আত্মঘাতী হন কণিকা৷ সুইসাইড নোটে কণিকা লিখে গিয়েছেন, বাবা-মায়ের স্বপ্নপূরণ করতে ব্যর্থ হওয়াতেই চরম পথ বেছে নিলেন তিনি৷

আরও পড়ুন: তাঁর নামে অনেক কিছু রটছে! সোজাসাপ্টা বিরাট জানালেন, 'রোহিতের ক্যাপ্টেন্সিতে খেলতে রাজি'

২০২০ সালে ঝাড়খণ্ডের রাজ্য শ্যুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে একটি সোনা এবং রুপোর পদক জেতেন কণিকা৷ এর পর ট্যুইটারে নিজের আর্থিক প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরেন তিনি৷ অভিযোগ করেন, ঝাড়খণ্ড সরকারের থেকে কোনও সাহায্যই পাননি৷ উন্নতির জন্য তাঁর একটি ভাল রাইফেলের প্রয়োজন বলেও জানান কণিকা৷

কণিকার এই ট্যুইট দেখে তাঁকে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেন অভিনেতা সোনু সুদ৷ অভিনেতা কণিকার উদ্দেশে লেখেন, 'তুমি দেশের জন্য পদক জেতো৷ তোমার রাইফেল তোমার কাছে পৌঁছে যাবে৷' প্রতিশ্রুতি মতো সোনু সুদের থেকে রাইফেলও উপহার পান কণিকা৷

আরও পড়ুন: সব শেষ করে দেবেন, আত্মহত্যা করতে গিয়েও ফিরে আসেন! আজ সেই স্পিনারের জন্মদিন

শ্যুটিংয়ে উন্নতির জন্য জয়দীপ কর্মকারের কাছে প্রশিক্ষণ নিতে চেয়েছিলেন কণিকা৷ জয়দীপ বাবুও কণিকার পাশে দাঁড়ান৷ এক আত্মীয়ের সূত্রে বালির ওই হোস্টেলে থাকার ব্যবস্থা করেন কণিকা৷ এর পর কলকাতায় জয়দীপ কর্মকারের কাছেই প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন কণিকা৷

কিন্তু তাল কাটে কয়েক মাস আগে৷ সূত্রের খবর, আমেদাবাদের একটি প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে গিয়ে বেনিয়মের অভিযোগে বহিষ্কৃত হন কণিকা৷ অভিযোগ, প্রতিযোগিতার মাঝেই টার্গেট পয়েন্টকে বিকৃত করেন কণিকা৷ সেই অভিযোগে মুচলেকা লিখিয়ে তাঁকে ওই প্রতিযোগিতা থেকে বহিষ্কার করা হয়৷

যদিও কণিকা এই ঘটনা জয়দীপবাবুকে জানাননি বলেই অভিযোগ৷ পরে বিষয়টি জানতে পেরে কণিকাকে প্রশ্ন করেন জয়দীপবাবু৷ বিষয়টি নিয়ে জয়দীপবাবুর সঙ্গে কণিকার দূরত্বও তৈরি হয় বলে সূত্রের খবর৷ ঝাড়খণ্ড ছেড়ে বাংলায় চলে আসায় সেখানে ফেরাও কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছিল কণিকার পক্ষে৷ এ দিকে ফেব্রুয়ারি মাসে তাঁর বিয়েও ঠিক হয়ে গিয়েছিল৷ সবমিলিয়ে শ্যুটিং চালিয়ে নিয়ে যাওয়া নিয়েই অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে যান কণিকা৷ সেই অবসাদ থেকেই তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: