হোম /খবর /বর্ধমান /
তৃতীয় ঢেউ কি আসন্ন? বর্ধমান মেডিকেলে ভর্তি হচ্ছে করোনা আক্রান্ত শিশুরা

Coronavirus: তৃতীয় ঢেউ কি আসন্ন? বর্ধমান মেডিকেলে ভর্তি হচ্ছে করোনা আক্রান্ত শিশুরা

শিশুদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় আলাদা করে পরিকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনার তৃতীয় ঢেউ কি আসন্ন? পূর্ব বর্ধমান জেলায় শিশুদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ সেই আশঙ্কাই তৈরি করেছে। প্রতিদিনই একাধিক শিশু করোনা আক্রান্ত হয়ে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। তাদের মধ্যে সদ্যোজাত শিশুও রয়েছে। অনেক শিশুরই শ্বাসকষ্ট দেখা দিচ্ছে। তখন তাদের অক্সিজেন দিতে হচ্ছে। সব মিলিয়ে শিশুদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ উদ্বেগের কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে।

শিশুদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় আলাদা করে পরিকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। আপাতত এই হাসপাতলে করোনা আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্য 40 টি বেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কুড়িটি বেড রয়েছে কোভিড আক্রান্ত শিশুদের জন্য। বাকি কুড়িটি বেড রয়েছে শ্বাসকষ্ট ও করোনার উপসর্গ থাকা শিশুদের জন্য।

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত দু সপ্তাহ ধরেই করোনা আক্রান্ত শিশুদের ভর্তি হবার ঘটনা ঘটছে। এদিন পর্যন্ত 60 টিরও বেশি শিশু করোনা আক্রান্ত হয়ে এই মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। হাসপাতালে ডেপুটি সুপার কুনালকান্তি দে জানান, প্রথমদিকে গড়ে প্রতিদিন সাত-আটটি করে শিশু করোনা আক্রান্ত হয়ে এই মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছিল। অনেক শিশু শ্বাসকষ্ট নিয়েও ভর্তি হয়েছে। কোভিড পজিটিভ শিশুদের করোনা ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।সেখানে কুড়িটি বেড রয়েছে। এছাড়াও সারি ওয়ার্ডে শিশুদের জন্য কুড়িটি বেড রয়েছে। শ্বাসকষ্টের উপসর্গ রয়েছে এমন শিশুদের সেখানে রাখা হচ্ছে।

করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের যে আশঙ্কা রয়েছে তা মাথায় রেখে প্রয়োজনে শিশু ওয়ার্ডে করোনা আক্রান্ত শিশুদের জন্য বেড ও পরিকাঠামো বাড়ানো হবে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে এদিন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে ছয় শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তবে গত কয়েকদিনে দৈনিক আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা কমেছে। শুক্রবারও করোনা আক্রান্ত হয়ে তিন শিশু ভর্তি হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের বয়স এক বছরের ওপরে। বাকি দুই শিশুর বয়স এক বছরের নিচে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সদ্যোজাতরাও করোনা আক্রান্ত হচ্ছে। দুদিনের শিশু করোনা আক্রান্ত হয়েছে এমন নজিরও রয়েছে। তবে করোনা আক্রান্ত প্রতিটি শিশুকেই যাতে সুস্থ করে বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া যায় সেটাই এখন আমাদের একমাত্র লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ডেপুটি সুপার।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published:

Tags: Coronavirus, COVID19