• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • BABUL SUPRIYO BJP MP ON SOCIAL MEDIA SHOWS GRATITUDE FOR SENDING COMPASSIONATE MESSAGES SANJ

Babul Supriyo : সমবেদনার বহরে প্রাণ ওষ্ঠাগত, নেটমাধ্যমে যা লিখলেন বাবুল...

'মেসেজের বহরে অবাক' Photo : File Photo

৭ বছর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকার পর বুধবারের রদবদলে (Cabinet Reshuffle) বাদ তারকা রাজনীতিবিদ বাবুল সুপ্রিয়(Babul Supriyo)। সমবেদনা জানাতে তাই মেসেজ করেছেন অনেকেই।

  • Share this:

    #কলকাতা : কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্ব (Cabinet Ministry) থেকে পদত্যাগ করেছেন বাবুল সুপ্রিয়(Babul Supriyo)। বুধবার নিজেই সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছেন, তাঁকে পদত্যাগ করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। এরপর থেকেই বাবুল সুপ্রিয়কে(Babul Supriyo) কেন্দ্র করে রাজনৈতিক চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে বিভিন্ন মহলে। দলীয় তরফেও তাঁর এই ঘোষণা নিয়ে দিলীপ ঘোষদের (Dilip Ghosh) তির্যক মন্তব্য শোনা গিয়েছে। তবে তাতেও যে দমবার পাত্র নন আসানসোলের সাংসদ (Babul Supriyo)। আজ ফের ফেসবুক পোস্ট দিয়েছেন সাত বছর পরে মন্ত্রিত্ব থেকে সরে দাঁড়াতে হয়েছে । সমবেদনা জানাতে তাই মেসেজ করেছেন অনেকেই। মেসেজের উত্তর দিতেই এদিন মুখপুস্তিকায় মুখ খোলেন বাবুল (Babul Supriyo)। ধন্যবাদ জানান যাঁরা তাঁকে সমবেদনা জানিয়েছেন, তাঁদের সকলকে।

    ফেসবুকে একটি পোস্ট করে বৃহস্পতিবার সকালে বাবুল সুপ্রিয় লিখেছেন, 'অত্যন্ত 'আনন্দের সাথে' যাঁরা আমাকে 'সমবেদনা' জানাচ্ছেন (Condolence message পাঠাচ্ছে) তাঁদের মন থেকে ধন্যবাদ জানাই। মন্ত্রী থাকার সময়, সাত বছরেও এতো MESSAGE পাইনি।' কার্যত কিছুটা মজা করেই যে বিজেপির প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা গায়ক বাবুল সুপ্রিয় এই মন্তব্য করেছেন তা তাঁর 'ইমোজি'র ব্যবহার দেখেই মালুম করা যায়। শেষে অবশ্য এইভাবে 'ফেসবুকের' মাধ্যমে কৃতজ্ঞতা জানানোর জন্য ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়।

    ২০১৪ আসানসোল শিল্পশহর থেকে জয় ছিনিয়ে বিজেপি সাংসদ হয়েছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। দক্ষিণবঙ্গের একমাত্র বিজেপি সাংসদ হয়েছিলেন তিনি। তারপর হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী। এমনকি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দ্বিতীয় দফায় আসার পরেও বাবুলকে নিরাশ করেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় টিকে গিয়েছিলেন বাবুল। ৭ বছর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকার পর বুধবারের রদবদলে (Cabinet Reshuffle) বাদ পড়লেন এই তারকা রাজনীতিবিদ। তাঁকে ইস্তফা দিতে বলা হয় বলেই তিনি জানিয়েছেন। দলের সিদ্ধান্তে স্পষ্টতই বেশ দুঃখ পেয়েছেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ। ফেসবুকে তা গোপনও করেননি।

    তিনি তাঁর ফেসবুক পোস্টে গতকাল লেখেন,'সংবাদ মাধ্যমের বন্ধুরা আমাকে স্নেহ করেন। তাঁদের ফোন তুলতে পারছি না। নিজেই জানিয়ে দিচ্ছি, হ্যাঁ মন্ত্রিসভা থেকে আমি ইস্তফা দিয়েছি। (আমাকে ইস্তফা দিতে বলা হয়েছিল। বিষয়টি ঠিক এমনটা নয়) মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে দেশের সেবা করার সুযোগ দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। দুর্নীতির দাগ না নিয়ে চলে যাচ্ছি। এটা অত্যন্ত খুশির।'

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: