Oxygen Cylinder Black-Marketing: কালোবাজারির চেষ্টা! মেমারি থেকে ফের ৪৭টি অক্সিজেন সিলিন্ডার উদ্ধার

মোটা টাকা মুনাফা লোটার উদ্দেশ্যেই মেমারিতে এই অক্সিজেন সিলিন্ডারগুলি মজুত করা হয়েছিল বলে প্রাথমিক তদন্তে মনে করছে পুলিশ।

মোটা টাকা মুনাফা লোটার উদ্দেশ্যেই মেমারিতে এই অক্সিজেন সিলিন্ডারগুলি মজুত করা হয়েছিল বলে প্রাথমিক তদন্তে মনে করছে পুলিশ।

  • Share this:

বর্ধমান: ফের উদ্ধার ৪৭ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার।উদ্ধার করলো মেমারি থানার পুলিশ। পূর্ব বর্ধমানের মেমারি ২ ব্লকের পাহাড়হাটি এলাকায় একটি গুদাম ঘর থেকে এই সাতচল্লিশটি জাম্ব অক্সিজেন সিলিন্ডার বাজেয়াপ্ত করলো মেমারি থানার পুলিশ। সিলিণ্ডারগুলি জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের হাতে তুলে দেওয়া হবে। এই করোনা পরিস্থিতিতে অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যাপক চাহিদা তৈরি হয়েছে। অনেক করোনা আক্রান্ত অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন। অক্সিজেনের জন্য হাহাকার চলছে চতুর্দিকে। ঠিক তখন কালোবাজারি করার জন্য প্রচুর সংখ্যায় অক্সিজেন সিলিন্ডার মজুত করে রাখছে একশ্রেণীর অসাধু ব্যক্তি। এই সুযোগে মোটা টাকা মুনাফা লোটার উদ্দেশ্যেই মেমারিতে এই অক্সিজেন সিলিন্ডারগুলি মজুত করা হয়েছিল বলে প্রাথমিক তদন্তে মনে করছে পুলিশ।

গত রবিবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মেমারি দুই নম্বর ব্লকের পাহাড়হাটি থেকে ১০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার বাজেয়াপ্ত করে মেমারি থানার পুলিশ। পরে আরও ৪টি অক্সিজেন সিলিন্ডার বাজেয়াপ্ত করা হয়। সোমবার অভিযুক্ত দীপঙ্কর দত্তকে বর্ধমান আদালতে তোলা হলে চার দিনের পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,বুধবার সকালে অভিযুক্ত দীপঙ্কর দত্তকে সঙ্গে নিয়ে মেমারী থানার ওসি দেবাশিস নাগের নেতৃত্বে ফের অভিযান চালায় পুলিশ।পাহাড়হাটি এলাকায় একটি গোডাউন থেকে আরও ৪৭ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার উদ্ধার হয়।পুলিশ সূত্রে খবর উদ্ধার হওয়া অক্সিজেন সিলিন্ডারগুলোকে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের হাতে তুলে দেওয়া হবে। তদন্তকারী পুলিশ অফিসারদের সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত দীপঙ্কর দত্ত কে হেফাজতে নিয়ে দীর্ঘ জেরা করা হয় তখনই সে আরো একটি গোডাউনে প্রচুর সংখ্যক অক্সিজেন সিলিন্ডার থাকার কথা স্বীকার করে এরপরই অভিযান চালিয়ে এই সাতচল্লিশটি অক্সিজেন সিলিন্ডার বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

জেলার অ্যাম্বুলেন্স চালকদের একটা অংশ বেআইনিভাবে বাড়িতে অক্সিজেন সিলিন্ডার মজুদ করে রেখেছে বলে খবর ছিল পুলিশের কাছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে কালনা থানার পুলিশ সাতটি অক্সিজেন সিলিন্ডার বাজেয়াপ্ত করে। বেআইনিভাবে অক্সিজেন সিলিন্ডার মজুতের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারপরই মেমারিতে রান্নার গ্যাসের গোডাউনের মধ্য থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডার উদ্ধার করে পুলিশ।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: