Home /News /sports /
Roman Abramovich Chelsea : রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণের জের, চেলসির দায়িত্ব ছাড়তে বাধ্য হলেন রোমান আব্রামোভিচ

Roman Abramovich Chelsea : রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণের জের, চেলসির দায়িত্ব ছাড়তে বাধ্য হলেন রোমান আব্রামোভিচ

ইংল্যান্ডে প্রবল চাপের মুখে চেলসির মালিকানার ছাড়লেন রুশ ধনকুবের

ইংল্যান্ডে প্রবল চাপের মুখে চেলসির মালিকানার ছাড়লেন রুশ ধনকুবের

Roman Abramovich Russian business tycoon hands over Chelsea Football Club to charitable foundation. বিতর্ক থামাতে চেলসির দায়িত্ব ছাড়লেন রুশ মালিক রোমান আব্রাহামোভিচ

  • Share this:

    #লন্ডন: রাশিয়া বনাম ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে খেলার মাঠের প্রভাব পড়েছে ব্যাপকভাবে। সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল আগেই। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড রুশ বিমান সংস্থার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে নিজেদের ক্ষতি মেনে নিয়ে। এবার চেলসি ফুটবল ক্লাবের দায়িত্ব থেকে সরে গেলেন রোমান অ্যাব্রামোভিচ। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবের কারণেই এমন সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হচ্ছে।

    আরও পড়ুন - IND vs SL, Ravindra Jadeja: পুষ্পা নাচেই শুধু নয়! রবীন্দ্র জাদেজা প্রমাণ করলেন কেন তিনি সত্যিই "ফায়ার"

    যদিও অ্যাব্রামোভিচ নিজে তা স্বীকার করেননি। রবিবার লিভারপুলের বিরুদ্ধে কারাবায়ো কাপ ফাইনালে খেলতে নামার আগেই এই খবর পেল ইংল্যান্ডের ক্লাবটি। তবে অ্যাব্রামোভিচ ক্লাব বিক্রি করে দেবেন কি না তা স্পষ্ট নয়। শনিবার রাতে দায়িত্ব ছাড়ার কথা জানান অ্যাব্রামোভিচ। তিনি বলেন, গত ২০ বছর ধরে নিজেকে ক্লাবের অভিভাবক হিসেবে দেখেছি। আমার কাজ ছিল দল কী করে সাফল্য পাবে, তা দেখা। সেই সঙ্গে ভবিষ্যৎ গড়ে তোলা।

    ইতিবাচক ভাবে খেলতে চেয়েছি আমরা। আমি সব সময় ক্লাবের কথা মাথায় রেখে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ক্লাবের মান রাখা আমার কর্তব্য। সেই জন্য আজ আমি চেলসি চ্যরিটেবল ফাউন্ডেশনের ট্রাস্টিদের হাতে ক্লাবের দায়িত্ব তুলে দিচ্ছি। ২০০৩ সাল থেকে চেলসির মালিক অ্যাব্রামোভিচ। ক্লাব বিক্রি করার কথা বলেননি তিনি। ব্রিটেনে থাকা রুশ ক্ষমতাবানদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছে। অ্যাব্রামোভিচ যদিও সেই তালিকায় নেই। তবে তাঁর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হলে চেলসির দায়িত্ব অন্য কারও হাতে দিতে পারতেন না তিনি।

    তবে আইনজীবীদের ধারণা অ্যাব্রামোভিচের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত হলেও তার মধ্যে চেলসি ক্লাবকে ধরা হত না দলের ঐতিহ্যের কথা ভেবে। আব্রামোভিচের কন্যা সোফিয়া নিজে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভ্লাদিমির পুতিনের ইউক্রেন আক্রমণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন। জানিয়েছেন ক্রেমলিনের সবচেয়ে বড় মিথ্যা হচ্ছে মানুষকে বার্তা দেওয়া যে রাশিয়ার সাধারণ মানুষ প্রেসিডেন্ট পুতিনের পাশে আছেন।

    ইউক্রেন সমস্যা অন্যভাবে মেটানোর পক্ষেও মত দিয়েছেন আব্রামোভিচের কন্যা। কিন্তু আমেরিকা এবং ইংল্যান্ড ও বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এই মুহূর্তে পুতিনের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন। ফলে ইংল্যান্ডের মাটিতে রুশ ব্যবসায়ী সংস্থার আপাতত পাততাড়ি গুটানোর সময় হয়েছে। তারই অন্যতম পদক্ষেপ আব্রামোভিচের চেলসির দায়িত্ব ছাড়া।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    Tags: Russia Ukraine Crisis

    পরবর্তী খবর