Home /News /north-bengal /
Dooars: মর্মান্তিক! প্রায় চারদিন পরে মিলল ডুয়ার্সের সেই হস্তিশাবকের পচাগলা দেহ

Dooars: মর্মান্তিক! প্রায় চারদিন পরে মিলল ডুয়ার্সের সেই হস্তিশাবকের পচাগলা দেহ

Dooars: জেসিবি মেশিন দিয়ে সেই হস্তি শাবকের অর্ধ দেহ তুলে নিয়ে গাড়িতে করে পাঠানো হয় গরুমারা প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে৷ ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে জানিয়েছে বনদফতর৷

  • Share this:

    #রকি চৌধুরী, ডুয়ার্স: চারদিনের প্রচেষ্টার পর মৃত হস্তিশাবককে উদ্ধার করল বনদফতর। এতগুলো দিন পেরিয়ে গেলেও মৃত শাবককে কাছছাড়া করতে চাইছিল না মা হাতি৷ শুক্রবার সকাল থেকে এই মন খারাপ করা দৃশ্যেরই সাক্ষী থেেছে ডুয়ার্সের রেড ব্যাঙ্ক চা বাগান৷

    আরও পড়ুন: 'সূচ্যগ্র ভূমি' ছাড়তে রাজি নয় কেউ, নন্দীগ্রাম আজও যেন 'কুরুক্ষেত্র'! জ্বলছে ছাই চাপা আগুন...

    প্রায় চার দিন ধরে সন্তানের দেহ আগলে রাখা হাতিটির উপরে লাগাতার নজরদারি চালিয়েছে বন দফতর৷ হাতিটির গতিবিধি লক্ষ্য করতে ওড়ানো হয়েছে ড্রোনও৷ কারণ সন্তান হারানোর ক্ষোভে যখন তখন মেজাজ হারাতে পারে হাতিটি৷ শুক্রবার সকাল থেকেই রেড ব্যাঙ্ক চা বাগানে এই হাতিটিকে দেখতে পান বাগানের শ্রমিক এবং স্থানীয় বাসিন্দারা৷ দেখা যায়, নিজের মৃত সন্তানের দেহ শুঁড়ে আঁকড়ে হেঁটে যাচ্ছে হাতিটি৷

    আরও পড়ুন 100 Day Job: একশো দিনের কর্মীদের জন্য তৎপর রাজ্য, বড় নির্দেশ দিলেন মুখ্যসচিব

    বন দফতরের কর্মীরা প্রথমে ভেবেছিলেন, কিছুক্ষণ পর হয়তো মৃত শাবককে ছেড়ে জঙ্গলবে ফিরবে হাতিটি৷ কিন্তু সন্ধ্যা পেরিয়ে রাত নামলেও নিজের মৃত সন্তানকে কাছছাড়া করেনি সে৷ওই হাতিটি মৃত শাবকের দেহ আগলে থাকায় ওই দলে থাকা বাকি হাতিগুলিও তাকে ঘিরে দাঁড়িয়ে থাকে৷  মৃত সন্তানের প্রতি মায়ের এই স্নেহ দেখে মন খারাপ হয় রেড ব্যাঙ্ক চা বাগানের বাসিন্দাদেরও৷

    অবশেষে সোমবার বহু প্রচেষ্টার পর সেই হস্তিশাবকটির পচা-গলা দেহ উদ্ধার করল বনদফতর। জেসিবি মেশিন দিয়ে সেই হস্তি শাবকের অর্ধ  দেহ তুলে নিয়ে গাড়িতে করে পাঠানো হয় গরুমারা প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে৷  ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে জানিয়েছে বনদফতর৷

    Published by:Rachana Majumder
    First published:

    Tags: Baby Elephant, Dooars

    পরবর্তী খবর