• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • AT LEAST 42 TRAIN MAY RUN IN HOWRAH BARDHAMAN MAIN AND CHORD LINE FROM 11TH NOVEMBER SDG

দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান, হাওড়া-বর্ধমান কর্ড ও মেন শাখায় বুধবার থেকে ৪২ লোকাল ট্রেন, রইল বিস্তারিত...

ফাইল ছবি।

নিত্যযাত্রী-সহ অনেকেরই অপেক্ষার দিন শেষ হতে চলেছে। আগামী বুধবার থেকেই বর্ধমান হাওড়া কর্ড ও মেন শাখায় শুরু হতে চলেছে লোকাল ট্রেন চলাচল।

  • Share this:

#বর্ধমান: নিত্যযাত্রী-সহ অনেকেরই অপেক্ষার দিন শেষ হতে চলেছে। আগামী বুধবার থেকেই বর্ধমান হাওড়া কর্ড ও মেন শাখায় শুরু হতে চলেছে লোকাল ট্রেন চলাচল। রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমান হাওড়া কর্ড শাখায় ২২টি ও বর্ধমান হাওড়া মেন শাখায় ২০টি ট্রেন চলাচল করবে। এছাড়াও বর্ধমান কাটোয়া শাখায় আরও আটটি ট্রেন দেওয়া হয়েছে। এই ৮টি ট্রেন বলগোনা হয়ে কাটোয়া পর্যন্ত চলাচল করবে। এর ফলে কাটোয়া মহকুমার হাজার হাজার যাত্রী বিশেষভাবে উপকৃত হবেন।

করোনা পরিস্থিতির কারণে লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন অনেকেই। বহু মানুষের রুটিরুজি ট্রেন চলাচলের উপর নির্ভরশীল। কয়েক হাজার হকার লোকাল ট্রেনে জীবিকা নির্বাহ করেন। প্রতিটি রেল স্টেশন এলাকাতেই অগুনতি মানুষ নানান সামগ্রির পসরা সাজান। ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় তাদের উপার্জন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল অনেকেই উপায়ন্তর না দেখে নতুন পেশায় নিজেদের যুক্ত করে কোন রকমে দিন গুজরান করছিলেন। ট্রেন চলাচল শুরু হলে উপকৃত হবেন তাদের অনেকেই। চিকিৎসার প্রয়োজনে থেকে নানান কাজে ট্রেনই ছিল অনেকের কাছে একমাত্র ভরসা তাতে আর্থিক এবং সময় দুইয়েরই সাশ্রয় হয় ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় অনেকেরই চিকিৎসা কাজ থমকে গিয়েছে। ট্রেন চলাচল শুরু হতে চলায় সমস্যা মিটতে চলেছে তাদের।

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনার সংক্রমণ আটকে ট্রেন চালানো একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে। ট্রেন চলাচলের মধ্য দিয়ে সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় তা নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যবিধির ওপর সবচেয়ে বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে। সেজন্য ট্রেনের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে। তিনজনের বসার সিটে বসতে পারবেন দুজন। মাঝের সিটে ক্রস চিহ্ন আঁকা থাকবে। রেলের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, করোনার সংক্রমণ মাঝেই ট্রেন চলাচল শুরু করতে হচ্ছে। তাই যাত্রী সুরক্ষার উপর সবচেয়ে বেশি জোর দিতে দেওয়া হচ্ছে। দুটি সিটের মাঝে একটি সিট ফাঁকা রাখা হচ্ছে। এতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব হবে। এই ব্যবস্থা মেনে চলার জন্য যাত্রীদের কাছে অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

Saradindu Ghosh

Published by:Shubhagata Dey
First published: