• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • ফের শিলিগুড়ি পুরসভার মসনদে অশোক ভট্টাচার্য, বিশেষ পরিস্থিতিতে বিশেষ দায়িত্বে

ফের শিলিগুড়ি পুরসভার মসনদে অশোক ভট্টাচার্য, বিশেষ পরিস্থিতিতে বিশেষ দায়িত্বে

বামেদের ৭ এবং তৃণমূলের ৫ প্রাক্তন কাউন্সিলরকে নিয়ে গঠন করা হয়েছিল প্রশাসক মণ্ডলী। চেয়ারম্যান করা হয় অশোক ভট্টাচার্যকেই।

বামেদের ৭ এবং তৃণমূলের ৫ প্রাক্তন কাউন্সিলরকে নিয়ে গঠন করা হয়েছিল প্রশাসক মণ্ডলী। চেয়ারম্যান করা হয় অশোক ভট্টাচার্যকেই।

বামেদের ৭ এবং তৃণমূলের ৫ প্রাক্তন কাউন্সিলরকে নিয়ে গঠন করা হয়েছিল প্রশাসক মণ্ডলী। চেয়ারম্যান করা হয় অশোক ভট্টাচার্যকেই।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ফের ক্ষমতায় অশোক ভট্টাচার্য। শিলিগুড়ি পুরসভার মসনদে ফিরলেন সদ্য প্রাক্তন মেয়র। এবারে নতুন ভূমিকায়। পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যানের পদে বসলেন তিনি। গতকালই শেষ হয় বাম পরিচালিত পুরসভার মেয়াদ। প্রশাসক কে হবেন? এনিয়ে চলে বাকযুদ্ধ।

বাম, তৃণমূলের লড়াই। নাটকীয়তায় মোড়া ছিল গত ২ দিন। প্রথমে রাজ্য পুর দপ্তরের নির্দেশিকায় শিলিগুড়ি পুরসভায় ছিল ১২ সদস্যের প্রশাসক মণ্ডলী। বামেদের ৭ এবং তৃণমূলের ৫ প্রাক্তন কাউন্সিলরকে নিয়ে গঠন করা হয়েছিল প্রশাসক মণ্ডলী। চেয়ারম্যান করা হয় অশোক ভট্টাচার্যকেই। বেঁকে বসেন তিনি এবং তাঁর দল। কলকাতা-সহ রাজ্যের সব পুরসভাতেই শাসক দলের প্রতিনিধিদের নিয়ে প্রশাসক মণ্ডলী গঠন করা হয়। বিরোধীদের রাখা হয়নি। তাহলে কেন শিলিগুড়িতে বিরোধীদের রাখা হল? প্রশ্ন তোলেন অশোক ভট্টাচার্য। বিরোধীতা করে চেয়ারম্যানের পদ প্রত্যাক্ষান করেন তিনি। শনিবারই চিঠি পাঠান পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রীকে। তারপরই বিকেলে নির্দেশিকায় বদল আনে রাজ্য। নতুন নির্দেশিকায় তৃণমূলের ৫ প্রাক্তন কাউন্সিলরকে বাইরে রেখে ৭ সদস্যের নতুন প্রশাসনিক মণ্ডলী গঠন করেন। এবং ৭ জনই বামেদের। অবশেষে নাটকের অবসান। সেইমতো আজ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেন অশোক ভট্টাচার্য।

পুরসভায় তাঁকে সংবর্ধনাও দেওয়া হয়। এখন এক কঠিন পরিস্থিতি চলছে। তাই মহা দায়িত্ব রয়েছে। তিনি বলেন, এক বিশেষ সময়ে এই দায়িত্ব। নির্বাচন হয়নি। কাঁটার মুকুট মাথায় নিয়ে চেয়ারে বসেছি। সামলাতে হবে করোনা পরিস্থিতি। শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে কাজ করতে হবে। অন্য বিরোধী দলেরও সহযোগিতা চাই। অন্য ৬ প্রাক্তন মেয়র পারিষদ সদস্য, ডেপুটি মেয়র রয়েছে প্রশাসক মণ্ডলীতে। করীনা মোকাবিলায় কাজ করতে হবে পুরসভাকে। শহরবাসীর পাশে থাকতে হবে। ফের ২ করোনা পজিটিভের খীঁজ মেলায় দায়িত্ব বাড়ছে পুরসভার। অন্যদিকে পুরসভার প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার বলেন, এখন কঠিন সময়। এই সময়ে আমরা সর্বতভাবে সহযোগিতা করবো।

Partha Pratim Sarkar

Published by:Ananya Chakraborty
First published: