হোম /খবর /দেশ /
দেশে ওমিক্রন আক্রান্ত দ্বিতীয় মৃত্যু, করোনা নেগেটিভ হয়েও শেষরক্ষা হল না!

Omicron Death in India: দেশে ওমিক্রন আক্রান্ত দ্বিতীয় মৃত্যু, করোনা নেগেটিভ হয়েও শেষরক্ষা হল না!

চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের একাংশ সতর্ক করছেন, ওমিক্রনের কারণে দেশে শীঘ্রই একটি বড় স্বাস্থ্য সংকট দেখা দিতে পারে। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রকে উদ্ধৃত করে প্রকাশ করেছিল, ভারতে ডেল্টাকে সরিয়ে ডমিনেন্ট হয়ে উঠে আসতে শুরু করেছে ওমিক্রন। ওমিক্রনে আক্রান্তের বাস্তব পরিসংখ্যান আরও বেশি হওয়ার সম্ভাবনা।

চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের একাংশ সতর্ক করছেন, ওমিক্রনের কারণে দেশে শীঘ্রই একটি বড় স্বাস্থ্য সংকট দেখা দিতে পারে। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রকে উদ্ধৃত করে প্রকাশ করেছিল, ভারতে ডেল্টাকে সরিয়ে ডমিনেন্ট হয়ে উঠে আসতে শুরু করেছে ওমিক্রন। ওমিক্রনে আক্রান্তের বাস্তব পরিসংখ্যান আরও বেশি হওয়ার সম্ভাবনা।

উদয়পুর জেলার ওই প্রবীণ ব্যক্তি টিকার দুটি ডোজও নিয়েছিলেন (Omicron Death in India)। কিন্তু শেষরক্ষা হল না।

  • Last Updated :
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশে নতুন করে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের দাপট ক্রমেই বাড়ছে। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। আতঙ্কের বিষয় হল, এবার মৃত্যুও বাড়ছে। গতকালই মহারাষ্ট্রের পিম্পরিতে নাইজেরিয়া ফেরত ৫২ বছর বয়সী প্রথম ওমিক্রন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছিল। শুক্রবার বছরের শেষ দিনেও ফের ওমিক্রনে আক্রান্ত দেশে দ্বিতীয় মৃত্যু ঘটল (Omicron Death in India)। স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর, ওমিক্রন আক্রান্ত এক বৃদ্ধের মৃত্যুর হয়েছে রাজস্থানে (Omicron Death in India)। উদয়পুর জেলার ওই প্রবীণ ব্যক্তি টিকার দুটি ডোজও নিয়েছিলেন (Omicron Death in India)। কিন্তু শেষরক্ষা হল না।

জানা গিয়েছে, চলতি মাসের ১৫ তারিখ তাঁর করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তার পরেই তাঁকে চিকিৎসাধীন করা হয়েছিল। ২৫ তারিখ করোনামুক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। এই বৃদ্ধের মৃত্যু ওমিক্রনে দেশে দ্বিতীয় প্রাণহানির ঘটনা। নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্ট থাকায় তাঁকে বাইপ্যাপ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। শুক্রবার অক্সিজেন মাত্রা কমতে থাকে, এবং শেষ পর্যন্ত মারা যান তিনি।

আরও পড়ুন: আতঙ্ক-উদ্বেগ চরমে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত প্রায় সাড়ে ৩ হাজার! কলকাতাতেই ১৯৫৪

উদয়পুর হাসপাতালের এক স্বাস্থ্যকর্তা বলেছেন, 'করোনা সংক্রমিত হয়েই সেই ব্যক্তি আমাদের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হয়েছিলেন। সেই সময় তাঁর শ্বাসযন্ত্রে সমস্যা ছিল এবং নিউমোনিয়ার উপসর্গ ছিল। ৭ দিনের মধ্যেই তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। কিন্তু ২৫ ডিসেম্বর তাঁর জিন বিন্যাসের রিপোর্টে ওমিক্রন ধরা পড়ে। এরপর ২৫ ডিসেম্বর তাঁর আরও একবার নমুনা পরীক্ষা হয়। দ্বিতীয়বারও রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।'

আরও পড়ুন: ১১টি মাইক্রো কন্টেনমেন্ট পয়েন্ট ঘোষণা করল কলকাতা পুরসভা, সংক্রমণ রুখতে কড়া প্রশাসন

করোনার নয়া ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে। শুক্রবার পর্যন্ত দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১২৭০। কলকাতাতেও বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ১৬ জনের শরীরে ওমিক্রনের হদিশ মিলেছে। শুক্রবার রাজ্যে নতুন করে প্রায় সাড়ে তিন হাজার করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। তবে তাঁদের মধ্যে কতজন ওমিক্রনে আক্রান্ত, তা অবশ্য স্বাস্থ্য দফতর জানায়নি।

Published by:Raima Chakraborty
First published:

Tags: Coronavirus, Omicron, Omicron Panick In Kolkata