Home /News /purba-bardhaman /
East Bardhaman News: সাধু উদ্যোগ! স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির আয়োজন করলেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক

East Bardhaman News: সাধু উদ্যোগ! স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির আয়োজন করলেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক

title=

বাবা ও মায়ের নামে ট্রাস্ট গঠন করেছেন এই প্রাক্তন কলেজ শিক্ষক। অনাথ আশ্রম ও স্কুলও তৈরি করছেন দুঃস্থদের জন্য। 

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান:  সম্পূর্ণ নিজের উদ্যোগে দীর্ঘদিন ধরে চালিয়ে যাচ্ছেন সমাজসেবা মূলক কাজ। কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন উৎপল রায়। ২০১০ সালে অবসর নেন তিনি। এরপর থেকেই শুরু করেন সমাজসেবা মূলক কাজ। বাবা ও মা-এর নামে তিনি তৈরি করেন অসিত কমলা ট্রাস্ট এস্টেট। এই বিশিষ্ট সমাজসেবী উৎপল রায়ের উদ্যোগে ভাতারের শকড়া গ্রামে তৈরি হচ্ছে একটি অনাথ আশ্রম ও স্কুল। সেখানে বিনামূল্যে পরিষেবা পাবেন সাধারণ মানুষ।

    শুধু অনাথ আশ্রম ও স্কুলই তৈরি করছেন না, বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরেরও আয়োজন করেছেন তিনি। বর্ধমানের বিশিষ্ট চিকিৎসকদের উপস্থিতিতে এলাকায় শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে এই শিবিরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে আসেন এদিন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বামুনাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান মনোয়ার ইসলাম সহ বিশিষ্টজনেরা। এই উদ্যোগের প্রশংসা করেন উপপ্রধান।

    আরও পড়ুন- পুলিশ ভ্যানের দরজা খুলতেই চম্পট! উধাও বিচারাধীন বন্দী! হুলুস্থুলু কাণ্ড!

    সংস্থার কর্ণধার প্রাক্তন কলেজ শিক্ষক উৎপল রায় জানান, শকরা গ্রামের হাটপুকুর পাড় এলাকায় একটি অনাথ আশ্রম ও একটি স্কুল গড়ে তোলার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। নির্মাণকাজ চলছে। এই প্রতিষ্ঠান থেকে স্থানীয় মানুষজন বিনামূল্যে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরিষেবার সুযোগ পাবেন। আর এদিন সেই স্থান থেকেই বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার সুযোগ পেলেন স্থানীয়রা।

    আরও পড়ুন- জানেন, কোন কোন কোর্স পড়ানো হয় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে? রইল সেই তালিকা

    স্থানীয়রা বলেন, "এভাবে নিজের উদ্যোগে উৎপল রায়ের এই কাজ সত্যি প্রশংসনীয়। দুঃস্থদের কথা ভেবে তিনি যে উদ্যোগ নিয়েছেন, তার কোনও তুলনা হয় না।" সব সময়ে বর্ধমানে গিয়ে চিকিৎসা করানোর সুযোগ থাকে না তাদের। তবে বর্ধমান হাসপাতালের চিকিৎসকরা এসে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করায় খুব উপকৃত হয়েছেন তাঁরা।

    Malobika Biswas

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: East Bardhaman, Health Camp, Kalyani University, Teacher

    পরবর্তী খবর