corona virus btn
corona virus btn
Loading

মুশকিল আসান, সেপ্টেম্বর থেকে এক ক্লিকেই মিলবে জন্ম-মৃত্যুর শংসাপত্র, সৌজন্যে হাওড়া পুরসভা

মুশকিল আসান, সেপ্টেম্বর থেকে এক ক্লিকেই মিলবে জন্ম-মৃত্যুর শংসাপত্র, সৌজন্যে হাওড়া পুরসভা

ঘরে বসেই এবার জন্ম বা মৃত্যুর শংসাপত্রের জন্যে আবেদন করতে পারবেন সাধারণ মানুষ।

  • Share this:

#হাওড়া: করোনায় মৃত্যু ৩০০ ছাড়িয়েছে। তারমধ্যে অনেক ক্ষেত্রেই ডেথ সার্টিফিকেটে নাম, ঠিকানা ভুল হওয়ার ফলে নাজেহাল হতে হচ্ছে মৃতের পরিজনদের। বারেবারে হাওড়া পুরসভার সংশ্লিষ্ঠ দফতরে ছুটতে হচ্ছে পরিবারের মানুষদের। এছাড়াও বর্তমান কোভিড পরিস্থিতিতে ভিড় এড়াতে এবারে জন্ম ও মৃত্যুর রেজিস্ট্রেশন অনলাইন পদ্ধতিতে চালু করতে চলেছে হাওড়া পুরসভা।

ফলে ঘরে বসেই এবার জন্ম বা মৃত্যুর শংসাপত্রের জন্যে আবেদন করতে পারবেন সাধারণ মানুষ। করোনা পূর্ববর্তী পরিস্থিতিতে লাইন দিয়ে পুরসভার কর্মীদের সামনে গিয়ে নথিপত্র জমা করতে হত। কিন্তু বর্তমান কোভিড পরিস্থিতিতে এইভাবে সামনাসামনি এলে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে। পুরকর্মীদের মধ্যে সংক্রমন ঠেকাতে এই পদ্ধতি নিচ্ছে দ্রুত চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাওড়া পুরসভা। আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকেই এই ব্যবস্থা চালু হবে বলে আশা করছেন হাওড়া  পুরসভার পুর কমিশনার।

কয়েকদিন আগেই ফুলেশ্বরের সঞ্জীবন হাসপাতালে করোনায় মৃত্যু হয় হাওড়া বেলগাছিয়ার ‘জি’ রোডের এক বাসিন্দার। হাসপাতাল থেকে ডেথ সার্টিফিকেটে নামের পরে ঠিকানা লিখতে গিয়ে ‘জি’ রোডের পরিবর্তে জিটি রোড লেখা হয়। যেহেতু করোনায় মৃত্যুর ক্ষেত্রে হাসপাতালে পরিজনদের হাতে দেহ তুলে দেওয়া হচ্ছে না, তার ফলে অনেক সময়েই এই ধরনের ভুলভ্রান্তি হচ্ছে। সেই ভুল সংশোধন করতে কখনও হাসপাতালে কখনও পুরসভায় ছুটতে হচ্ছে মৃতের পরিজনদের। এই সমস্যা মেটাতে হাওড়া পুরসভা পুরো প্রক্রিয়াটি অনলাইনে করতে চলেছে।

এই ব্যবস্থার আগামীদিনে এই ধরনের কাজ করার কাজ অনেক সহজ হবে বলে মনে করছে পুরসভা। অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসেই ডেথ সার্টিফিকেটের জন্যে আবেদন করা যাবে। এমনকি আবেদনের পর থেকেই পুরো প্রক্রিয়াটির প্রতিটি পদক্ষেপ আবেদনকারী ঘরে বসেই অনলাইনে দেখতে পারবেন বলে জানান, পুরসভার পুর কমিশনার। তিনি আরও জানান , ইতিমধ্যেই হাওড়া পুরসভার কিছু কর্মীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। কলকাতা পুরসভার কাছে প্রয়োজনে কারিগরী সহায়তা নেওয়া হবে।

Debasish Chakraborty

Published by: Shubhagata Dey
First published: August 19, 2020, 11:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर