Home /News /purba-bardhaman /
East Bardhaman News: পুলিশ ভ্যানের দরজা খুলতেই চম্পট! উধাও বিচারাধীন বন্দী! হুলুস্থুলু কাণ্ড!

East Bardhaman News: পুলিশ ভ্যানের দরজা খুলতেই চম্পট! উধাও বিচারাধীন বন্দী! হুলুস্থুলু কাণ্ড!

পুলিশের অসাবধানতার জেরে পালিয়ে গেল বিচারাধীন বন্দী। বন্দীর খোঁজে শহরজুড়ে তল্লাশি পুলিশের।

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান: পুলিশের অসাবধানতার জেরে পালিয়ে গেল বিচারাধীন বন্দী। বর্ধমানের কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের ২৫জন বিচারাধীন বন্দীকে চিকিৎসার জন্য বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে, সেখান থেকে পালিয়ে যায় একজন বন্দী। যদিও পালানোর চেষ্টা করেছিল দুজন, তবে এর মধ্যে একজনকে ধরা গেলেও আরেকজনকে এখনও পর্যন্ত ধরা সম্ভব হয়নি। ওই বন্দীর খোঁজে শহরজুড়ে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

    বর্ধমান হাসপাতালের আউটডোরের সামনে থেকে পালিয়ে যায় ওই বন্দী। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পলাতক বন্দীকে হাসপাতালের আউটডোরে সার্জারি বিভাগে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। প্রিজন ভ্যান থেকে নামাবার সময় পুলিশের চোখে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যায় জেলের বন্দী গৌরব কুমার। জেল সূত্রে জানা গিয়েছে, গৌরব কুমারকে চিকিৎসার জন্য আসানসোল থেকে বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে পাঠানো হয়েছিল। এদিন ২৫জন বন্দীর সঙ্গে গৌরব কুমারকেও বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে।

    আরও পড়ুন- জানেন, কোন কোন কোর্স পড়ানো হয় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে? রইল সেই তালিকা

    প্রতক্ষ্যদর্শী জানান, একটি পুলিশের গাড়ির পেছন থেকে হঠাৎ করে একটি ছেলে ছুটে পালাচ্ছিল। পুলিশ তাকে ধাওয়া করে। ঠিক সেই সময়ই সুযোগ বুঝে উল্টোদিক থেকে আরেক বন্দী পালিয়ে যাচ্ছিল। তাকে পুলিশ ধরে ফেলে।

    আরও পড়ুন- প্লাস্টিকে ভরা নবজাতকের মৃতদেহ! তুমুল শোরগোল কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে!

    এই নিয়ে বর্ধমান সদর উত্তরের মহকুমা শাসক তীর্থঙ্কর বিশ্বাস জানিয়েছেন, বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে বর্ধমানের কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের একজন বন্দী মিসিং হয়েছে। জেল কর্তৃপক্ষকে বর্ধমান থানায় অভিযোগ জানাতে বলা হয়েছে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হাসপাতাল জুড়ে।

    বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের সুপার স্বপন কুমার রায় জানিয়েছেন, ২৫জন বিচারাধীন বন্দীকে চিকিৎসার জন্য বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকে গৌরব কুমার নামে একজন বন্দী পালিয়েছে। আরো একজন পালানোর চেষ্টা করলে তাকে ধরে ফেলে পুলিশ। তারা এই বিষয় বর্ধমান থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন।

    Malobika Biswas
    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Burdwan Medical College and Hospital, East Bardhaman, Prisoners

    পরবর্তী খবর