Home /News /north-24-parganas /
North 24 Parganas: এলাকায় দুর্গন্ধে বাড়িতে আসছেন না আত্মীয়রা! কাউন্সিলরের দ্বারস্থ স্থানীয়রা

North 24 Parganas: এলাকায় দুর্গন্ধে বাড়িতে আসছেন না আত্মীয়রা! কাউন্সিলরের দ্বারস্থ স্থানীয়রা

কালো হয়ে গিয়েছে খালের জল

কালো হয়ে গিয়েছে খালের জল

দুর্গন্ধ অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন এলাকার মানুষ। খাওয়া দাওয়া থেকে জীবনযাপন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। ঘরোয়া অনুষ্ঠানে আত্মীয়-স্বজন অব্দি আসছেন না কারোর বাড়িতে।

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা : দুর্গন্ধ অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন এলাকার মানুষ। খাওয়া দাওয়া থেকে জীবনযাপন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। ঘরোয়া অনুষ্ঠানে আত্মীয়-স্বজন অব্দি আসছেন না কারোর বাড়িতে। এমনই অবস্থাকে সঙ্গী করে চলতে হচ্ছে অশোকনগর কল্যাণগড় পৌরসভার কাকপুল খালপাড় এলাকার বাসিন্দাদের। সমস্যা তৈরি হয়েছে এলাকায় বেআইনিভাবে তৈরি হওয়া এক গোরুর খাটাল ঘিরে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পুরসভা ও পঞ্চায়েত এলাকার সীমান্ত বরাবর গিয়েছে ইছামতি সংলগ্ন খাল। সেই খালের জল ব্যবহার করা হয় চাষাবাদ থেকে নিত্যকর্মের কাজে। খালে মাছ ধরেও জীবিকা নির্বাহ করে এলাকার মানুষজন। তবে গত কয়েক মাস আগে খালের অপর প্রান্তে পঞ্চায়েত এলাকার মধ্যে বেআইনিভাবে একটি গরুর খাটাল তৈরি করা হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। আর তার থেকেও বড় বিষয় হল, সেই খাটালের বর্জ্য পদার্থ নালা দিয়ে এসে মিশছে সোজা খালের জলে। ফলে দূষিত হয়ে পড়েছে খালের জল। জল পচে ফেনার আকারে বুদবুদু উঠছে বলে জানান স্থানীয়রা। ফলে ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে খালের জল। মরে ভেসে উঠছে খালের জলে থাকা মাছও। কালো বিষাক্ত জল ব্যবহারও করতে পাচ্ছেন না এলাকার মানুষ। খালের থেকে মাটি নিয়ে গাছের গোড়ায় দেওয়া হলে মরে যাচ্ছে গাছ, বলেই জানাচ্ছেন স্থানীয়রা।

    বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়রা দ্বারস্থ হয়েছেন অশোকনগর কল্যাণগড় পৌরসভার পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সঞ্জয় রাহার কাছে। কাউন্সিলর নিজেও এলাকা পরিদর্শন করেছেন ইতিমধ্যেই। বিষয়টি খতিয়ে দেখে তিনি অবিলম্বে খাটাল যাতে ওই এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তার জন্য সচেষ্ট হয়েছেন বলে জানান। এমনকি ওই খাটাল ভুরকুন্ডা পঞ্চায়েত এলাকায় হওয়ায় পঞ্চায়েত প্রধানের সঙ্গেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে জানান স্থানীয় ওই কাউন্সিলর।

    আরও পড়ুনঃ অনেক হয়েছে সচেতনতা! প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহারে এবার পাবেন শাস্তি

    এই পরিবেশ দূষণের বিষয়টি নিয়ে খাটাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও কোন উত্তর মেলেনি। ইতিমধ্যেই সরকারের তরফ থেকে খাল সংস্কারের জন্য সক্রিয় হয়েছেন এলাকার বিধায়ক নারায়ণ গোস্বামী। বরাদ্দ হয়েছে টাকাও। কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হবে খাল সংস্কারের কাজ। স্থানীয় বাসিন্দা অশোক দে জানান, খাটাল হওয়ার পর থেকেই দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হচ্ছি আমরা।

    আরও পড়ুনঃ রেললাইনে যুক্ত হবে মছলন্দপুর থেকে স্বরূপনগর

    খাওয়া দাওয়া থেকে ঘুমনো কোন কিছুতেই শান্তি নেই। এলাকার বাচ্চারাও এই গন্ধে বমি এবং অসুস্থ হয়ে পড়ছে। খাটাল অন্যত্র না সরলে আমাদের এখানে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। এলাকার স্থানীয় মহিলাদেরও একই দাবি। ফলে এখন প্রশাসনের তরফ থেকে কি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, সেদিকেই নাকে কাপড় চেপে তাকিয়ে রয়েছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা।

    Rudra Narayan Roy
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Ashokenagar, North 24 Parganas

    পরবর্তী খবর