• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • OTHER SPORTS SPAIN BEAT JAPAN TO SET UP OLYMPIC FINAL GOLD MEDAL MATCH WITH BRAZIL RRC

অলিম্পিক ফুটবলে সোনার লড়াইয়ে ফাইনালে ব্রাজিলের সামনে স্পেন

গোল করে সেলিব্রেশন স্পেনের অসেন্সিওর

অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালে ব্রাজিলের মুখোমুখি হওয়া নিশ্চিত করল স্পেন। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে জাপানকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে স্পেন। অতিরিক্ত সময়ে ১১৫ মিনিটে স্পেনের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন মার্কো আসেনসিও

  • Share this:

    স্পেন -১ জাপান -০

    #টোকিও: কয়েক ঘণ্টা আগে ব্রাজিল অলিম্পিক ফাইনালের টিকিট পাওয়ার পর প্রশ্ন ছিল, জাপান না স্পেন ? কে হবে ব্রাজিলের প্রতিদ্বন্দী ? বিশ্বের তামাম ফুটবলপ্রেমীরা এই উত্তরটা জানতে মুখিয়ে ছিলেন। তাদের জবাব দিল স্পেন। দুই দশক পর অলিম্পিক ফাইনালে উঠল লা রোজা। অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালে ব্রাজিলের মুখোমুখি হওয়া নিশ্চিত করল স্পেন। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে জাপানকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে স্পেন। অতিরিক্ত সময়ে ১১৫ মিনিটে স্পেনের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন মার্কো আসেনসিও।

    নির্ধারিত সময়ে গোলশূন্য ছিল দুই দল। দিনের প্রথম সেমিফাইনালে মেক্সিকোকে টাইব্রেকারে ৪-১ গোলে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে ব্রাজিল। শনিবার সোনার পদক জয়ের লড়াইয়ে ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে স্পেন। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ে কোনো দলই গোলমুখ খুলতে চোখ ধাঁধানো আক্রমণ করতে পারেনি। গোছানো রক্ষণ নিয়ে খেলেছে জাপান। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) প্রযুক্তি স্পেনের পেনাল্টির একটি আবেদন বাতিল করে দেয়। ১১৫ মিনিটে বক্সের ভেতর বল পেয়ে বাঁকানো শটে গোল করেন আসেনসিও।

    সেমিফাইনাল থেকে বাদ পড়া দুই দল জাপান ও মেক্সিকো এখন ব্রোঞ্জ জয়ের লড়াই করবে। শুক্রবার সাইতামা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দু্ই দল। সর্বশেষ ২০০০ সিডনি অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালে উঠেছিল স্পেন। সেবার রুপা জিতেছিল তারা। বদলি হয়ে মাঠে নামা আসেনসিওর গোলে এই ২১ বছরের মধ্যে প্রথম অলিম্পিক ফাইনালের দেখা পেল স্পেন। তবে ম্যাচে জাপানের তুলনায় ভালো খেলেই জয় তুলে নিয়েছে স্পেন। প্রথমার্ধে স্পেনের রাফা মীরের শট রুখে দেন জাপানের গোলকিপার কোসা তানি।

    স্পেনের মেকিল মেরিনোকে জাপানের মায়া ইয়োশিদা বক্সের মধ্যে ফাউল করলে পেনাল্টির দাবি তোলেন স্পেনের খেলোয়াড়রা। কিন্তু ভিএআর সে দাবি বাতিল করে দেয়। তবে হেরে গেলেও প্রশংসা প্রাপ্য জাপানের। ইউরো কাপে খেলা ছয় জন ফুটবলার ছিল স্প্যানিশ দলে। পেড্রি, মিকেল, এরিক গার্সিয়া, পাও তোরেস এবং গোলরক্ষক উনাই সিমোন এঁরা ইউরো সেমিফাইনাল খেলেছিলেন। সেই দলের বিরুদ্ধে জাপানের কুবো, এন্ড, তানাকা, ইয়সিদার মত ফুটবলাররা দুর্দান্ত লড়াই করলেন।

    একটা সময় তো স্পেনের থেকে বেশি ওপেন করে ফেলেছিল জাপান। কিন্তু ফিনিশ করতে পারেনি। স্পেনের গোলদাতা আসেনসিও ইউরো কাপে জায়গা পাননি লুইস এনরিকের দলে। সেটা তাকে শক্ত হতে শিখিয়েছে তার প্রমাণ আজকের গোল। ফাইনালে সামনে ব্রাজিল। নেইমার, জেসাস না থাকলেও যাঁরা আছেন, তারাও ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন করার পক্ষে যথেষ্ট। কিন্তু স্পেনের এই দলটা ব্রাজিলকে দেখে ভয় পেতে রাজি নয়। নিজেদের দক্ষতার ওপর ভরসা আছে তাঁদের।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: