'আহমেদ ভাইয়ের আত্মার শান্তি কামনা করি', কংগ্রেস নেতার মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর

'আহমেদ ভাইয়ের আত্মার শান্তি কামনা করি', কংগ্রেস নেতার মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর

আহমেদ ভাইয়ের আত্মার শান্তি কামনা করি৷ ট্যুইটে এই মর্মে শোকবার্তা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷

আহমেদ ভাইয়ের আত্মার শান্তি কামনা করি৷ ট্যুইটে এই মর্মে শোকবার্তা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেলের মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ কংগ্রেস নেতার মৃত্যুর খবর পেয়ে তাঁর ছেলে ফয়সালের সঙ্গে কথা বলেন মোদি৷ আহমেদ প্যাটেলের আত্মার শান্তি কামনা করেছেন নরেন্দ্র মোদি৷ শোকবার্তায় তিনি লেখেন, দীর্ঘদিন সমাজের কল্যাণে এবং সাধারাণ মানুষের জন্য কাজ করেছেন আহমেদ প্যাটেল৷ তীক্ষ্ণ বুদ্ধি ছিল তাঁর এবং কংগ্রেসের সাংগঠনিক শক্তিকে মজবুত করতে তাঁর ভূমিকা ছিল অসীম৷ তাঁর মৃত্যুতে খুবই দুঃখিত৷ আহমেদ ভাইয়ের আত্মার শান্তি কামনা করি৷ ট্যুইটে এই মর্মে শোকবার্তা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷

    বুধবার ভোর রাতে মৃত্যু হয় আহমেদ প্যাটেলের। বর্ষীয়ান নেতার মৃত্যুর খবর দেন তাঁর ছেলে প্যাটেল। ৭১ বছর বয়সী আহমেদ প্যাটেল (Ahmed Patel Dies)গুরুগ্রামের মেদন্ত হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে তিনি করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন (Ahmed Patel COVID Infected)

    কংগ্রেসের কোষাধ্যক্ষ ছিলেন আহমেদ প্যাটেল৷ ১ অক্টোবর করোনায় সংক্রামিত হয়েছিলেন এবং তাঁকে ১৫ নভেম্বর গুরুগ্রামের মেদন্ত হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছিল। ১ অক্টোবর, করোনা আক্রান্ত জানতে পেরে তাঁর সান্নিধ্যে আসা সকলে করোনা পরীক্ষা করার কথা বলেন কংগ্রেস নেতা৷

    আটবারের সাংসদ আহমেদ প্যাটেল লোকসভায় তিনবার এবং রাজ্যসভায় পাঁচবার মেয়াদ শেষ করেছেন। ২০১৮র অগস্টে অল ইন্ডিয়া কংগ্রেস কমিটির (AICC) কোষাধ্যক্ষ হিসাবে নিযুক্ত হন। ১৯৭৬-এ আহমেদ প্যাটেল গুজরাটের ভরচ জেলাতে স্থানীয় সংস্থা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে রাজনৈতিক জীবন শুরু করেছিলেন। পরে তিনি গুজরাট এবং কেন্দ্রের কংগ্রেসের সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

    ১৯৮৫-এ, তিনি তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর সংসদের সচিব হিসাবে নিযুক্ত হন। আহমেদ প্যাটেল সর্দার সরোবর প্রকল্পের তদারকি করার জন্য নর্মদা ম্যানেজমেন্ট কর্তৃপক্ষ স্থাপনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

    Published by:Pooja Basu
    First published: