Home /News /south-bengal /
Clash over pet dog: পোষা সারমেয়র আক্রমণ নিয়ে বিবাদ, ইটের আঘাতে নিহত ১

Clash over pet dog: পোষা সারমেয়র আক্রমণ নিয়ে বিবাদ, ইটের আঘাতে নিহত ১

রাজীবের পরিবারের অভিযোগ, বিপদ পটুয়া মাঝে মধ্যেই মদ্যপ অবস্থায় এসে তাদের সঙ্গে অশান্তি করত।

রাজীবের পরিবারের অভিযোগ, বিপদ পটুয়া মাঝে মধ্যেই মদ্যপ অবস্থায় এসে তাদের সঙ্গে অশান্তি করত।

Clash over pet dog: ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বিপদ পটুয়া-সহ ৬ জন কে গ্রেপ্তার করেছে বড়ঞা থানার পুলিশ।

  • Share this:

বড়ঞা : সারমেয়কে নিয়ে অশান্তির জেরে প্রতিবেশীর ছোঁড়া ইটের আঘাতে মৃত এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে বড়ঞা থানার কাঁতুর গ্রামে। মৃত যুবকের নাম রাজীব পটুয়া। গুরুতর আহত অবস্থায় রাজীব পটুয়াকে প্রথমে বড়ঞা গ্রামীণ হাসপাতালে ও পরে অবস্থার অবনতি হলে কলকাতার হাসপাতালে রেফার করা হয়। কিন্তু বুধবার ভোরে কলকাতা নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় রাজীবের। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বিপদ পটুয়া-সহ ৬ জন কে গ্রেপ্তার করেছে বড়ঞা থানার পুলিশ।

অভিযোগ, বড়ঞা থানার কাতুর গ্রামের বাসিন্দা বিপদ পটুয়ার বাড়ির একটি পোষা কুকুর প্রতিবেশী রাজীব পটুয়ার ভাইপোকে আক্রমণ করে। অভিযোগ, ওই সারমেয়টিকে ঢিল মেরে তাড়িয়ে দেওয়ায় দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ বাধে। আর তার পরই বিপদ পটুয়া হট ছুঁড়তে শুরু করলে একটি ইটে রাজীবের মাথায় আঘাত লাগে বলে অভিযোগ। গুরুতর আহত অবস্থায় রাজীবকে প্রথমে বড়ঞা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান পরিবারের লোকেরা। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাঁকে কান্দি মহকুমা হাসপাতালে ও পরে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে কলকাতার হাসপাতালে রেফার করা হয় রাজীব পটুয়াকে।

আরও পড়ুন : গাড়িতে উঠলেই অনেকে ঘুমিয়ে পড়েন, এর কারণ জানেন?

বুধবার ভোরে কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় রাজীবের। বড়ঞা থানার পুলিশ মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনায় মৃতের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। বড়ঞা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হলে মূল অভিযুক্ত বিপদ পটুয়া সহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে রাজীবের পরিবারের অভিযোগ, বিপদ পটুয়া মাঝে মধ্যেই মদ্যপ অবস্থায় এসে তাদের সঙ্গে অশান্তি করত।

আরও পড়ুন : প্রচুর জল পান করলেই ওজন কমে যায়? জলেই সেরে যায় সব অসুখ?

রাজীবের মা রেখা বলেন, ‘‘বিপদ সবসময় নেশা করে থাকত। আর আমাদের বাড়িতে এসে অশান্তি করত। আমার ছেলেকে খুন করা হয়েছে। আমি ওর কঠোর শাস্তি চাই।’’ রাজীবের ভাইয়ের স্ত্রী বৈশাখী পটুয়া বলেন,  ‘‘বিপদ পটুয়ার পোষা কুকুরটি আমার ছেলেকে তেড়ে এসেছিল। সেই কারণেই আমার ভাসুর ঢিল ছুড়ে সারমেয়টি তাড়িয়ে দেয়। আর তার পরই বিপদ পটুয়া মদ্যপ অবস্থায় আমাদের বাড়িতে এসে আমার ভাসুরকে মারধর করে। ছাদে উঠে একটা বড় ইট ছুড়ে মাথায় আঘাত করে। আমার ভাসরকে খুন করা হয়েছে। আমরা বিপদ পটুয়ার শাস্তি চাই।’’

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Clash, Crime

পরবর্তী খবর