• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • West Bengal News: অভিশপ্ত আশীর্বাদ! মালদহের একরত্তি শিশুর ভয়ংকর মৃত্যু, ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা গ্রাম

West Bengal News: অভিশপ্ত আশীর্বাদ! মালদহের একরত্তি শিশুর ভয়ংকর মৃত্যু, ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা গ্রাম

মারাত্মক ঘটনা মালদহে

মারাত্মক ঘটনা মালদহে

West Bengal News: আশীর্বাদের নামে টাকা আদায় করতে গিয়ে সদ্যজাতকে মায়ের কোল ছাড়া করে অত্যাচার, মর্মান্তিক মৃত্যু সদ্যজাতর। মালদহের ঘটনা।

  • Share this:

#মালদহ: টাকা নিয়ে দর কষাকষিতে প্রাণ গেল সদ্যজাত শিশুর । টাকার দাবিতে সদ্যজাতকে মায়ের কোল ছাড়া করে অত্যাচারের অভিযোগ উঠল। তার ফলে মালদহের মানিকচকে মৃত্যু সদ্যজাত শিশুর। গ্রেপ্তার অভিযুক্ত (পামারিয়া)। শিশুকে আশীর্বাদের নামে জোর করে পরিবারের থেকে টাকা আদায়ের চেষ্টা। চাহিদা মতো টাকা না দেওয়ায় শিশুকে মায়ের কাছ থেকে আলাদা করে রাখার অভিযোগ। চাহিদা মতো টাকা না পেলে শিশুকে ফেরত নয়। এভাবেই জোর করে মায়ের থেকে শিশুকে দীর্ঘক্ষণ আলাদা করে রাখা হয়। দীর্ঘ সময়ের মধ্যে খাওয়াও জোটেনি শিশুর। এরপরই মৃত্যু হয় তার।

জানা গিয়েছে, গত ২৯ অক্টোবর মানিকচকের বাঙ্গাল গ্রামের বাসিন্দা মাম্পি সরকার মাঝি মালদা মেডিক্যাল কলেজে একসঙ্গে তিন শিশুর জন্ম দেন। এর মধ্যে দুটি পুত্র সন্তান ও একটি কন্যা সন্তান হয়। বুধবার তাঁর বাড়িতে হাজির হয় টাক পামারিয়া আউলাদ আলী। বাড়িতে বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে পাঁচ হাজার টাকা দাবি করা হয়। কিন্তু, পরিবার চাহিদা মতো টাকা দিতে পারেনি। এরপরে টাকা আদায়ের জন্য একটি পুত্র সন্তানকে মায়ের থেকে আলাদা করে টাকা আদায়ের জন্য চাপ দেওয়া হতে থাকে বলে অভিযোগ।

ওই সময় শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়ে মৃত্যু হয় শিশুটির। মৃতের পরিবারের দাবি, ওই পামারিয়াকে তাঁরা ৫০০ টাকা দেয়। এরপরেও  দাবি না ছাড়ায় কয়েকটি বাসনপত্রও দেওয়া হয়। এমনকী শিশুকে খাওয়ানোর কথা বললেও সদ্যজাতকে ফেরত পাননি মা। শেষে ওই  শিশুকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য বললে কর্তব্যরত এক আশাকর্মীকেও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন: এত সহজে ছাড় নয়, CBI-ED- কর্তাদের মেয়াদ বৃদ্ধির বিরুদ্ধে ছক সাজাচ্ছেন মহুয়া-সুরজেওয়ালারা

আরও পড়ুন:  'দলের বিলুপ্তি অবশ্যম্ভাবী...', আরও বড় 'বিস্ফোরণের' ইঙ্গিত দিলেন তথাগত রায়!

প্রায় আড়াই-তিন ঘন্টা পর যখন শিশুকে ফেরত দেওয়া হয় তখন সব শেষ। এই বিষয়ে  মানিকচক থানায় অভিযোগ দায়ের করে পরিবার । এরপরে গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত আওলাদ আলিকে। শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটনায় শোকের ছায়া নেমেছে এলাকায় । যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে তাকেই পাল্টা মারধর করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত । অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে শিশুকে ফেরত দিয়ে দিয়েছিলেন বলেও দাবি করেছেন তিনি।

Published by:Suman Biswas
First published: