CAA বিরোধী আন্দোলনে অশান্ত মালদা, স্টেশন ভাঙচুর, আগুন, ট্রেনে হামলা ,অবরুদ্ধ জাতীয় সড়ক

নিজস্ব চিত্র ৷

  • Share this:

SEBAK DEBSARMA #মালদহ: CAA বিরোধী আন্দোলনের জেরে উত্তপ্ত উত্তরের জেলা মালদহ । উত্তেজিত বিক্ষোভকারীরা ব্যাপক ভাঙচুর চালালো মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর স্টেশনে। হামলা চালানো হয় কাটিহার-মালদা প্যাসেঞ্জার ট্রেনে। রেললাইনে আগুন জ্বালিয়ে চলে বিক্ষোভ। হরিশ্চন্দ্রপুরের পাশাপাশি বিক্ষোভের আঁচ মালদহের কালিয়াচকেও। ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের চৌরঙ্গী মোড়ে রাস্তায় আগুন জ্বেলে শুরু হয় বিক্ষোভ-অবরোধ। এই অবরোধ কর্মসূচিতে সামিল হয় কয়েক হাজার মানুষ। বিক্ষোভের জেরে বন্ধ হয়ে যায় উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের সড়ক যোগাযোগ। CAA নিয়ে রাজ্য জুড়ে হিংসা ছড়িয়ে পড়ার ঘটনায় বিশেষভাবে সতর্ক করা হয়েছিল মালদা জেলা পুলিশকে । সেই মতো ব্যবস্থা নেয় পুলিশ। কিন্তু এরপরেও মালদহে ঠেকানো গেল না হিংসা । শনিবার দুপুর থেকে দফায় দফায় হিংসা ছড়ায় মালদহের কালিয়াচক, হরিশ্চন্দ্রপুর, দারিয়াপুর সহ বিভিন্ন এলাকায় ৷ আন্দোলনের জেরে দুর্ভোগের মধ্যে পড়েন রেলযাত্রী, দূরপাল্লার বাসযাত্রী সহ বহু সাধারণ মানুষ।

14_12_19_MALDA_CAA_PROTEST_STATION_RANSACK_PIC_THREE দুপুর নাগাদ কালিয়াচকের চৌরঙ্গী মোড়ে জড়ো হয়ে যায় প্রায় ১৫ থেকে ২০ হাজার মানুষ । জাতীয় সড়কের বিস্তীর্ণ এলাকা বিক্ষোভকারীদের দখলে চলে যায় । পরিস্থিতি সামাল দিতে কালিয়াচকের পাশাপাশি মোথাবাড়ি ও বৈষ্ণবনগর থানা থেকে বাড়তি পুলিশ বাহিনী ও র‍্যাফ আনানো হয়। দীর্ঘক্ষণ অবরোধের পর এলাকা ছেড়ে চলে যায় বিক্ষোভকারীরা। এদিন দুপুরে হরিশ্চন্দ্রপুর শহীদ মোড় এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। সেই মিছিল বিকেল নাগাদ গিয়ে পৌঁছায় হরিশ্চন্দ্রপুর স্টেশনে। সেখানে ঢুকে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় উত্তেজিত জনতা । তাদের হাতে আক্রান্ত হন এক মহিলা রেলকর্মী । অন্যান্য রেলকর্মীরা কোনও রকমে স্টেশন থেকে পালিয়ে আত্মরক্ষা করেন। রেললাইনে ভাঙাচোরা জিনিসপত্র ফেলে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। মালদা-কাঠিহার প্যাসেঞ্জার ট্রেন স্টেশনে এলে ট্রেন লক্ষ্য করে বিক্ষোভকারীরা ইট, পাথর ছুঁড়তে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ বাহিনী দিয়ে ট্রেন যাত্রীদের উদ্ধার করে।

14_12_19_MALDA_CAA_PROTEST_STATION_RANSACK_PIC_TWO তবে, রাজ্য জুড়ে হিংসার মধ্যেও এদিন শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল করে প্রতিবাদের অন্য দিশা দেখান মালদহের কালিয়াচক কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। সাম্প্রদায়িক ভেদাভেদের পরিবর্তে CAA-র বিরুদ্ধে বাঙালি ঐক্য গড়ে তোলার ডাক দেন ছাত্রছাত্রীরা। মিছিলে নেতৃত্ব দেন কালিয়াচক কলেজের অধ্যক্ষ। ওই মিছিল থেকে অবরোধ, ভাঙচুর, আগুন, ভাঙচুরের আন্দোলন না করার শপথ নেওয়া হয়।​

Published by:Simli Raha
First published: