"বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা হলে গাছে টাঙিয়ে দেব!" কালনায় বিতর্কিত মন্তব্য সাংসদ সুনীল মণ্ডলের

প্রসঙ্গত, এটাই ছিল সাংসদ সুনীল মন্ডলের বিজেপিতে যোগদানের পর দ্বিতীয় নির্বাচনী জনসভা।

প্রসঙ্গত, এটাই ছিল সাংসদ সুনীল মন্ডলের বিজেপিতে যোগদানের পর দ্বিতীয় নির্বাচনী জনসভা।

  • Share this:

#কালনা: "কর্মীদের গায়ে হাত পড়লে গাছে টাঙিয়ে দেব।" এই ভাষাতেই তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলেন প্রাক্তন শিক্ষক সাংসদ সুনীল মন্ডল। সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তিনি। বুধবার পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনায় বিজেপির নির্বাচনী জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া সাংসদ সুনীল মণ্ডল। সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই বিতর্কিত মন্তব্য করেন তিনি।

কালনার তালবোনায় নির্বাচনী জনসভার আয়োজন করেছিল বিজেপি। সেই সভায় স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সাংসদ সুনীল কুমার মণ্ডল বলেন, "একটা কথা পরিষ্কার বলে দিতে চাই, আমার কোনও কর্মীর গায়ে যদি হাত পড়ে তাহলে তাদের ছেড়ে কথা বলা হবে না।" এরপরই কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, "আপনারা শুধু মোবাইলে ছবিটা তুলে রাখবেন। পরে তাদের গাছে টাঙিয়ে দেব। তৃণমূলকে বলে রাখছি, প্রতিহিংসার রাজনীতি করতে বাধ্য করবেন না। আমার গাড়ি ভেঙেছ। কিন্তু কোনও কর্মীর গায়ে যদি হাত পড়ে তবে ছেড়ে কথা বলব না।"

প্রসঙ্গত, এটাই ছিল সাংসদ সুনীল মন্ডলের বিজেপিতে যোগদানের পর দ্বিতীয় নির্বাচনী জনসভা। মঙ্গলবার বর্ধমানের কুড়মুনে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে জনসভায় যোগ দিয়েছিলেন সুনীল কুমার মণ্ডল। সেদিন সেই সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখলেও এদিন কর্মী-সমর্থকদের সামনে আক্রমণাত্মক মেজাজেই ছিলেন সদ্য তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া এই সাংসদ। বরাবরই তিনি পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের বিরুদ্ধে তোপ দেগে আসছিলেন।

এদিন তিনি বলেন, "লিখে নিন ৫০ হাজার ভোটে স্বপন দেবনাথ হারবে। জেলার বেশিরভাগ আসনে জয়লাভ করবে বিজেপি রামনাম করতে করতে করতে দস্যু রত্নাকর বাল্মিকীতে পরিণত হয়েছিলেন। তেমনই জয় শ্রীরাম ধ্বনির মধ্য দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাম রাজ্যে পরিণত হবে।" এমনিতেই পূর্ব বর্ধমান জেলায় বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্র বিজেপির দখলে রয়েছে। বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস জয়ী হয়েছিল। এই কেন্দ্রের সাংসদ সুনীল কুমার মন্ডল। শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। একইসঙ্গে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু, মন্তেশ্বরের বিধায়ক সৈকত পাঁজা। রাজ্যের শস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত পূর্ব বর্ধমান জেলায় আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভালো ফল করার আশা দেখছে বিজেপি নেতৃত্ব। তাই এখানে নির্বাচনী সভায় জোর দেওয়া হচ্ছে। ঠিক এই পরিস্থিতিতে বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা হলে গাছে টাঙিয়ে দেওয়ার সাংসদের এই দাওয়াই রাজনৈতিক মহলে যথেষ্টই শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

Published by:Pooja Basu
First published: