'মহিলাদের সম্মান করা প্রত্যেকের কর্তব্য', আজম খানের মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর

'একজন সাংসদ কিছুতেই ''আমার চোখে চোখ রেখে কথা বলুন'' এই মন্তব্য করতে পারেন না', লোকসভায় জানিয়েছেন মিমি

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 26, 2019 07:44 PM IST
'মহিলাদের সম্মান করা প্রত্যেকের কর্তব্য', আজম খানের মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 26, 2019 07:44 PM IST

#নয়াদিল্লি: লোকসভায় তিন তালাক বিল চলাকালীনই বিজেপি সাংসদ রমা দেবীর উদ্দেশে সমাজবাদী পার্টির সাংসদ আজম খানের বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে উত্তাল জাতীয় রাজনীতি । বক্তব্য চলাকালীনই রমা দেবীকে আজম খান বলেন 'আপনার চোখে চোখ রেখে কথা বলতে ইচ্ছে হয়'। এই মন্তব্যের প্রতিবাদে লোকসভায় সরব হলেন তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ।

আজম খানের এই মন্তব্যের পর থেকেই বিজেপি ও অন বিরোধী দলগুলির তরফ থেকে এর তীব্র প্রতিবাদ করা হয়েছে । এদিন সাংসদে মিমি বলেছেন 'আমি এখানে প্রতিদিনই নতুন কিছু শিখছি কিন্তু যে ভাষায় গতকাল উনি কথা বলেছেন তা কোনও সাংসদ বলতে পারেন না । 'একজন সাংসদ কিছুতেই ''আমার চোখে চোখ রেখে কথা বলুন'' এই মন্তব্য করতে পারেন না', লোকসভায় জানিয়েছেন মিমি ।

'মহিলাদের সম্মান করাটা প্রত্যেকেরই কর্তব্য। গতকাল যা হয়েছে তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক বিভেদ ভুলে লড়াই করা উচিৎ,' জানিয়েছেন মিমি । পাশাপাশি স্পীকার ওম বিড়লার উদ্দেশে মিমি বলেছেন 'সংসদে উপস্থিত প্রত্যেকটি মহিলা আপনার থেকে ইতিবাচক পদক্ষেপ আশা করছি' ।

নির্মলা সীতারমণ, রবিশঙ্কর প্রসাদ, স্মৃতি ইরানি থেকে শুরু করে নুসরত জাহান, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত বিরোধী সাংসদরাও আজম খানের ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছেন যদিও সেই দাবি মানতে নারাজ আজম খান নিজে । তাঁর পাল্টা দাবি তিনি অসংসদীয় কোনও কথা বলেননি, তা যদি হয়ে থাকত তাহলে ইস্তফা দিতেও রাজী তিনি ।

First published: 07:44:11 PM Jul 26, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर