Home /News /national /

Prashant Kishor : "ভোট করতে হলে..." ৫ রাজ্যে নির্বাচনের 'একমাত্র নিরাপদ' পথ বাতলে দিলেন প্রশান্ত কিশোর!

Prashant Kishor : "ভোট করতে হলে..." ৫ রাজ্যে নির্বাচনের 'একমাত্র নিরাপদ' পথ বাতলে দিলেন প্রশান্ত কিশোর!

ভোট প্রসঙ্গে জোরালো দাবি প্রশান্ত কিশোরের

ভোট প্রসঙ্গে জোরালো দাবি প্রশান্ত কিশোরের

Prashant Kishor: করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে প্রশান্ত কিশোর এবার ভোট নিয়ে স্পষ্ট দাবি তুললেন কমিশনের সামনে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: তিনি ভোটকুশলী হিসেবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে ভোটের প্রচার কৌশল নিয়ে পরামর্শ দেন তিনি। করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে সেই প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishor) এবার ভোট নিয়ে স্পষ্ট দাবি তুললেন কমিশনের সামনে। একেবারে সাধারণ নাগরিকের মতো পাঁচ রাজ্যের ভোট করার ক্ষেত্রে শর্তপূরণ কথা মনে করিয়ে কার্যত ভোট পিছিয়ে দেওয়ার কথা বললেন প্রশান্ত কিশোর। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে পিকে বলছেন, ভোটমুখী রাজ্যগুলিতে অন্তত ৮০ শতাংশ মানুষ টিকার দুটি করে ডোজ না পেলে ভোট করানো উচিত নয়।

    আরও পড়ুন: এবার পোস্ট অফিসেও কাটা যাবে ট্রেনের টিকিট! সুখবর দিল রেল!

    শুক্রবার একটি ট্যুইটে ভোট কুশলী (Prashant Kishor) লেখেন,”ভোটমুখী রাজ্যগুলির ৮০ শতাংশ জনগণের করোনার ভ্যাকসিনের (Corona Vaccine) দুটি ডোজ পাওয়া নিশ্চিত করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে। এটাই এই মহামারীর সময়ে পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার একমাত্র সুরক্ষিত পথ। বাকি সব কিছুই অনর্থক।”

    পিকে মনে করছেন, নির্বাচন কমিশন যে কোভিড বিধি রাজনৈতিক দলগুলির জন্য বেঁধে দিয়েছে, তা নিরর্থক, কেউ কখনও তা মানে না। তিনি দ্বর্থহীন ভাষায় বলেন,”কমিশনের বেঁধে দেওয়া আদর্শ কোভিড (COVID-19) বিধি পুরোপুরি অর্থহীন। কেউ এসব মানে না।”

    দেশে ওমিক্রনের প্রকোপ বৃদ্ধির পর পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার দাবি নতুন কিছু নয়। এর আগে খোদ এলাহাবাদ এবং উত্তরাখণ্ড হাই কোর্ট ভোট পিছিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনকে ভেবে দেখতে অনুরোধ করেছে। নিদেনপক্ষে বড় জনসভা যাতে রাজনৈতিক দলগুলি না করতে পারে, সেটা নিশ্চিত করতে কমিশনকে (Election Commission) অনুরোধ করেছে আদালত।

    আরও পড়ুন: ভয়াবহ! একলাফে ৯১ হাজার ছুঁই ছুঁই দৈনিক সংক্রমণ! করোনা-কম্পে কাঁপছে গোটা দেশ...

    কিন্তু এখনও পর্যন্ত যা খবর, তাতে নির্বাচন কমিশন ভোট পিছানোর কথা ভাবছে না। অর্থাৎ ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাসেই পাঁচ রাজ্যের ভোট হতে পারে। ইতিমধ্যেই এ বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলির মতামত নেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফে। সব দলই সময়ে ভোটগ্রহণের পক্ষে। তবে, সময়মতো ভোটগ্রহণ হলেও বেশ কিছু প্রচার বিধি রাজনৈতিক দলগুলিকে বেঁধে দেওয়া হতে পারে। যদিও পিকের মতে এভাবে প্রচার বিধি বেঁধে দেওয়া কার্যত যুক্তিহীন।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    Tags: Goa Assembly Election 2022, Prashant Kishor, Tripura Election 2022

    পরবর্তী খবর