Home /News /south-bengal /
Rampurhat Violence: ভাদু শেখ খুনে এফআইআর দায়ের করল সিবিআই

Rampurhat Violence: ভাদু শেখ খুনে এফআইআর দায়ের করল সিবিআই

ভাদু খুন ও বগুটুই পরস্পর যুক্ত। ফলে হাই কোর্টের নির্দেশে এবার ভাদু খুনের তদন্তে সিবিআই 

  • Share this:

#কলকাতা : বগটুই মোড়ের কাছে একটি চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন বড়শাল পঞ্চায়েতের তৃণমূল উপপ্রধান নেতা ভাদু শেখ। সেই সময় তাঁকে বোমা মেরে খুন করে দুষ্কৃতীরা। ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই গ্রামের সাত-আটটি বাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। বগুটুইয়ে অগ্নিশংযোগে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনার পর এবার ভাদু শেখ খুনের ঘটনায় এফআইআর দায়ের করল সিবিআই। হাই কোর্টে নির্দেশে শুক্রবার সিবিআইকে ভাদু শেখ খুনের তদন্তের নির্দেশ দেয়। সেই নির্দেশের পরই তৎপর সিবিআই। তদন্তকারী আধিকারিকরা সঙ্গে সঙ্গে নথি, রাজ্য পুলিশের থেকে এফআইআর সংগ্রহ করে। তারপরই ভাদু শেখ খুনের এফআইআর দায়ের করল সিবিআই।

রাজ্য পুলিশের করা এফআইআর-এর  একই ধারায় এফআইআর করে সিবিআই।  সিবিআই সূত্রে খবর, ভাদু খুনের ঘটনায় 302 ( খুন ), 120 b ( ষড়যন্ত্র ), 3/4 E. S act (এক্সপ্লসিভ সাবস্টেন্স এক্ট ), 34 ( একসঙ্গে অনেকে মিলে সংগঠিত অপরাধ করা ) ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ভাদু শেখ খুনে রাজ্য পুলিশের হাতে গ্রেফতরা হয়েছে কয়েকজন, এখনও কয়েকজন অধরা। রামপুরহাট আদালতে ভাদু শেখ খুনে ৫ অভিযুক্তর সিবিআই হেফাজতের জন্য আবেদন করে সিবিআই । অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছে  সেরা শেখ, নুর ইসলাম ওরফে সঞ্জু,  রাজা শেখ, সফিকুল শৈখ ও ভাসান শেখ । ধৃতরা গ্রেফতার হওয়ার পর ১৪ দিন পুলিশ হেফাজতে ছিল । আজ সেই পুলিশ হেফাজত সম্পূর্ণ হয়েছে। ধৃতদের রামপুরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয় ।  ধৃত অভিযুক্তদের নিজেদের হেফাজতে নিয়ে তদন্ত করতে চেয়ে আদালতে আবেদন করে সিবিআই । সেই আবেদনের পরিপেক্ষিতে ধৃতদের ৪ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিলেন রামপুরহাট মহকুমা আদালতের অতিরিক্ত মুখ্য ও দায়রা বিচারক ।

আরও পড়ুন: 'আসানসোলে ভোট মিটলেই দরজা খুলব, খেলা এখনও শুরু হয়নি', কিসের ইঙ্গিত দিলেন অভিষেক?

সিবিআই সূত্রে খবর, দ্রুত তাঁরা ঘটনাস্থল ও ভাদুর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে বয়ান রেকর্ড করবে ।  এফআইআর-এর মাধ্যমে ভাদু শেখ খুনের তদন্তভার গ্রহণ করে কাজ শুরু করে দিল সিবিআই। ফরেন্সিক আধিকারিকরাও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করবে। অন্যদিকে, বগুটুই অগ্নিসংগযোগের ঘটনায় সিবিআই  মুম্বই থেকে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। মুম্বাই থেকে ধৃত বাপ্পা শেখ, সাবু শেখ, চাঁদ শেখ  ও পল্টু শেখ।  জানা যায়, আশ্রয়ের জন্য মুম্বইতে অভিযুক্ত  বাপ্পা, সাবু, চাঁদ শেখকে ডেকে নেয় পল্টু শেখ। সিবিআই-এর দাবি, পল্টু-ও  ষড়যন্ত্রতে সামিল, সে পুরো ঘটনাই জানত! বগুটুইকাণ্ডের পর অভিযুক্ত বাপ্পা, চাঁদ, সাবু-কে আত্মগোপন করতে সাহায্য করে পল্টু। পল্টু অভিযুক্তদের পুরোনো বন্ধু ।

আরও পড়ুন: শিল্পাঞ্চলের উন্নতিই পাখির চোখ, নির্বাচনী প্রচার থেকে সুর চড়ালেন শত্রুঘ্ন সিনহা

সিবিআই সূত্রে খবর, ঘটনায় অভিযুক্ত বাপ্পা, সাবু, চাঁদ শেখ ঘটনার পর ট্রেনে করে পালিয়েছিল মুম্বই। সিবিআইয়ের হাতে মুম্বই থেকে ধৃত ৪  অভিযুক্তকে শুক্রবার কলকাতা বিমানবন্দর হয়ে রামপুরহাট সিবিআই ক্যাম্প অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। সিবিআই-এর হাতে ধৃত বাপ্পা শেখ, সাবু শেখ , চাঁদ শেখ, পল্টু শেখ-দের সঙ্গে আনারুলের মুখোমুখি জেরার সম্ভবনা রয়েছে।  অভিযুক্ত ৪ জনকে সিবিআই নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জানার চেষ্টা করছে এই ঘটনায় আর কারা যুক্ত।

Arpita Hazra

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Rampurhat Violence

পরবর্তী খবর