হু হু করে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে গ্রামেও, পূর্ব বর্ধমান জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ালো ৩০ হাজার

কার্যত লকডাউন তাও সংক্রমণের গ্রাফ উর্ধ্বমুখী৷

কার্যত লকডাউন তাও সংক্রমণের গ্রাফ উর্ধ্বমুখী৷

  • Share this:

# পূর্ব বর্ধমান: জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা তিরিশ হাজার ছাড়িয়ে গেল। গত চব্বিশ ঘণ্টায় এই জেলায় ৬১১ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। জেলায় অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৭৩৯ জন। এই জেলায় ২৪ হাজার ৩১৫ জন করোনা আক্রান্ত চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

লকডাউন চললেও জেলার পৌর শহরগুলিতে প্রতিদিনই অনেকেই নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় বর্ধমান পৌরসভা এলাকায় ৯৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও কালনা পৌরসভা এলাকায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ জন। কাটোয়া পৌরসভা এলাকায় ১৭ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মেমারি পৌরসভা এলাকায় ১৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। দাঁইহাট পৌরসভা এলাকায় আক্রান্ত হয়েছেন 8 জন। এছাড়া গুসকরা পৌরসভা এলাকায় নতুন করে চারজন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে।

উদ্বেগজনক ভাবে গ্রামীণ এলাকাতেও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। কালনা এক নম্বর ব্লকে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ জন। কালনা দু নম্বর ব্লকে ২৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কাটোয়া এক নম্বর ব্লকের ১৬ জন ও কাটোয়ার দু'নম্বর ব্লকে ১৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। জামালপুর ব্লকের করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২২ জন। গলসি এক নম্বর ব্লকে ২৪ জন ও গলসি দু'নম্বর ব্লকে তিনজন আক্রান্ত হয়েছেন। বর্ধমান এক নম্বর ব্লকে ৩৩ জন ও বর্ধমান দু'নম্বর ব্লকে ২৪ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভাতার ব্লকে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ জন। আউশগ্রাম এক নম্বর ব্লকে আটজন ও আউশগ্রাম দু'নম্বর ব্লকে ১৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মেমারি এক নম্বর ব্লকের ২৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মেমারি দু'নম্বর ব্লকে আক্রান্ত হয়েছেন চারজন। খণ্ডঘোষ ব্লকের ১৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মন্তেশ্বর ব্লকের আক্রান্ত হয়েছেন ন জন। কেতুগ্রাম এক নম্বর ব্লকেও ন জন আক্রান্ত হয়েছেন। কেতুগ্রাম দু নম্বর ব্লকে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ জন। মঙ্গলকোট ব্লকে ১৩ জন, পূর্বস্থলী এক নম্বর ব্লকের ১৬ জন, পূর্বস্থলী দু'নম্বর ব্লকে ৯ জন, রায়না এক নম্বর ব্লকে ২৫ জন, রায়না দু'নম্বর ব্লকে ১৫ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: