Home /News /south-bengal /
West Bengal Crime News|| কেঁদেই চলেছে দুধের সন্তান, দরজা খুলতেই কপালে উঠল চোখ! চন্দ্রকোনায় চাঞ্চল্য

West Bengal Crime News|| কেঁদেই চলেছে দুধের সন্তান, দরজা খুলতেই কপালে উঠল চোখ! চন্দ্রকোনায় চাঞ্চল্য

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

Undressed body recovered from chandrakona rape and murder allegedly: বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করতেই দেখেন পাড়ার গৃহবধূর মৃতদেহ পড়ে রয়েছে বাড়ির মেঝেতে, এলোমেলো পোশাক। আলমারির তালা ছিল খোলা। ২৫ বছর বয়সী সোমা পড়েছিলেন অর্ধনগ্ন অবস্থায়।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #চন্দ্রকোনা: অন্যান্য দিনের মতোই শুরু হয়েছিল জয়ন্তীপুরের বাসিন্দাদের সকাল। কিন্তু তাল কাটল বেলা বাড়তেই যখন সোমার সন্তান কেঁদেই যাচ্ছিল সকাল থেকে। প্রথমে পাড়ার অনেকেই ভেবেছিলেন স্বাভাবিকভাবেই অন্যান্য দিন বাচ্চাটা যেমন কাঁদে, তেমনই কোনও কারণে কাঁদছে, কিছুক্ষণ পরে হয়তো থেমে যাবে। কিন্তু তার কিছুক্ষণ পরে গোয়ালা দুধ দিতে এসে অনেক ডাকাডাকি করার পরেও বাড়ির বাইরে কেউ না আসায় সন্দেহ হয়। তারপরেই সামনে আসে সাঙ্ঘাতিক ঘটনা!

    প্রতিবেশীরা প্রথমে বুঝে উঠতে পারেনি যে ঘরের ভেতর ঢুকে এ রকম দেখতে হবে। বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করতেই দেখেন পাড়ার গৃহবধূর মৃতদেহ পড়ে রয়েছে বাড়ির মেঝেতে, এলোমেলো পোশাক। আলমারির তালা ছিল খোলা। ২৫ বছর বয়সী সোমা পড়েছিলেন অর্ধনগ্ন অবস্থায়। সারা দেহে স্পষ্ট আঘাতের চিহ্ন। দেহ ভেসে যাচ্ছিল রক্তে।

    আরও পড়ুন: ভরদুপুরে মেদিনীপুরে বাজারের মধ্যে ঘটল নৃশংস ঘটনা! সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল ভাইরাল ভিডিও...

    সাতসকালে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনার জয়ন্তীপুর এলাকায় এক গৃহবধুর বাড়ির মধ্যে মৃত্যু দেখে এমনই চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় চন্দ্রকোনা থানার পুলিশ। যদিও স্থানীয়দের অনুমান, ধর্ষণ করার পরে মেরে ফেলা হয়েছে সোমাকে। এরপর বাড়ির জিনিসপত্র লুট হয়েছে।

    আরও পড়ুন: অতিথিদের জন্য ভার্চুয়াল বিয়ে দেখা, হোম ডেলিভারিতে ভুঁড়িভোজ! করোনাকালে পথ দেখাচ্ছেন বর্ধমানের যুগল

    সোমার প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার জয়ন্তীপুরের বাসিন্দা গোবিন্দ পাল পেশায় সোনার কারিগর। পেশার তাগিদে দীর্ঘদিন থেকে বাড়ির বাইরে থাকেন। বছর দেড়েক মেয়েকে নিয়ে সোমা একাই বাড়িতে থাকতেন। আজ সকালে স্থানীয়রা জানতে পারে সকালে যখন গোয়ালা সোমার বাড়িতে দুধ নিতে আসে, তখন তাঁর সাড়া পাওয়া যায়নি, শুধু বাচ্ছা মেয়েটি কাঁদছিল ঘরের ভিতরে। প্রতিবেশীরা এসে দেখে বাড়ির দরজা খুলতেই চোখ কপালে ওঠে। শোওয়ার ঘরের মেঝেয় পড়েছিল সোমার দেহ, পাশে পড়েছিল সিগারেটের প্যাকেট এবং মদের বোতল।

    স্থানীয়রা জানায় যে আজ বাড়িতে আসার কথা সোমার স্বামীর গোবিন্দর। যদিও পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে চন্দ্রকোনা থানার পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে।

    Sukanta Chakraborty

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Crime News, West Medinipur

    পরবর্তী খবর