Home /News /south-bengal /
ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে আকাশ মেঘলা, হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি পূর্ব বর্ধমানে

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে আকাশ মেঘলা, হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি পূর্ব বর্ধমানে

বর্ধমান শহরের পাশাপাশি মেমারি, জামালপুর, গলসি, ভাতার দক্ষিণ দামোদর এলাকায় বৃষ্টি চলছে

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। সোমবার সকালেও কড়া রোদ উঠলেও তা মিলিয়ে যেতে বেশি সময় নেয়নি। তার বদলে ঘোলাটে মেঘে আকাশ ঢেকে যায়। বেলা বারোটা থেকে শুরু হয়েছে বৃষ্টি। দিনভর হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলছে। ঘূর্ণিঝড় ইয়াস যত এগিয়ে আসবে ততই বৃষ্টিপাতের মাত্রা ও তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে হাওয়ার গতিবেগ বাড়বে বলে মনে করছে আবহাওয়া দপ্তর। বর্ধমান শহরের পাশাপাশি মেমারি, জামালপুর, গলসি, ভাতার দক্ষিণ দামোদর এলাকায় বৃষ্টি চলছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার ইয়াসের ভালো প্রভাব পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে। ঝড়ের সঙ্গে ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণের সর্তকতা জারি করা হয়েছে। ব্লকে ব্লকে ত্রাণ শিবিরগুলিকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সেখানে ত্রিপল ও চিঁড়ে গুড় বিস্কুট সহ বিভিন্ন শুকনো খাবার মজুত করা হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতিতে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে যাতে দুর্গতরা আশ্রয় নিতে পারেন তার আগাম ব্যবস্থা করেছে জেলা প্রশাসন।

ঘুর্ণিঝড় ইয়াস নিয়ে ইতিমধ্যেই বিশেষ সতর্কীকরণ প্রচার করা হয়েছে কৃষি দফতরের পক্ষ থেকে। পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর সহ সব ব্লকেই এই প্রচার চলে।দামোদর তীরবর্তী জামালপুর ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় মাইক লাগিয়ে এই প্রচারাভিযান করা হয়।মূলত ঝড়ের সময় কি কি করণীয়, কোন কোন বিষয় সম্পর্কে গুরত্ব দিতে হবে তা প্রচার করা হয়।

পাশাপাশি ঝড় ও বৃষ্টির প্রভাবে কৃষিক্ষেত্রে ব্যপক প্রভাব পড়বে জানিয়ে অবিলম্বে চাষিদের কি কি করতে হবে, কোন বিষয়ে গুরত্ব দিতে হবে তাও প্রচার করা হয়।জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, শুধু জামালপুর ব্লকেই নয়, জেলার ২৩ টি ব্লকেই এই প্রচার করা হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলার প্রাক প্রস্তুতি হিসাবে। সোমবারও বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুতের তারের উপর ঝুঁকে পড়া গাছ কাটা হয় এর ফলে ঝড়ে বিদ্যুৎ বিপর্যয় বেশ কিছুটা এড়ানো যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Bardhaman, Cyclone Yaas, Rainfall

পরবর্তী খবর