• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL SANDESH JHINGAN MIGHT LEAVE ATK MOHUN BAGAN TO REALISE HIS EUROPEAN DREAMS RRC

এটিকে মোহনবাগান ছেড়ে হয়তো ইউরোপের পথে যাবেন সন্দেশ ঝিঙ্গান

সবুজ মেরুন ছেড়ে হয়তো বিদেশের পথে সন্দেশ

ইউরোপের অনেক ক্লাব ঝিঙ্গানকে দলে চাইছে। একটি নির্দিষ্ট সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এটিকে মোহনবাগান ছাড়তে চাইছেন ২৮ বছর বয়সে এই সেন্টারব্যাক

  • Share this:

    #কলকাতা: খবরটা যদি শেষ পর্যন্ত সত্যি হয়, তাহলে মন খারাপ হওয়াটাই স্বাভাবিক এটিকে মোহনবাগান সমর্থকদের। দেশের সেরা ডিফেন্ডার সন্দেশ ঝিঙ্গান ইউরোপের তিন দেশ থেকে নাকি প্রস্তাব পেয়েছেন। বাইচুং, সুনীলের পর তিনিই হতে পারেন অন্যতম নামি ভারতীয় ফুটবলার যিনি এই কীর্তি অর্জন করতে চলেছেন। গতবার দেশের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ও হয়েছেন তিনি। জিতেছেন অর্জুন অ্যাওয়ার্ডও। সেন্টারব্যাক হিসেবে নিজের কাজটা যে বেশ ভালোই পারেন, বহুবার প্রমাণ করেছেন।

    তাঁর যোগ্যতার কথা উপমহাদেশ ছাড়িয়ে পৌঁছে গেছে ইউরোপেও। জানা গেছে, ইউরোপের অনেক ক্লাব ঝিঙ্গানকে দলে চাইছে। একটি নির্দিষ্ট সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এটিকে মোহনবাগান ছাড়তে চাইছেন ২৮ বছর বয়সে এই সেন্টারব্যাক। গত মরশুমে কেরালা ব্লাস্টার্স ছেড়ে মোহনবাগানে যোগ দিয়েছিলেন এই সেন্টারব্যাক। স্প্যানিশ সেন্টারব্যাক তিরির সঙ্গে দুর্দান্ত এক জুটি গড়ে তুলেছিলেন মোহনবাগানের রক্ষণভাগে।

    কিন্তু শেষমেশ মুম্বাই সিটির সঙ্গে পেরে উঠতে পারেনি মোহনবাগান। গত মরশুমে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের (আইএসএল) এর রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের। এবার সন্দেশের ইচ্ছা পূরণ হলে দুর্দান্ত ওই রক্ষণভাগটা ভেঙে যাবে মোহনবাগানের। জানা গেছে, অস্ট্রিয়া, ক্রোয়েশিয়া ও গ্রিসের অনেক ক্লাবই চাইছে সন্দেশকে। এদের মধ্যে দুই ক্লাবের আগ্রহ অনেক বেশি। যদিও সেই দুই ক্লাবের নাম এখনো জানা যায়নি। সন্দেশ নিজেও ইউরোপে খেলার আশা পূরণ করতে চাইছেন এবার।

    মোহনবাগান সংশ্লিষ্ট কিছু সূত্র জানিয়েছে, সন্দেশের সঙ্গে মোহনবাগানের চুক্তির একটা শর্ত আছে, ইউরোপ থেকে সন্দেশের জন্য কোনো প্রস্তাব এলে এই সেন্টারব্যাককে ছেড়ে দিতে বাধ্য থাকবে মোহনবাগান। যদিও গত মৌসুমে ৫ বছরের জন্য সন্দেশের সঙ্গে চুক্তি করেছিল ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। গত সপ্তাহ থেকে প্রাক-মৌসুমের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে মোহনবাগান। সন্দেশ এ কারণেই ক্লাবের সঙ্গে অনুশীলন করছেন না এখনো।

     সন্দেশের দলে থাকা আর না থাকার মধ্যে অনেক পার্থক্য। গতবার দেখা গিয়েছে শুধু ডিফেন্স নয়, প্রয়োজনে ওপরে উঠে এসে গোল করতে বড় ভূমিকা পালন করেন তিনি। সবচেয়ে বড় প্লাস পয়েন্ট সাহস। তার অভাব কীভাবে পূরণ করবেন সবুজ মেরুন হেডস্যার হাবাস উত্তর দেবে সময়।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: