হোম /খবর /বর্ধমান /
উড়ালপুল হয়নি, রেল গেটে থমকে যাচ্ছে জাতীয় সড়কের যান চলাচল

উড়ালপুল হয়নি, রেল গেটে থমকে যাচ্ছে জাতীয় সড়কের যান চলাচল

Representational Image

Representational Image

সাধারণ মানুষের মতে রেলগেটের ওপর উড়ালপুল তৈরি হলে যাতায়াতের খুব সুবিধা হবে। কিন্তু কবে তৈরি হবে উড়ালপুল? কবেই বা যান যন্ত্রনা থেকে মুক্তি মিলবে এই জাতীয় সড়কে? সেদিনের অপেক্ষায় বাসিন্দারা।

  • Last Updated :
  • Share this:

বর্ধমান: হাসপাতালে যাওয়ার পথে রেল গেটে দীর্ঘ ক্ষণ আটকে ছিল সদ্যোজাত ও সদ্যপ্রসবা। আরও কিছুক্ষণ আটকে থাকলে জীবন সংকট দেখা দিতে পারতো তাদের। রবিবারের এই ঘটনা আবার উস্কে দিল রেল গেটে উড়ালপুলের দাবি।

নামে জাতীয় সড়ক। পোশাকি নাম এন এইচ টু বি। চলতি কথায় বর্ধমান সিউড়ি রোড। বর্ধমান শহর থেকে পাঁচ কিলোমিটার গেলেই তালিত রেল গেট। বর্ধমান আসানসোল শাখার এই লাইনে ট্রেনের চাপ খুব বেশি। বেশ কয়েক জোড়া লোকাল ট্রেনের পাশাপাশি চব্বিশ ঘণ্টা ছুটছে বিভিন্ন দূরপাল্লার ট্রেন,মালগাড়ি। ফলে একবার গেট পড়লে দীর্ঘক্ষণ থমকে যায় জাতীয় সড়কে যান চলাচল। রেল গেটের দু’পাশে তখন লম্বা যানজট। তার মধ্যেই আটকে পড়ে সংকটাপন্ন রোগী নিয়ে হাসপাতালের দিকে ছুটতে চাওয়া অ্যাম্বুলেন্স।

রবিবার সকালে তেমনই বিপদের মধ্যে পড়েছিল বিজয় দাসের পরিবার। তাঁর স্ত্রী মন্দিরা দাসের প্রসব বেদনা দেখা দেওয়ার তাঁকে পিলখানা গ্রাম থেকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। পথেই হলদি দে পাড়ার কাছে সন্তানের জন্ম দেন তিনি। এরপর তড়িঘড়ি হাসপাতালে যাওয়ার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়ায় এই রেল গেট। দীর্ঘক্ষণ এই গেটে আটকে থাকতে হয় তাদের।

জাতীয় সড়কে বর্ধমান থেকে ভেদিয়ার মধ্যে তালিত রেলগেট এবং ভেদিয়ায় রেল ফুকো যাত্রীদের নিত্য দুর্ভোগের কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে।বেশ কয়েক বছর ধরে জাতীয় সড়কের এই দু’জায়গায় উড়ালপুল তৈরির পরিকল্পনা হলেও তা আজ পর্যন্ত বাস্তবায়িত হয়নি। ফলে দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছেন রোগী থেকে সাধারন মানুষ সকলেই। অভিযোগ, দীর্ঘক্ষণ রেল গেট বন্ধ থাকায় হাসপাতালে নিয়ে যাবার আগে রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হয়েছে। আবার দীর্ঘক্ষন রেলগেট বন্ধ থাকায় যানজট নিত্যসঙ্গী।সেই জট ঠেলে যেতে দীর্ঘ সময় লেগে যায়। এখন বিধিনিষেধের কারণে বেশিরভাগ ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকাতেও দীর্ঘক্ষণ রেলগেট বন্ধ থাকে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, বর্ধমান থেকে বীরভূম যাওয়া এন.এইচ.২বি রাস্তাটি খুবই ব্যস্ততম। এই ব্যস্ত রাস্তার ওপর তালিত রেলগেট দিনের বেশির ভাগ সময় বন্ধ থাকায় দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হয় যাত্রী থেকে রোগী, প্রত্যেককেই।

সাধারণ মানুষের মতে রেলগেটের ওপর উড়ালপুল তৈরি হলে যাতায়াতের খুব সুবিধা হবে। কিন্তু কবে তৈরি হবে উড়ালপুল? কবেই বা যান যন্ত্রনা থেকে মুক্তি মিলবে এই জাতীয় সড়কে? সেদিনের অপেক্ষায় বাসিন্দারা।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Bardhaman