Home /News /south-bengal /
Hoogli Rape: ভিডিও ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে ছাত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ, কোন্নগরে গ্রেফতার ৪

Hoogli Rape: ভিডিও ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে ছাত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ, কোন্নগরে গ্রেফতার ৪

অভিযোগ, ধর্ষণের ভিডিও ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে ছাত্রীকে বারবার ধর্ষণ করে ৪ যুবক।

  • Share this:

    #হুগলি: কোন্নগর চটকল এলাকায় এক উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। অভিযোগ, ধর্ষণের ভিডিও ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে ছাত্রীকে বারবার ধর্ষণ করে ৪ যুবক।

    অভিযোগ, গত পয়লা মার্চ আকাশ জানা নামে স্থানীয় এক যুবক নিজের জন্মদিনের পার্টির নাম করে তরুণীকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায়! তার পর ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে শ্যুট করে রাখে। এর পর সেই ভিডিও ভাইরাল করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তরুণীকে ফের ধর্ষণ করে বাকি ৩ অভিযুক্ত। পরে তরুণীকে ধর্ষণ করার ভিডিও নেট দুনিয়ায় ছেড়ে দেয় অভিযুক্তরা। খুব কম সময়ে ভিডিওটি গোটা নেট মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

    ২দিন আগে স্থানীয় একটি মুদির দোকানে গিয়েছিলেন তরুণী! সেখানে দোকানের মালিক ভেঙ্কটেশ রাও তরুণীকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি দেখিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়। ঘটনার কথা জানাজানি হতেই মুদির দোকানের মালিক পলাতক।

    আরও পড়ুন: নৈহাটির ছায়া সোদপুরে! ঋণ নিয়ে গাড়ি কেনা কাল হল যুবকের, ভয়ঙ্কর পরিণতি

    এরপর আজ, বৃহস্পতিবার তরুনীর পরিবার শ্রীরামপুর মহিলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্তদের নাম পি শিবা রাও, ভি হরিশ, বি বিবেক ও আকাশ জানা। ৪ জনই স্থানীয় এলাকার বাসিন্দা, তাদের গ্রেফতার করেছে উত্তরপাড়া থানার পুলিশ। ধৃতদের বিরুদ্ধে 376D/354C/506/34 IPC ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ । ইতিমধ্যে পুলিশ তরুণীর বাড়ি থেকে প্রয়োজনীয় নথিপত্র বাজেয়াপ্ত করেছে। আগামিকাল ধৃতদের শ্রীরামপুর মহকুমা আদালতে তোলা হবে। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে অভিযুক্তদের কঠোর দাবিতে হুগলি জেলা DSO ছাত্র সংগঠন শ্রীরামপুর কোর্ট চত্তরে বিক্ষোভ দেখায়।

    আরও পড়ুন: শিক্ষিকাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে, বনগাঁয় গ্রেফতার শিক্ষক

    অন্যদিকে, এদিন মালদহে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ সামনে আসে। চার যুবকের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ নাবালিকার পরিবারের। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের বৈষ্ণবনগর থানার চরসুজাপুর এলাকায়। অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয় নির্জাতিতাকে। ঘটনায় দুই প্রতিবেশী যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পলাতক আরও দুই অভিযুক্ত। নাবালিকার পরিবারের অভিযোগ, রাতে জোর করে বাড়িতে ঢুকে মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় ৪ যুবক। নাবালিকাকে নিণে যাওয়া হয় অদূরেই একটি বাগানে। বৈষ্ণবনগর থানায় অভিযোগ দায়ে করে নির্জাতিতার পরিবার। আপাতত সরকারি হোমে রাখা হয়েছে ছাত্রীকে। অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবি ছাত্রীর পরিবারের। অপহরণ ও পকসো আইনে মামলা রুজু পুলিশের।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Hoogli

    পরবর্তী খবর