গঙ্গারামপুরে হচ্ছেটা কী? আস্থা ভোট নিয়ে নাটক চরমে

গঙ্গারামপুরে হচ্ছেটা কী? আস্থা ভোট নিয়ে নাটক চরমে
Photo- Video Grab

ভাইস চেয়ারম্যান, তুলসীপ্রসাদ চৌধুরীই, শুক্রবার হঠাৎ আস্থা ভোট স্থগিতের নোটিস ঝোলালেন।

  • Share this:

#দক্ষিণ দিনাজপুর: গঙ্গারামপুরের আস্থা ভোট ঘিরে ফের নাটক। আদালতকে সামনে রেখে আস্থা ভোট স্থগিত রাখার নোটিস ঝোলালেন ভাইস চেয়ারম্যান। এ নিয়ে তরজা তুঙ্গে।

যে ভাইস চেয়ারম্যান আস্থা ভোটের দিন ঘোষণা করেছিলেন, সেই ভাইস চেয়ারম্যান, তুলসীপ্রসাদ চৌধুরীই, শুক্রবার হঠাৎ আস্থা ভোট স্থগিতের নোটিস ঝোলালেন। পরিস্থিতি এমন যে এই প্রশ্নগুলি উঠে আসছেই ৷

আদালতকে ঢাল করে আস্থা ভোট এড়ানোর চেষ্টা?

কৌশলে ‘চেয়ার’ ধরে রাখার চেষ্টা চেয়ারম্যানের?

গঙ্গারামপুরে হচ্ছেটা কী?

Loading...

আস্থা ভোট আপাতত হচ্ছে না দাবি করে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানের ঘনিষ্ঠরা উৎফুল্ল।এদিকে প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান বলেছেন, ‘আদালতকে সামনে রেখে দেরি করার চেষ্টা করছে। কাটমানি খেয়ে বসে আছেন। পাঁচ তারিখ আস্থা ভোট হবেই৷ ’ লোকসভা ভোটের পর থেকেই দক্ষিণ দিনাজপুরে নাটক। প্রথমে বিজেপিতে যোগ দেন জেলা তৃণমূল সভাপতি বিপ্লব মিত্র। এর পরপরই তাঁর ভাই, গঙ্গারামপুরের পুরপ্রধান, প্রশান্ত মিত্রকে দল থেকে বহিষ্কার করে তৃণমূল।

এদিকে, প্রশান্ত মিত্রের বিরুদ্ধে গঙ্গারামপুরের কয়েকজন কাউন্সিলর অনাস্থা প্রস্তাব আনেন। যার ভিত্তিতে পাঁচই অগাস্ট আস্থা ভোট হবে বলে নোটিস জারি করেন ভাইস চেয়ারম্যান। এর মধ্যে রাজনীতির খেলা চলতেই থাকে। হাইকোর্টে একাধিক মামলাও হয়।

৯ জুলাই, বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়, গঙ্গারামপুর পুরসভার কয়েকজন কাউন্সিলরের অনাস্থা মামলা খারিজ করে দেন। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে মামলা করেন প্রশান্ত মিত্র। শুক্রবার জরুরি ভিত্তিতে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয় ডিভিশন বেঞ্চের। মামলার গুরুত্ব বুঝে সোমবার অর্থাৎ পাঁচই অগাস্ট সকালে শুনানি হবে বলে ঠিক হয়েছে। কিন্তু, সোমবারের আস্থা ভোটের উপর মোটেই স্থগিতাদেশ দেয়নি ডিভিশন বেঞ্চ। অথচ, চেয়ারম্যান তেমনটাই দাবি করছেন।

তাঁর ঘনিষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান আবার এই মামলাকেই সামনে রেখে আস্থা ভোট স্থগিতে করার নোটিসও ঝুলিয়ে দিলেন। এ সবই কি কৌশল? যাতে আস্থা ভোট এড়িয়ে চেয়ারে টিকে থাকতে পারেন চেয়ারম্যান? সংখ্যা নিয়ে চাপ রয়েছে বুঝেই কি আস্থাভোট এড়ানোর চেষ্টা? উঠছে প্রশ্ন।

First published: 09:03:51 AM Aug 03, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर