দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেলে চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকার প্রতারণা! গ্রেফতার ৭

রেলে চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকার প্রতারণা! গ্রেফতার ৭

এই চক্রের সঙ্গে জড়িতরা রাজ্যজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে বলে তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে পুলিশ

  • Share this:

#বর্ধমান: রেলে চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকার প্রতারণা চক্রের হদিশ মিলল পূর্ব বর্ধমানে। এই চক্রের সঙ্গে জড়িতরা রাজ্যজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে বলে তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই ওই প্রতারণা চক্র বেশ কিছু বেকার যুবকের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এই ঘটনায় আগেই পাঁচজন গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। নতুন করে আরও দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের নাম দিবাকর রায় ও রাজেশ প্রামানিক।দিবাকর নিউ ব্যারাকপুর থানা এলাকার বাসিন্দা। রাজেশ বিজপুর থানা এলাকায় বাসিন্দা।

পূর্ব বর্ধমানের গুসকরা পুরসভা এলাকার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা সব্যসাচী মন্ডল নামে এক যুবক গত সোমবার আউশগ্রাম থানায় পূর্ণিমা দে ও তার স্বামী গোবিন্দ দের নামে রেলে গ্রুপ ডি চাকরির ব্যবস্হা করে দেবার জন্যে টাকা নিয়ে ভুয়ো নিয়োগ পত্র দেওয়ার লিখিত অভিযোগ করেন।

তিনি নিজে রেলে গ্রুপ ডি চাকুরির জন্য ৪ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা তাঁদের দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেন।

সব্যসাচী মন্ডলের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে আউশগ্রাম থানার পুলিশ। তদন্তকারী পুলিশ অফিসাররা প্রথমে পূর্ণিমা দে ও তার স্বামী গোবিন্দকে গ্রেফতার করে।পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধৃতদের জেরা করে জানতে পেরেছে,বেশ কয়েক জনের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়েছে তারা।দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ভৈরব বন্দোপাধ্যায় ও রতন রায়ের নাম জানতে পারে পুলিশ।

সোমবার রাতে গুসকরা এলাকা থেকে পুলিশ ভৈরব বন্দ্যোপাধ্যায়,রতন রায় ও পরে মতিলাল কোনার নামে আরও একজনকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ ভৈরব কে হেপাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে দিবাকর রায় ও রাজেশ প্রামানিকের নাম জানতে পারে পুলিশ। তারপরই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলাজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টিন হয়েছে। রাজ্যের অনেকেই চাকরি পাবার আশায় তাদের কাছে টাকা দিয়েছিলেন। সেই টাকা এখন কিভাবে ফেরত পাওয়া যাবে তা বুঝে উঠতে পারছেন না তাঁরা। পুলিশ জানিয়েছে, ঠিক কতজনের কাছ থেকে কত টাকা নেওয়া হয়েছিল, এই চক্রের সঙ্গে আর কারা কারা জড়িত তা জানতে ধৃতদের বিস্তারিতভাবে জেরা করা হবে।

Saradindu Ghosh

Published by: Ananya Chakraborty
First published: October 3, 2020, 3:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर