• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL ALL EYES ON LIONEL MESSI AND NEYMAR AS MARACANA PREPARES FOR COPA AMERICA FINAL RRC

রাত পোহালেই সুপার ক্লাসিকো, ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনা নিয়ে উত্তেজনা চরমে !

কোপা ফাইনালে মর্যাদার লড়াই ব্রাজিল - আর্জেন্টিনার

দীর্ঘদিন বাদে কোনও মেজর টুর্নামেন্টের খেতাবি লড়াইয়ে মুখোমুখি হতে চলেছে দক্ষিণ আমেরিকার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ।মাঝমাঠে আর্জেন্তিনার তুলনায় ব্রাজিল দলে অনেক ভাল মানের ফুটবলার রয়েছে

  • Share this:

    #রিও ডি জেনেরিও: আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। রবিবার ভোরে রিওর বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়ামে কোপা আমেরিকার ফাইনালে মুখোমুখি ব্রাজিল- আর্জেন্টিনা। গত একমাস ইউরো কাপে একাধিক দুর্দান্ত ম্যাচের সাক্ষী থেকেছে ফুটবলপ্রেমীরা। পথে ঘাটে এই টুর্নামেন্ট নিয়ে কম চর্চা হয়নি। একই সঙ্গে যে কোপা আমেরিকা নামক কোনও প্রতিযোগিতা চলছে, সেটা হয়তো অনেকেরই হুঁশ ছিল না। তবে ফাইনালে ব্রাজিল বনাম আর্জেন্তিনার লড়াই নিশ্চিত হতেই রাতারাতি সেন্টার স্টেজে চলে এসেছে কোপা।

    দীর্ঘদিন বাদে কোনও মেজর টুর্নামেন্টের খেতাবি লড়াইয়ে মুখোমুখি হতে চলেছে দক্ষিণ আমেরিকার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ। ইস্ট বেঙ্গল বনাম মোহন বাগান ম্যাচের আগে কলকাতা যেভাবে দু’ভাগে ভাগ হয়ে যায়, এই ম্যাচটাও ঠিক তেমনই। সাধারণ মানুষ থেকে সেলিব্রেটি, সকলেই নিজেদের প্রিয় দলের হয়ে গলা ফাটাতে শুরু করেছে। এটা এমনই এক লড়াই যেখানে ব্যক্তিগত দক্ষতার চেয়ে দল অনেক বেশি গুরুত্ব পায়। ব্রাজিল-আর্জেন্তিনা ম্যাচ মানেই মর্যাদার মহালড়াই। আর সেই চাপ যারা নিতে পারবে তারাই জিতবে।

    চলতি কোপায় দু’দলই অপরাজিত থেকে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছে।  ফুটবল ঘরানার বিচারে দু’দলেরই স্টাইল ও শৈলী প্রায় এক। তবে একে অপরের জাত শত্রু। এবারের টুর্নামেন্টে শুরু থেকেই আর্জেন্তিনার ডিফেন্সকে বেশ ভাল লেগেছিল। তবে গত ম্যাচে হঠাৎই তাঁদের খেলায় ছন্দপতন দেখা গিয়েছে। ওটামেন্ডিকে বেশ শ্লথ লাগল। পাশাপাশি দুই সাইড ব্যাকও বারবার গতিতে হার মানছিল। ডিফেন্ডার ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো না থাকাটা সমস্যা তৈরি করেছে। ব্রাজিলের বিরুদ্ধে কিন্তু এর পুনরাবৃত্তি ঘটলে বিপদ আছে। বিশেষ করে প্রতিপক্ষে নেইমারের মতো ফুটবলার থাকলে, আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে।

    সেই তুলনায় ব্রাজিলের ডিফেন্সকে বেশ জমাট। গোটা টুর্নামেন্টে মাত্র দু’বার পরাস্ত হয়েছে থিয়াগো সিলভা-মার্কুইনহোসরা। মাঝমাঠেও আর্জেন্তিনার তুলনায় ব্রাজিল দলে অনেক ভালে মানের ফুটবলার রয়েছে। ফ্রেড, কাসেমিরো, এভার্টনরা ইউরোপের সেরা ক্লাবের জার্সিতে খেলে। বড় ম্যাচে চাপ নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। তবে আপফ্রন্টে শক্তির বিচারে কিছুটা হলেও আর্জেন্তিনাই এগিয়ে। এর অন্যতম কারণ অবশ্যই মেসি।

    চলতি টুর্নামেন্টে দুরন্ত ছন্দে রয়েছে আর্জেন্তাইন মহাতারকা। দেশের জার্সিতে ট্রফি খরা কাটাতে সে যে কতটা মরিয়া, তা তাঁর পারফরম্যান্সেই পরিষ্কার। ব্রাজিল দলে নেইমার আছেন যিনি একটা ভুলেই শেষ করে দিতে পারেন প্রতিপক্ষকে। এছাড়াও লুকাস, রিচারলিসন, ফিরমিনো রয়েছে। জেসুস খেলতে না পারলেও গোল করার লোকের অভাব নেই ব্রাজিলে।

    আর্জেন্তিনার হয়ে লাওতারো মার্তিনেজ নিয়মিত গোল করছে। মিডফিল্ডার ডি' পল বল বাড়াতে পারে। এই একটি জায়গায় জেসুসের অভাব ব্রাজিলকে ভোগোচ্ছে। তবে ফাইনালের মতো মেগা ম্যাচে দুই স্ট্রাইকারে দল নামাতে পারেন আর্জেন্তিনার কোচ স্কালোনি। আগুয়েরোকে প্রথম থেকে মাঠে নামানো হতেই পারে। একই সঙ্গে প্রথম একাদশে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াকে রেখে শুরু করার ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

    ম্যাচ শুরু - রবিবার ভোর ৫ঃ৩০

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: