corona virus btn
corona virus btn
Loading

মৃত ছাগলকে মাচায় তুলে শবযাত্রা, অসুস্থ ছাগল বিলির অভিযোগ উঠল সরকারের বিরুদ্ধে

মৃত ছাগলকে মাচায় তুলে শবযাত্রা, অসুস্থ ছাগল বিলির অভিযোগ উঠল সরকারের বিরুদ্ধে

অন্যদিকে, রোগাক্রান্ত ছাগল উপভোক্তাদের দেওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই বলে জানিয়েছেন ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ আধিকারিক।

  • Share this:

Uttam Paul

#কালিয়াগঞ্জ: মৃত পাঠাকে মাচায় তুলে শবযাত্রা করল বিজেপি। কালিয়াগঞ্জ ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের সামনে মৃত ছাগল রেখে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি। গ্রামীণ মহিলাদের স্বর্নিভর করার লক্ষ্যে মহিলাদের ছাগল দেওয়া শুরু করেছে কালিয়াগঞ্জ ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতর। প্রতিটি ছাগলের মূল্য ধরা হয়েছে তিন হাজার টাকা। অভিযোগ, উপভোক্তারা সরকারি বিলি করা ছাগল নিয়ে বাড়িতে  যাওয়ার কয়েক দিনের মধ্যেই ছাগলের মৃত্যু হচ্ছে। বিষয়টি প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরকে জানানো হলেও তার কোনও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ।

কালিয়াগঞ্জ ব্লকে যে সমস্ত উপভোক্তা এই ছাগল পেয়েছেন অধিকাংশ ছাগলেরই মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, অসুস্থ ছাগল কম দামে কিনে সেই ছাগল বিলি করছে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর। প্রাণী সম্পদ বিকাশ  দফতরের এই দূর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামল কালিয়াগঞ্জ বিজেপি।আজ বিজেপির পক্ষ থেকে মৃত ছাগলকে মাচায় তুলে শবযাত্রা করে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের সামনে রেখে বিক্ষোভ দেখায়। বিজেপি নেতা গৌরাঙ্গ দাসের অভিযোগ, অসুস্থ ছাগল গ্রামীণ মহিলাদের বিলি করা হচ্ছে। বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পরই সেগুলোর মৃত্যু হচ্ছে। অসুস্থ ছাগল বাড়িতে আনার পর বাড়ির যেগুলো সুস্থ ছাগল আছে সেগুলোও অসুস্থ হয়ে পড়ছে। ভয়ে মহিলারা সরকারি বিলি করা ছাগল বাড়িতে তুলছে না।

গতকাল রাতেও কালিয়াগঞ্জে বেশ কয়েকটি ছাগলের মৃত্যুর হয়। প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের এই দূর্নীতির প্রতিবাদে মৃত ছাগল নিয়ে ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ বিক্ষোভ দেখান হল। অবিলম্বে এই দূর্নীতির তদন্ত করে অভিযুক্ত সরকারি আধিকারিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে। তবে বিজেপির অভিযোগ মানতে চাননি ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের আধিকারিক চন্দন কুমার দত্ত। তিনি জানিয়েছেন, মহিলাদের ছাগল বিলি করার আগে পশু চিকিৎসকরা সেই ছাগলগুলি পরীক্ষা করেন।অসুস্থ কোনও ছাগল মহিলাদের দেওয়া হয় না। যদি কোনও ছাগল অসুস্থ হয় পশু চিকিৎসকের কাছে নিয়ে এলে সেগুলো চিকিৎসা করে সুস্থ করে তোলা যেত। যে কোনও পশু অসুস্থ হতে পারে। তার জন্য চিকিৎসা আছে।

ছাগল উপভোক্তাদের হাতে তুলে দেবার আগে জনপ্রতিনিধিদের দেখানো হয়। এছাড়াও উপভোক্তা দেখে সন্তষ্ট হবার পর তার হাতে সেটি তুলে দেওয়া হয়। রোগাক্রান্ত ছাগল উপভোক্তাদের দেওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই বলে জানিয়েছেন ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ আধিকারিক।

Published by: Simli Raha
First published: February 27, 2020, 10:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर